ভোলার জেলা প্রশাসক কার্যালয়ে ‘বঙ্গবন্ধু ও মুক্তিযুদ্ধ কর্নার’ উদ্বোধন

 সাব্বির আলম বাবু,নিজস্ব প্রতিনিধিঃ নতুন  প্রজন্ম যেন সহজে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও মুক্তিযুদ্ধ সম্পর্কে জানতে পারে সেই লক্ষে ভোলা জেলা প্রশাসক কার্যালয়ে বঙ্গবন্ধু ও মুক্তিযুদ্ধ কর্ণার স্থাপন করা হয়েছে।

সোমবার রাতে জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের নিচ তলায় একটি কক্ষে স্থাপিত বঙ্গবন্ধু ও মুক্তিযুদ্ধ কর্ণারের উদ্বোধন করেন বরিশালের বিভাগীয় কমিশনার ড. অমিতাভ সরকার। বঙ্গবন্ধু ও মুক্তিযুদ্ধ কর্ণার উদ্বোধনী সভায় জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ মাসুদ আলম সেলিমের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথির বক্তব্যে বরিশালের বিভাগীয় কমিশনার ড. অমিতাভ সরকার বলেন, বঙ্গবন্ধুকে জানা মানেই বাংলাদেশকে জানা। ১৯৭১ সালের মুক্তিযুদ্ধ কোন গল্প নয়, ইতিহাসের নৃশংস জীবন্ত ঘটনা। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আহবানে সাড়া দিয়ে বাঙালি জাতি মুক্তিযুদ্ধ করে স্বাধীনতা অর্জন করেছিল ।তিনি  বলেন,আজকের এই স্বল্প পরিসরে বঙ্গবন্ধু ও মুক্তিযুদ্ধ কর্ণার এক সময় ব্যাপকতা লাভ করবে এবং এখান থেকে নতুন প্রজন্ম বঙ্গবন্ধু ও মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস জানার সুফল পাবে।                                         

জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ মাসুদ আলম ছিদ্দিক বলেন, মুজিববর্ষ উপলক্ষে জেলা প্রশাসক কার্যালয়ে বঙ্গবন্ধু কর্ণারটি স্থাপন করা হয়েছে। এখান থেকে নতুন প্রজন্ম বঙ্গবন্ধু ও মুক্তিযুদ্ধ সম্পর্কে আরো বেশি জানতে পারবে। তিনি বলেন, শুধু এই কর্ণার নয়, মুজিব বর্ষ উপলক্ষে আমরা পর্যায় ক্রমে ভোলা জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে ৩১ ধরনের অনুষ্ঠান মালার আয়োজন করব।                             

এ সময় বরিশাল বিভাগীয় কর্মচারী কল্যাণ বোর্ডের পরিচালক মোঃ সোহরাব হোসেন, ভোলা গণপূর্ত বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী কাজী শরীফ উদ্দিন আহমেদ, অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট সুজিত হাওলাদার, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) মামুন আল ফারুক, ভোলা সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ মিজানুর রহমান, সহকারী কমিশনার (ভূমি) মোঃ আবি আব্দুল্লাহ সহ প্রশাসনে অন্যান্য কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। এর আগে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে ফুলেল শ্রদ্ধা জানান বিভাগীয় কমিশনার। এদিকে বঙ্গবন্ধু কর্ণারে স্থান পেয়েছে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৭ই মার্চের ভাষণ থেকে শুরু করে তার কর্মময় জীবন চিত্র এবং বাঙালি জাতির মুক্তিযুদ্ধের আন্দোলন, সংগ্রম ও গৌরবের ইতিহাস। পাশাপাশি রয়েছে বঙ্গবন্ধু ও মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস সম্বলিত ৪২৩ টি বই। প্রতিদিন সকাল ৯টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত সকলের জন্য কর্ণারটি উন্মুক্ত থাকবে।

 9,116 total views,  1 views today