অস্ট্রিয়ায় করোনার দ্বিতীয় লকডাউনে বেকারত্বের সংখ্যা আরও বৃদ্ধি !

বর্তমানে অস্ট্রিয়ায় চাকরিবিহীন অবস্থায় আছেন ৪ লক্ষ ৬৬ হাজার ৩৫০ জন  

 অন লাইন ডেস্ক থেকে,কবির আহমেদঃ আজ মঙ্গলবার ৮ ডিসেম্বর অস্ট্রিয়ার শ্রম মন্ত্রণালয়ের এক প্রেস ব্রিফিংয়ে বলা হয়েছে অস্ট্রিয়ায় বর্তমানে ৪,৬৬,৩৫০ জন চাকরিবিহীন – অর্থাৎ তারা বেকার হিসাবে নিবন্ধিত হয়েছেন বা এটিএস প্রশিক্ষণে রয়েছেন। সাপ্তাহিক হিসাবে বেকারত্ব বেড়েছে ৯,১৫৩ জন। করোনার সঙ্কটের জন্য বেকার হয়েছেন ৯৯,০০০ হাজার মানুষ।                                 

অস্ট্রিয়ার শ্রম মন্ত্রণালয়ের অধীনস্থ সংস্থা “শ্রম বাজার পরিষেবা” AMS জানিয়েছেন বর্তমানে তাদের কাছে ৪,০১,২৪৯ জন মানুষ চাকরিবিহীন হিসাবে নিবন্ধিত আছেন। AMS এর বিভিন্ন কর্মশালায় প্রশিক্ষণে আছেন ৬৫,১০১ জন।                                           

অস্ট্রিয়ায় করোনায় সবচেয়ে বেশী ক্ষতিগ্রস্ত ও বিরূপ প্রভাব পড়েছে গ্যাস্ট্রোনমি এবং হোটেল ব্যবসায়। অস্ট্রিয়ায় বর্তমানে ৩ লক্ষ ২৩ হাজার ৮৫৩ জন মানুষ স্বল্প সময়ের কাজ করছেন। শুধুমাত্র এই সপ্তাহে স্বল্প সময়ের কাজের জন্য নিবন্ধিত হয়েছেন আরও নতুন ৪৭,৪৮৩ জন। শ্রম মন্ত্রণালয়ের মতে, এই বৃদ্ধি মূলত দ্বিতীয় লকডাউনের বর্ধিত করার কারনে হয়েছে।

অস্ট্রিয়ান সরকার শ্রম মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমে করোনার স্বল্প সময়ের কাজের জন্য এই পর্যন্ত মোট প্রায় ৫.৩ বিলিয়ন ইউরো প্রদান করেছেন অস্ট্রিয়ার বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানকে। সরকারের স্বল্প সময়ের (Kurz arbeit /short duty) প্রতিশ্রুতিবদ্ধ বাজেট ঌ.১ বিলিয়ন ইউরো থেকে। বেকারত্বের ক্রমাগত বৃদ্ধির ফলে অস্ট্রিয়ার বিভিন্ন বিরোধীদলের নেতৃবৃন্দ সরকার ও শ্রমমন্ত্রী ক্রিস্টিনে অ্যাসবাখেরের সমালোচনা করে বলেন,বেকারত্ব দূরীকরণে ব্যাপারে তারা খুবই নিষ্ক্রিয়।                                              

মঙ্গলবার ৮ ডিসেম্বর এক টেলিভিশন চ্যানেলের সাথে প্রধান বিরোধীদল SPÖ এর সামাজিক মুখপাত্র জোসেফ মুচিটস বলেন, “সরকার কেবল নজর রাখছে।” কার্যকর অর্থনৈতিক এবং কর্মসংস্থান প্রোগ্রামের ব্যাপারে কোন ভূমিকা রাখতে ব্যর্থ হয়েছে। তিনি আরও বলেন,বর্তমান সরকার কর্মসংস্থানের দীর্ঘ মেয়াদী মেগা প্রোগ্রামের পরিবর্তে ছোট ছোট প্রোগ্রাম নিয়েই ব্যস্ত আছে। তারা বহুল প্রচারিত শ্রম ফাউন্ডেশন এখনও কার্যকর করতে পারেনি। মুচিটস পুনরায় প্রশিক্ষণ কর্মসূচি বৃদ্ধির প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন। দীর্ঘমেয়াদী বেকারদের জন্য বিশেষ প্রোগ্রাম এবং বয়স্ক বেকারদের জন্য কর্মসূচী। তিনি বেকারত্বের সুবিধা ৭০ শতাংশে উন্নীত করার আহ্বানও পুনরাবৃত্তি করেছেন। তিনি বেকারদের বেকার না রেখে তাদেরকে এক গঠনমূলক পরিকল্পনার মাধ্যমে কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা করার জন্য সরকারের নিকট  বিশেষ অনুরোধ করেছেন।

বিরোধী দল FPÖ এর সামাজিক মুখপাত্র ডাগমার বেলাকোভিটস ÖVP -নেতৃত্বাধীন ফেডারেল সরকারকে “শো রাজনীতি” অর্থাৎ কথার বেলায় বড় বড় কিন্ত কাজের বেলায় ঢন ঢন এর অভিযোগ তুলেছেন। তিনি বলেন ক্ষমতায় এসে এইতো খুব বেশি দিন আগে না ÖVP চ্যান্সেলর কুর্জ এবং তার সরকারি দল ঘোষণা করেছিল যে অস্ট্রিয়ায় শিগগিরই অর্থনৈতিক উত্থান হবে ! কিন্তু বিধিবাম আমরা শুধুমাত্র কথার ফুলঝড়িই শুনে গেলাম, কাজের কাজ কিছুই আজ অবধি দেখতে পেলাম না। নতুন রাজনৈতিক দল NEOS এর সামাজিক মুখপাত্র জেরাল্ড লোকার বলেন,শ্রমমন্ত্রী আসচব্যাকার “সম্পূর্ণ পরিকল্পনাবিহীন এবং দৃষ্টিহীন” হয়ে পড়েছে। দেশের প্রায় ৫০০,০০০ বেকারকে চাকরিতে ফিরিয়ে দেওয়ার পরিবর্তে সরকার বিলাসবহুল পেনশন বাড়িয়ে তোলার পরিকল্পনা করছে। এসব না করে বেকারদের জন্য আরও উন্নত প্রশিক্ষণের ব্যবস্থার পরিকল্পনার আহবান জানান তিনি।                  

এদিকে আজ অস্ট্রিয়ায় নতুন করে করোনায় সংক্রমিত সনাক্ত হয়েছেন ২,৩৭৭ জন এবং মৃত্যুবরণ করেছেন ১০৫ জন। রাজধানী ভিয়েনায় আজ নতুন করে করোনায় সংক্রমণ সনাক্ত হয়েছে ৩৬২ জন। অন্যান্য রাজ্যের মধ্যে Oberösterreich রাজ্যে ৪৫৬ জন, Steiermark রাজ্যে ৩৬১ জন, NÖ রাজ্যে ৩০৪ জন, Tirol রাজ্যে ২৬৩ জন,Kärnten রাজ্যে ২৫৯ জন, Salzburg রাজ্যে ২৪১ জন,Vorarlberg রাজ্যে ৭৫ জন এবং Burgenland রাজ্যে ৫৬ জন।                   

অস্ট্রিয়ায় এই পর্যন্ত করোনার মোট আক্রান্তের সংখ্যা ৩,০৮,০৭০ জন এবং মৃত্যুবরণ করেছেন ৪,০০২ জন। করোনার থেকে এই পর্যন্ত আরোগ্য লাভ করেছেন ২,৬২,৩১৪ জন। বর্তমানে করোনার সক্রিয় রোগীর সংখ্যা ৪১,৭৫৪ জন। এর মধ্যে ক্রিটিক্যাল অবস্থার মধ্যে আইসিইউতে আছেন ৬০৯ জন এবং হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন ৩,৯১৭ জন। বাকীরা নিজ নিজ বাড়িতে আইসোলেশনে আছেন।

 10,235 total views,  1 views today