স্বাস্থ্যবিধি না মানলে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক

স্বাস্থ্যমন্ত্রী আজ বৃহস্পতিবার রাজধানীর ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে জেলা প্রশাসক সম্মেলনের তৃতীয় দিনে অধিবেশন শেষে এ তথ্য জানান।

 কবির আহমেদ, বাংলাদেশ ডেস্কঃ আজ বৃহস্পতিবার (২০ জানুয়ারি) রাজধানীর ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে জেলা প্রশাসক সম্মেলনের তৃতীয় দিনের অধিবেশন শেষে স্বাস্থ্যমন্ত্রী সাংবাদিকদের এক সংক্ষিপ্ত বক্তব্যে বলেন,যারা স্বাস্থ্যবিধি মানবে না তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য জেলা প্রশাসকদের (ডিসি) নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী জানান,কিছুদিন ধরে দেশে করোনা পরিস্থিতি খারাপ হতে শুরু করায় সরকারের পক্ষ থেকে স্বাস্থ্যবিধি মানাসহ ১১ দফা নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। তবে মানুষের মধ্যে স্বাস্থ্যবিধি মানার ক্ষেত্রে অনীহা দেখা দিয়েছে। দেশে করোনার প্রকোপ শুরুর পর থেকে লম্বা সময় লকডাউন দেয়া হয়। সে সময় স্বাস্থ্যবিধি না মানায় মোবাইল কোর্টের মাধ্যমে জেল জরিমানাও করা হয়েছে৷

এই অবস্থার মধ্যে বুধবার সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ায় তা নিয়ন্ত্রণে নতুন করে পাঁচ পরামর্শ দিয়েছে কোভিড-১৯ সংক্রান্ত জাতীয় কারিগরি পরামর্শক কমিটি। তারা বলেছে, করোনা পজিটিভ রােগী লক্ষণ প্রকাশের ১০ দিন পর্যন্ত আইসােলেশনে থাকবেন। তবে রোগীর সংস্পর্শে এসেছেন এমন ব্যক্তির উপসর্গ না থাকলে আইসোলেশনের প্রয়োজন নেই।

এদিকে আজ আজ বৃহস্পতিবার (২০ জানুয়ারি) স্বাস্থ্য অধিপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (প্রশাসন) অধ্যাপক ডা. আহমেদুল কবির স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে করোনায় নতুন করে সংক্রামিত শনাক্ত হয়েছেন ১০,৮৮৮ জন এবং মৃত্যুবরণ করেছেন ৪ জন।আজ মৃত্যুবরণকারী ৪ জনের মধ্যে একজন পুরুষ ও তিনজন নারী।এদের সবাই করোনায় আক্রান্ত হয়ে সরকারি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছেন।

দেশে এ নিয়ে ভাইরাসটিতে মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়ালো ২৮ হাজার ১৮০ জন। আর দেশে মোট শনাক্ত রোগীর সংখ্যা দাঁড়াল ১৬ লাখ ৫৩ হাজার ১৮২ জন।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়েছে, গত ২৪ ঘণ্টায় রাজধানীসহ সারাদেশে ৮৫৭টি পরীক্ষাগারে ৪০ হাজার ৮৯৮টি নমুনা সংগ্রহ করা হয়। এর মধ্যে পরীক্ষা করা হয় ৪১ হাজার ২৯২টি নমুনা। এ নিয়ে দেশে মোট নমুনা পরীক্ষার সংখ্যা দাঁড়াল এক কোটি ২০ লাখ সাত হাজার ৫৮১টি।

বর্তমানে দেশে করোনা সংক্রমণের শতকরা ২৫ শতাংশই ওমিক্রোনে আক্রান্ত বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্য অধিদপ্তর। আজ সারাদেশে বিভিন্ন হাসপাতাল ও বাড়িতে সুস্থ হওয়া রোগীর সংখ্যা ৫৭৭ জন। এ নিয়ে দেশে সুস্থ হয়েছেন মোট ১৫ লাখ ৫৪ হাজার ৮৪৫ জন রোগী।

গত ২৪ ঘণ্টায় শনাক্তের হার ২৬ দশমিক ৩৭ শতাংশ। এ পর্যন্ত নমুনা পরীক্ষা বিবেচনায় শনাক্তের হার ১৩ দশমিক ৭৭ ভাগ এবং শনাক্ত বিবেচনায় সুস্থতার হার ৯৪ দশমিক শূন্য পাঁচ ভাগ। আর শনাক্ত বিবেচনায় মৃত্যুর হার এক দশমিক ৭০ ভাগ।

প্রসঙ্গত, ২০২০ সালের ৮ মার্চ দেশে প্রথম করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার খবর জানায় স্বাস্থ্য অধিদপ্তর। আর প্রথম করোনা রোগীর মৃত্যু হয় ওই বছরের ১৮ মার্চ। দেশে এ পর্যন্ত করোনায় ২৮ হাজার ১৮০ জন মানুষ মারা গেছেন। তাদের মধ্যে পুরুষ ১৮ হাজার ১৭ জন (৬৩ দশমিক ৯৪ ভাগ) ও নারী ১০ হাজার ১৬৩ জন (৩৬ দশমিক শূন্য ছয় ভাগ)।

 14,645 total views,  1 views today