পিতার চাউল চুরির ঘটনা ধামাচাপা দিতে গুণধর পুত্রের সাংবাদিক নির্যাতন

  লালমোহন থেকে নিজস্ব প্রতিনিধি,নুরুল আমিনঃ  ভোলার বোরহান উদ্দিন উপজেলার বড় মানিকা ইউনিয়নে জেলেদের জন্য বরাদ্দকৃত চাউল আত্মসাৎ করেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও ইউপি চেয়ারম্যান জসিম উদ্দিন হায়দার। উক্ত চাউল চুরির ঘটনায় গণমাধ্যম কর্মীরা সংবাদ পরিবেশন করেন। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে চেয়ারম্যানের গুণধর পুত্র সন্ত্রাসী নাবিল হায়দার সাংবাদিক সাগর চৌধুরীর ওপর বর্বর হামলা ও নির্যাতন চালায়।                                           

৩১ মার্চ সকাল ৯টার দিকে উপজেলার রাজমনি সিনেমা হলের সামনে এ হামলার ঘটনা ঘটে। জানা যায়, সাংবাদিক সাগর চৌধুরী পেশাগত দায়িত্ব পালনের জন্য সিনেমা হলের সামনে গেলে সেখানে পূর্ব থেকে ওঁৎ পেতে থাকা সন্ত্রাসী নাবিল সাংবাদিককে মোবাইল ছিনতাইয়ের মিথ্যা অপবাদ দিয়ে তার ওপর অতর্কিত হামলা করে। তাকে আটক করে তার ওপর মধ্যযুগীয় বর্বর নির্যাতন করে।                                                                                                                                                                                                                                                                        এতে সাংবাদিক সাগর চৌধুরী গুরুতর আহত হন। এ ঘটনাটি বীরত্বের সহিত নির্যাতিত সাংবাদিক তার নিজের ফেইজবুক আইডিতে লাইভ দেন। গরীবদের জন্য সরকারের বরাদ্দকৃত চাউল চুরির ঘটনা প্রকাশ করা ও বোরহান উদ্দিন উপজেলা নির্বাহী অফিসারকে জানানোর কারণে মিথ্যা অপবাদ দিয়ে সাংবাদিককে নির্মম নির্যাতন করা হয়। এ ঘটনায় মামলা দিতে গেলে বোরহান উদ্দিন থানা পুলিশ মামলা নেয়নি। নির্যাতিত সাংবাদিক সাগর চৌধুরী থানায় এলে তাকে চিকিৎসার জন্য বোরহান উদ্দিন হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে বলে জানান ওসি এনামুল হোসেন।

এ ঘটনায় দেশব্যাপী সাংবাদিকদের গভীর উদ্বেগ, উৎকণ্ঠা, ক্ষোভ ও হতাশা সৃষ্টি হয়। তারা সন্ত্রাসী নাবিলকে অবিলম্বে গ্রেফতার করে দ্রুত বিচার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি করেন।

 

এদিকে ইউরো সমাচার পত্রিকা পরিবারের পক্ষ থেকে ভোলার বোরহান উদ্দিনে সাংবাদিক নির্যাতনের ঘটনায় তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানানো হয় এবং অবিলম্বে উক্ত সন্ত্রাসীকে গ্রেপ্তার করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানান ।

 3,688 total views,  1 views today