বাংলদেশে নতুন ক‌রে ৩ জন করোনা রোগীর মৃত্যু

ঢাকা থে‌কে মোঃ সো‌য়েব মেজবাহউ‌দ্দিনঃ আজ  বুধবার বিকাল ২:৩৫ টায় সরকারের রোগতত্ত্ব,  রোগনিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠানের (আইইডিসিআর) পরিচালক অধ্যাপক মীরজাদী সেব্রিনা ফ্লোরা এক অনলাইন সংবাদ সম্মেলনে বলেন,ঠিক এক মাস পূর্বে মার্চের ৮ তারিখে দেশে প্রথমবারের মত তিনজনের শরীরে করোনার সংক্রমণ ধরা পড়ার পর একদিনে আক্রান্তের এটাই সর্বোচ্চ সংখ্যা।

সেব্রিনা ফ্লোরা জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় আইইডিসিআরে ৫৬৩টি ও দেশের অন্যান্য ল্যাবরেটরিতে ৪২৫টি মিলিয়ে মোট ৯৮৮টি নমুনা সংগ্রহ করা হয়। তন্মধ্যে ৯৮১টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়। এতে ৫৪ জনের শরীরে করোনা শনাক্ত হয়েছে। তাদের মধ্যে পুরুষ ৩৩ জন এবং নারী ২১ জন। ফলে দেশে মোট আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়াল ২১৮ জনে।

একই সময়ে ভাইরাসটিতে আক্রান্ত হয়ে তিন জনের মৃত্যু হয়েছে। ফলে এ রোগে মোট মৃতের সংখ্যা দাঁড়াল ২০ জনে। নতুন করে কেউ সুস্থ হননি। ফলে সুস্থ রোগীর সংখ্যা ৩৩ জনই ।

আইইডিসিআর এর পরিচালক ফ্লোরা আরও জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় যারা করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন তাদের মধ্যে ঢাকার ৩৯ জন। আর বাকি ১৫ জন ঢাকার বাহিরের।

নতুন আক্রান্তদের মধ্যে ১১ থেকে ২০ বছর বয়সী ৫ জন, ২১ থেকে ৩০ বছর বয়সী ১৫ জন, ৩১ থেকে ৪০ বছর বছর বয়সী ১০ জন, ৪১ থেকে ৫০ বছর বয়সী ৭ জন, ৫১ থেকে ৬০ বছর বয়সী ৭ জন এবং ষাটোর্ধ্ব রয়েছেন ১০ জন। নতুন আক্রান্ত ৫৪ জনের মধ্যে সর্বোচ্চসংখ্যক রাজধানী ঢাকায় ৩৯ জন শনাক্ত হয়েছেন।

 ২০১৯ সালের শেষ দিন চীনের উহান শহরে প্রথম করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়। এরপর ভাইরাসটি উহানে ব্যাপক আকারে ছড়িয়ে পড়ে। সেখান থেকে ভাইরাসটি ছড়িয়ে পড়ে সারা বিশ্বে। ইতোমধ্যে দুই শতাধিক দেশ ও অঞ্চলে ছড়িয়ে পড়েছে করোনা।

প্রাণঘাতী এই ভাইরাসটির কারণে মৃত্যুপুরী হয়ে উঠেছে ইতালি, স্পেন, ব্রিটেন, ফ্রান্স, জার্মানি এবং অষ্ট্রিয়া সহ  ইউরোপের বেশ কয়েকটি দেশ। মহামারী এই ভাইরাসটি নিয়ন্ত্রণে আনতে হিমশিম খাচ্ছে বিশ্বের সবচেয়ে ক্ষমতাধর দেশ যুক্তরাষ্ট্রও।  

দুই শতাধিক দেশে ছড়িয়ে পড়া প্রাণঘাতী ভাইরাসটি বাংলাদেশে প্রথম শনাক্ত হয় গত মাসের ৮ তারিখ। সেদিন তিনজনের শরীরে করোনা শনাক্ত হলেও আজ সেই সংখ্যাটা গিয়ে দাঁড়িয়েছে ২১৮ জনে। এছাড়া করোনায় আক্রান্ত হয়ে মোট মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ২০ জনে। 

 3,576 total views,  1 views today