টাঙ্গাইল জেলার নাগরপুর পুরান ঢাকা থেকে ফেরত যুবকের দেহে করোনা সনাক্ত

 অন লাইন ডেস্ক থেকে,কবির আহমেদঃ নাগরপুরে পুরান ঢাকা থেকে জ্বর ঠান্ডার উপসর্গ নিয়ে বাড়িতে আসা এক যুবকের দেহে করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ ধরা পড়েছে। এর আগে নমুনা পরীক্ষা করলে তার দেহে করোনা ভাইরাস পজিটিভ ধরা পড়ে। এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত করোনা আক্রান্ত যুবককে তার বাড়িতে আলাদা করে এক ঘরে রেখেছে উপজেলা প্রশাসন।                             

পরে সিভিল সার্জনের সঙ্গে যোগাযোগ করে তার চিকিৎসার ব্যবস্থা করা হবে বলে জানিয়েছেন উপজেলা স্বাস্থ্য ও পঃপঃ কর্মকর্তা ডা. মো. রোকনুজ্জামান খান। এ সময় ওই বাড়িসহ আশ-পাশের ৩০ বাড়ি লকডাউন করা হয়েছে। ঝুঁকিতে থাকা তার সাথে আসা পার্শ্ববর্তী পানান গ্রামের দুই যুবকের বাড়িও লকডাউন করা হয়েছে।

 

এছাড়া ওই বাড়ির আশপাশের মানুষ যাদের সাথে ওই যুবক মেলামেশা করেছে বাছাই করে তাদের নমুনা সংগ্রহ করা হচ্ছে বলে জানান উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের শীর্ষ ওই কর্মকর্তা । জানা গেছে, করোনা আক্রান্ত মো. লিটন মিয়া (২২) নাগরপুর উপজেলার ভাদ্রা ইউনিয়নের খাগুরিয়া গ্রামের আমজাদ হোসেনের ছেলে। সে ঢাকার কোতোয়ালী থানার বাদামতলীতে ফলের ব্যবসা করতো।

জ্বর ঠান্ডার উপসর্গ নিয়ে ৮ এপ্রিল সে বাড়ি আসে। তার সাথে পার্শ্ববর্তী পানান গ্রামের দুই যুবকও বাড়িতে আসে। এরপর সে তার বাড়ির লোকের মাধ্যমে স্থানীয় ফার্মাসিস্টের কাছে ওষুধ আনতে গেলে সেই ফার্মাসিস্ট উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে খবর দেয়। খবর পেয়ে উপজেলা পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. মো. রোকনুজ্জামান খান ১০ এপ্রিল স্বাস্থ্য কর্মীর মাধ্যমে ওই যুবকের নমুনা সংগ্রহ করে সিভিল সার্জন অফিসে পাঠায়। রবিবার ১২ এপ্রিল নমুনা পরীক্ষার পর করোনা ভাইরাস পজিটিভ আসে।

 4,648 total views,  1 views today