অষ্ট্রিয়া,ভিয়ানার মুস্তারি ক্যাশ এন্ড ক্যারি এবং সবুজ বাংলার সহয়তায় নড়াইলে ত্রান বিতরন

নড়াইলে থেকে নিজস্ব প্রতিনিধিঃ গত ১৩  এপ্রিল বৃহস্পতিবার দুপুর ১২ টার দিকে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে নড়াইল   উপজেলা পরিষদে অবস্থিত উপজেলা কৃষি কর্মকর্তার কার্যালয়ে এসব ত্রাণসামগ্রী বিতরণ করা হয়। ত্রাণসামগ্রীর ভেতর রয়েছে চাল, ডাল, তেল, আলু ও পেয়াজ।                       

স্বপ্নের খোঁজে ফাউন্ডেশনের পক্ষে কৃষকদের মাঝে ত্রাণ বিতরণ করেন উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মোঃ জাহিদুল ইসলাম, স্বপ্নের খোঁজে ফাউন্ডেশনের প্রতিষ্ঠাতা মির্জা গালিব সতেজ ও সংগঠনটির অন্যান্য সদস্যরা।

ত্রাণ বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মোঃ জাহিদুল ইসলাম বলেন, “আগামীতে যাতে দেশে কোনো খাদ্য সঙ্কট সৃষ্টি না হয় এজন্য আমরা সরকারের পক্ষ থেকে কৃষকদের মাঝে বিনামূল্যে কৃষি বীজ ও সার বিতরণ করছি। আর, সবার উচিত বাড়ির আঙিনায় অল্প পরিমাণ হলেও সবজি উৎপাদন করা। তাহলে আশাকরি করোনা ভাইরাসের প্রভাবে দেশে কোনো খাদ্য সঙ্কট সৃষ্টি হবে না।                     

সংগঠনটির প্রতিষ্ঠাতা মির্জা গালিব সতেজ তার বক্তব্যে বলেন, দেশে করোনা ভাইরাস শনাক্ত হবার পর থেকেই আমরা বিভিন্ন জন সচেতনতামূলক কার্যক্রম করছি এবং কর্মহীন হয়ে পড়া মানুষদের মাঝে খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করে আসছি। আমাদের এ সকল কর্মকান্ডে সার্বিক সহযোগিতা করছে রূপগঞ্জ বাজারে অবস্থিত মুস্তারী কমপ্লেক্স কর্তৃপক্ষ, মুস্তারী ক্যাশ এন্ড ক্যারি ও সবুজ বাংলা, ভিয়েনা। তাদের আর্থিক সহযোগিতার ফলেই আমরা এ সকল মানবিক কর্মকান্ড পরিচালনা করতে পারছি। এজন্য উক্ত প্রতিষ্ঠানগুলোর প্রতি কৃতজ্ঞতা জানাচ্ছি।

এ সময় আরও বক্তব্য রাখেন দৈনিক যায়যায়দিন পত্রিকার নড়াইল জেলা প্রতিনিধি আল-আমিন। অনুষ্ঠানে মির্জা গালিব সতেজের নেতৃত্বে উপস্থিত ছিলেন সংগঠনের সদস্য এস.এম শাহ পরান, সৈয়দ মিনহাজুজ্জামান পরাগ, আহমেদ শাকিল, মোঃ শাফায়াত হোসাইন প্রমুখ।

 উল্লেখ্য যে, স্বপ্নের খোঁজে ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে গত কয়েকদিন ধরে রাতের বেলা মধ্যবিত্তদের বাড়ি বাড়ি গিয়ে ত্রাণসামগ্রী পৌঁছে দেয়া হচ্ছে। যেসব মধ্যবিত্তরা লোক লজ্জায় কোথাও ত্রাণের জন্য যেতে পারছেন না, এমন শতাধিক মধ্যবিত্ত পরিবারের বাড়িতে গিয়ে রাতের বেলা ত্রাণসামগ্রী পৌঁছে দিচ্ছেন সংগঠনটির সদস্যরা।

 5,433 total views,  1 views today