ভোলার বহুমাত্রিক প্রতিভা আবিদুল আলম, সেবা ও সৃজনে যাবে বহুদুর

 রিপন শান, ব্যুরো চীফ বরিশালঃ দ্বীপজেলা ভোলার সাংস্কৃতিক ও রাজনৈতিক অঙ্গনের খুবই জনপ্রিয় একটি নাম ‘আবিদ’ । ছাত্ররাজনীতি থেকে স্বেচ্ছাসেবী জনরাজনীতি ভোলার সর্বত্রই আবিদের পদচারণা সতত মানবকল্যাণমুখী । দেশের ছাত্ররাজনীতির একটি গুরুত্বপূর্ণ সময়ে দ্বীপজেলার রাজনীতিবিদদের প্রবল আস্হা ও বিশ্বাস নিয়ে ভোলা জেলা ছাত্রলীগের সভাপতির দায়িত্ব পালন করেছেন আবিদুল আলম আবিদ । বর্তমানে জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের যুগ্ম আহবায়কের দায়িত্ব পালন করছেন । দলের জন্য পরিশ্রম, কর্মীদের বিপদে ছুটে যাওয়া, দরাজ বাগ্মিতা, বহুমাত্রিক সাংস্কৃতিক যোগ্যতার কল্যাণে ভোলা সদর আসনের বিশ্ববরেণ্য সাংসদ, ঊনসত্তরের গণঅভ্যুত্থানের মহানায়ক আলহাজ্ব তোফায়েল আহমেদের খুব কাছের মানুষ হতে পেরেছেন আবিদুল আলম । ভোলা ২ আসনের সংসদ সদস্য আলী আজম মুকুল ও ভোলা ৩ আসনের সংসদ সদস্য আলহাজ্ব নুরুন্নবী চৌধুরী শাওনও আবিদকে খুব স্নেহ করেন ।

বহুমাত্রিক প্রতিভাবান আবিদুল আলমের কণ্ঠে কবিতা ও গান দুটোই ভোলার দর্শকদের কাছে সমানতালে জনপ্রিয় ।  মঞ্চে অভিনয়কালে   নিজেকে অভিনীত চরিত্রের সাথে যারপরনাই তুলে ধরেন শিল্পী আবিদ । নিজের হাতেগড়া ব্যান্ডদলের গানে ভোলার বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের উৎসব মাতিয়ে রাখেন আবিদুল আলম । আজম খান, আইয়ুব বাচ্চু, জেমসের গান জনপ্রিয় সব রকমের গানে সিদ্ধহস্ত ভোলার শিল্পী আবিদ । শিল্পী সমাজের বিপদে আপদে একপায়ে খাড়া আবিদ স্বকীয় মেধা ও দক্ষতার সাথে ভোলা সদর উপজেলা শিল্পকলা একাডেমির সাধারণ সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন । বাংলাদেশ গ্রাম থিয়েটার অধিভুক্ত দ্বীপজেলার শীর্ষস্থানীয় নাটকদল ভোলা থিয়েটারের সাধারণ সম্পাদক হিসেবে বর্তমানে সুনামের সাথে কাজ করছেন ছাত্রনেতা  থেকে স্বেচ্ছাসেবক নেতা আবিদুল আলম ।

আবিদুল আলম আবিদ  হিসাব বিজ্ঞানে অনার্স ও মাষ্টার্স করেছেন ভোলা সরকারি কলেজ থেকে । ছোটবেলা থেকেই একাধারে আবৃত্তিশিল্পী ও মঞ্চনাট্যকর্মী । নাটকের গান গাইতে গাইতে এখন পুরোদস্তুর  সঙ্গীতশিল্পী  হিসাবেও বেশ পরিচিতি লাভ করেছেন সারা ভোলায়। তার বাবা প্রয়াত জেলা সমবায় অফিসার এ ইউ এম শাকীর মাহে আলম ছিলেন ভোলার নন্দিত সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব। বলতে গেলে পারিবারিকভাবেই বাবার রক্তে থেকে পাওয়া সাংস্কৃতিকসত্তা তার শরীরে বহমান । তাই সমাজসচেতন সাংস্কৃতিক কর্মী হিসাবে অবিরাম  কাজ করে যাচ্ছেন।  স্কুলজীবনে শিক্ষা সপ্তাহ,  মৌসুমী প্রতিযোগিতাসহ উপজেলা, জেলা ও বিভাগীয় পর্যায়ে একাধিকবার পুরস্কৃত হয়েছেন আবিদ। কলেজ জীবনেও আবৃত্তি ও অভিনয় প্রতিযোগিতায় প্রথম স্থান অধিকার করেছেন অনেকবার। 

ভোলার কালিবাড়ী রোডের  ঐতিহ্যবাহী কাজি পরিবারের সন্তান আবিদ , ভোলা জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি এবং বর্তমানে জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের যুগ্ম আহবায়কের মতো প্রভাবশালী দায়িত্বে থাকলেও জেলার সাংস্কৃতিক অঙ্গনে কোনদিন নেতাসুলভ কিংবা নিজেকে বড়ভাবে জাহির করেননি । সাংস্কৃতিক অঙ্গনে কাজ করে যাচ্ছেন দেশ ও দশের প্রতি নিবেদিত একজন কর্মীর মত। মাটি ও মানুষের প্রতি ভালোবাসা এবং বহুমাত্রিক শিল্পপ্রতিভার দীপ্তি ছড়িয়ে জীবনসমুদ্রের বহুদুর এগিয়ে যাবেন শিল্পী আবিদুল আলম- এ বিশ্বাস নদীমাতৃক সকল সঙস্কৃতিকর্মীর ।

 

 6,140 total views,  1 views today