করোনা মহামারীর আরও অবনতি হলে সীমিত সময়ের জন্য ক্লাসে মাস্ক পড়তে হতে পারে- শিক্ষামন্ত্রী হাইঞ্জ ফ্যাসম্যান

 অন লাইন ডেস্ক থেকে,কবির আহমেদঃ অস্ট্রিয়ায় করোনার দ্বিতীয় প্রাদুর্ভাবের সময় পুরোদমে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দিলেও স্কুলে শিক্ষামন্ত্রণালয়ের পুরোপুরিই নজরদারি রয়েছে বলে জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী হাইঞ্জ ফ্যাসম্যান। তিনি আরও জানান, করোনা পরিস্থিতির আরও অবনতি হলে সীমিত সময়ের জন্য সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে শ্রেণীকক্ষেও মাস্ক পড়ার নিয়ম আসতে পারে।

আজ অস্ট্রিয়ায় নতুন করে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ৫২০ জন যা এপ্রিল মাসের পর এই প্রথম সর্বোচ্চ সংক্রমণ। এর মধ্যে রাজধানী ভিয়েনাতেই সংক্রমিত হয়েছেন ৩৪০ জন মানুষ এবং ১ জন করোনায় মৃত্যুবরণ করেছেন। বর্তমানে ভিয়েনায় সক্রিয় রোগীর সংখ্যা ২,০৭১ জন।

অস্ট্রিয়ান সংবাদ সংস্থা এপিএ জানান,আজ ভিয়েনায় অবস্থিত জাতিসংঘ দফতরের (UNO) আন্তর্জাতিক আণবিক শক্তি কমিশনের ৭ জন কর্মকর্তা করোনায় পজিটিভ সনাক্ত হয়েছেন। তারা নিজ বাসায় আইসোলেশনে আছেন। এখানে উল্লেখ্য যে, যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্কে জাতিসংঘের সদর দফতরের পর সুইজারল্যান্ডের জেনেভা এবং অস্ট্রিয়ার রাজধানী ভিয়েনায় দুইটি শাখা দফতরও রহিয়াছে। বিশেষত ভিয়েনায় আন্তর্জাতিক আণবিক শক্তি কমিশন ও সুইজারল্যান্ডে জাতিসংঘের মানবাধিকার বিষয়ক কমিশন ও ইউনেস্কোর প্রধান কার্যালয় অবস্থিত।

অস্ট্রিয়ায় এই পর্যন্ত মোট করোনার আক্রান্তের সংখ্যা ৩০,০৮১ জন এবং মৃত্যুবরণ করেছেন ৭৪৭ জন। করোনার থেকে আরোগ্য লাভ করেছেন ২৫,৬২৯ জন। বর্তমানে করোনার সক্রিয় রোগীর সংখ্যা ৩,৭০৫ জন। এর মধ্যে ক্রিটিক্যাল অবস্থায় আছেন ২৮ জন এবং হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন ১৭০ জন। বাকীরা নিজ নিজ বাসায় আইসোলেশনে আছেন।

 7,101 total views,  1 views today