লালমোহন মিডিয়া ক্লাব ২০২০পুরষ্কার পাচ্ছেন বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ নূর মোহাম্মদ মাষ্টার

 লালমোহন থেকে তপতী সরকারঃ লালমোহন মিডিয়া ক্লাব পুরস্কার পাচ্ছেন ২০২০ ভোলা লালমোহনের বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ নূর মোহম্মদ মাষ্টার । চলতি সেপ্টেন্বর মাসের ২৮ তারিখে ভোলা জেলার ৯ গুনি ব্যক্তিকে মিডিয়া ক্লাব পুরস্কার ২০২০ প্রদান করা হবে । এর মধ্যে শিক্ষা বিস্তারে অগ্রণী ভূমিকা থাকায় লালমোহন বালিকা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সাবেক ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক নূর মোহম্মদ মাষ্টারকে মিডিয়া ক্লাব পুরস্কার প্রদান করা হবে ।

এই শিক্ষাবিদ নূর মোহম্মদ মাষ্টার ১৯৬৭ সালে লালমোহন বালক মাধ্যমিক বিদ্যালয় হতে কৃতিত্বের সহিত এস এস সি পাশ করে ১৯৬৯ সালে ভোলা  কলেজ থেকে আই এস সি ও একই কলেজ থেকে ১৯৭১ সালে বি এস সি পাশ করে ১৯৭২ – ১৯৭৪ সাল পর্যন্ত বোরহানউদ্দিন দেউলা রজব আলী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে শিক্ষকতা করেন । ১৯৭৪-১৯৭৮ পর্যন্ত দৌলতখান জয়নগর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে, ১৯৭৮- ১৯৮৫ লালমোহন গজারিয়া মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে, ১৯৮৫-২০১২ লালমোহন বলিকা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে টানা ২৭ বছর সুনামের সহিত একজন আদর্শ শিক্ষক হিসেবে শিক্ষকতা করেন । এর মধ্যে ২০০৪ সাল থেকে ৫ বছর লালমোহন বালিকা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান মিক্ষকের দায়িত্ব পালন করে শিক্ষক অবিভাবক ও শিক্ষার্থীদের আস্থা ও ভালবাসা অর্জন করেন এই গুনী বরেণ্য শিক্ষাবিদ।

১৯৯৯ সালে জাতীয শিক্ষা সপ্তাহ উপলক্ষে লালমোহন উপজেলার শ্রেষ্ঠ শিক্ষক হিসেবে পুরস্কার লাভ করে লালমোহন বালিকা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের মুখ উজ্জল করেন ।একজন দক্ষ সংগঠক হিসেবেও রয়েছে তার বিশাল দক্ষতা ১৯৯৬ সাল থেকে কয়েক বছর লালমোহন মাধ্যমিক শিক্ষক সমিতির সাধারন সম্পাদক পদে দায়িত্ব পালন করে সংগঠনকে সুসংগঠিত করেন ।                                            

১৯৯০ সালে লালমোহন বালক মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির নির্বাচন প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে অবিভাবকদের বিপুল ভোটে তিনি অন্যতম সদস্য নির্বাচিত হয়ে অলোড়ন সৃস্টি করেন । ১৯৯৬ সালে ভোলা জেলা পুস্তক বিক্রেতা সিমিতির সহ-সভাপতি নির্বাচিত হন ।                                               

২০০০ সাল থেকে টানা ১৫ বছর লালমোহন ইসলামিয়া কামিল মাদ্রাসার গভর্নিং বডির সদস্য হিসেবে দায়িত্ব পালন করে অত্র মাদ্রাসার শিক্ষার মান উন্নয়নে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেন। লালমোহন পৌরসভার ৮নং ওয়ার্ড ওয়েস্টার্ন পাড়া শেখের দোকান জামে মসজিদের সভাপতি টানা ১২ বছর সেবামূলক দায়িত্ব পালন করেন ।

পারিবারিক জীবনে তিনি ৩ পুত্র সন্তান ও ২ কন্যা সন্তানের জনক । বড় সন্তান জুলফিকার আহমেদ লালমোহন মহিলা কলেজের ইংরেজী বিভাগের প্রভাষক । দ্বিতীয় সন্তান মাহমুদ হাসান লিটন উপজেলার ঐতিহ্যবাহী বিদ্যাপীঠ দেবীরচর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক এবং দীপকণ্ঠ নিউজের সম্পাদক এবং প্রকাশক, তৃতীয সন্তান আবদুল্লাহ  আল মামুন উপজেলার নাজিরপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক । এই বরেণ্য শিক্ষাবিদ সারা জীবন শিক্ষকতা পেশায় যেমন নিজেকে নিয়োজিত রেখেছেন তেমনি ভাবে সন্তানদেরকেও এই মহান পেশায় রেখেছেন ।

চাকুরী জীবন থেকে প্রায় দশ বছর আগে তিনি অবসর নিলেও মানুষ গড়ার কারিগড়ি বিদ্যা থেকে এখনও অবসর নেননি এই বরেণ্য শিক্ষাবিদ । তিনি লালমোহন ওয়েস্টার্ন পাড়ায় নিজের প্রতিষ্ঠিত প্রাইভেট স্কুলে কোমলমতি ছাত্রছাত্রীদের হাতে কলমে এখনও পাঠদান করাচ্ছেন । আমরা এই শিক্ষাবিদের দীর্ঘায়ু কামনা করি । 

এখানে উল্লেখ্য যে,লালমোহন মিডিয়া ক্লাবের  প্রতিষ্ঠাতা ও সভাপতি কবি রিপন শান, সাধারণ সম্পাদক জাহিদুল ইসলাম দুলাল ও সাংগঠনিক সম্পাদক মিজান হাওলাদার স্বাক্ষরিত ঘোষণাপত্র অনুযায়ী বিষয়ভিত্তিক নির্বাচিত ৯ গুণীজন হলেন- জনবান্ধব ভোলা জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ মাসুদ আলম ছিদ্দিক (সুশাসনে), অস্ট্রিয়া বাংলাদেশ প্রেসক্লাব সভাপতি ও দৈনিক ইউরো সমাচার সম্পাদক মুক্তিযোদ্ধা সাংবাদিক মাহবুবুর রহমান (বিশ্ব সাংবাদিকতায়), চরফ্যাসন সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ কায়সার আহমেদ দুলাল (সাহিত্যে), অতিরিক্ত পুলিশ সুপার লালমোহন সার্কেল মোঃ রাসেলুর রহমান (সামাজিক ন্যায়বিচার), অস্ট্রিয়া আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সাইফুল ইসলাম কবির (প্রবাসে সমাজকল্যাণ), লালমোহন পৌরসভা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক মুক্তিযোদ্ধার সন্তান আলহাজ্ব সফিকুল ইসলাম বাদল (জনসেবায়), লালমোহন বালিকা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সাবেক প্রধান শিক্ষক নুর মোহাম্মদ মাস্টার (শিক্ষায়), বিবিসির ব্রডকাস্ট জার্নালিস্ট রাকিব হাসনাত সুমন (সাংবাদিকতায়), এবং ওয়াটার এন্ড স্যানিটেশন ফর আরবান পুয়র ‘ডব্লুইএসইউপি’ সংস্হার ফিন্যান্স ম্যানেজার মাকসুদ তালুকদার (এনজিও সমাজকর্ম)।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *