আজ থেকে ভিয়েনার দানিউব নদীর তীরে তিনদিন ব্যাপী ঐতিহ্যবাহী Donauinselfest শুরু হয়েছে

 কবির আহমেদ, ইউরোপ ডেস্কঃ ৩৮ তম এই Donauinselfest এ বছর শুধুমাত্র তারাই প্রবেশ করতে পারবে যাদের পূর্বে টিকেট ক্রয় করা থাকবে এবং অবশ্যই ৪৮ ঘন্টার কম সময়ের পিসিআর পরীক্ষার নেগেটিভ ফলাফল থাকবে।

অস্ট্রিয়ান সংবাদ সংস্থা এপিএ জানিয়েছে, করোনার নতুন সংক্রমণের ডামাঢোলের মধ্যেই আজ থেকে তিনদিন ব্যাপী ভিয়েনার দানিউব(Donau) নদীর তীরে শুরু হয়েছে ঐতিহ্যবাহী “Donauinselfest”।তবে এই বছর এই উৎসব অন্যান্য বছরের তুলনায় কিছুটা ভিন্নতা রয়েছে। এই বছর শুধুমাত্র করোনার ৪৮ ঘন্টার কম সময়ের করোনার পিসিআর পরীক্ষার নেগেটিভ সার্টিফিকেট এবং পূর্বে এই উৎসবে প্রবেশের টিকেট অনলাইনে ক্রয় করা থাকতে হবে। এই উৎসবে করোনার গ্রীণ পাস থাকলেও বাধ্যতামূলক পিসিআর টেস্টের নেগেটিভ সার্টিফিকেটও লাগবে বলে জানিয়েছে কর্তৃপক্ষ।

উল্লেখ্য যে, করোনা মহামারীর জন্য গত বছর এই উৎসব বাতিল করা হয়েছিল। সাধারণত মে মাসের শেষ সপ্তাহে এই উৎসব হয়ে থাকে।এই বছরও মে মাসে করোনার বিধিনিষেধ থাকায় নির্ধারিত সময়ে অনুষ্ঠিত হতে পারে নি।এই উৎসবে অস্ট্রিয়ার বিভিন্ন রেডিও-টেলিভিশন সম্প্রচার কেন্দ্র তাদের স্টেজ থেকেও বিভিন্ন দেশী-বিদেশী শিল্পীর সঙ্গীত পরিবেশনা সরাসরি সম্প্রচার করে থাকে।

 

রাজ্য সরকারের উদ্ধৃতি দিয়ে এপিএ জানিয়েছে এই বছর আজ থেকে আগামী রবিবার পর্যন্ত মাত্র ৪২,০০০ হাজার দর্শনার্থীকে এই মেলায় বা উৎসবে প্রবেশ করতে দেয়া হবে। এই উৎসবে সাধারণত বিভিন্ন সঙ্গীত,সামাজিক ও সাংস্কৃতিক গোষ্ঠীর বিভিন্ন স্টেজ থাকে। দেশের বিশিষ্ট শিল্পীরা সঙ্গীত পরিবেশন করে থাকেন। তাছাড়াও খাবার-দাবারেরও বিভিন্ন অস্থায়ী স্টল খোলা হয়। আরও থাকে শিশুদের বিভিন্ন রকমের খেলাধুলার সামগ্রীর দোকান। অনেকটাই আমাদের দেশের বৈশাখী মেলার মতোই।

 এপিএ আরও জানিয়েছে, তিনদিনের এই উৎসবে সাধারণত প্রায় ৩০ লাখ দর্শনার্থী এসে থাকেন। করোনার জন্য  এই বছর কঠোর বিধিনিষেধের ভিতর শুধুমাত্র ৪২,০০০ হাজার দর্শনার্থীদের প্রবেশ করতে দেয়া হবে। ভিয়েনার এই Donauinselfest এ অনেক আন্তর্জাতিক সঙ্গীত তারকা ও ব্যক্তিত্বও অংশগ্রহণ করে থাকেন। তবে এ বছর করোনার জন্য তেমন কোন আন্তর্জাতিক ব্যাক্তি বর্গের নাম এখনো শোনা যায় নি।

এদিকে আজ অস্ট্রিয়ায় নতুন করে করোনায় সংক্রমিত শনাক্ত হয়েছেন ২,৩৬৪ জন এবং মৃত্যুবরণ করেছেন ১২ জন। রাজধানী ভিয়েনায় আজ নতুন করে করোনায় সংক্রমিত শনাক্ত হয়েছেন ৬৬৬ জন।

অন্যান্য রাজ্যের মধ্যে OÖ রাজ্যে ৫৯৮ জন, NÖ রাজ্যে ৪০৯ জন, Steiermark রাজ্যে ২৩৩ জন, Salzburg রাজ্যে ১৩৭ জন, Kärnten রাজ্যে ১১৫ জন, Tirol রাজ্যে ৯০ জন, Vorarlberg রাজ্যে ৭৭ জন এবং Burgenland রাজ্যে ৩৯ জন নতুন করে করোনায় সংক্রমিত শনাক্ত হয়েছেন।

অস্ট্রিয়ার স্বাস্থ্যমন্ত্রণালয়ের তথ্য অনুযায়ী আজ সমগ্র দেশে করোনার প্রতিষেধক টিকা দেয়া হয়েছে মাত্র ১৪,৫৭২ ডোজ এবং এই পর্যন্ত মোট করোনার প্রতিষেধক টিকার পরিমাণ ১,০৬,৮৫,২৮৬ ডোজ।

অস্ট্রিয়ায় এই পর্যন্ত করোনার প্রতিষেধক টিকার সম্পূর্ণ ডোজ গ্রহণ করেছেন মোট ৫৩ লাখ ৩০ হাজার ৪৭২ জন,যা দেশের মোট জনসংখ্যার শতকরা ৫৯,৭ শতাংশ।

অস্ট্রিয়ায় এই পর্যন্ত করোনায় মোট আক্রান্তের সংখ্যা ৭,২০,৪৫৫ জন এবং মৃত্যুবরণ করেছেন ১০,৮৮২ জন।করোনার থেকে এই পর্যন্ত আরোগ্য লাভ করেছেন মোট ৬,৮৬,৩২৪ জন। বর্তমানে করোনার সক্রিয় রোগীর সংখ্যা ৩৪,২৪৯ জন। এর মধ্যে ক্রিটিক্যাল অবস্থার মধ্যে আইসিইউতে আছেন ২০২ জন এবং হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন ৮৪৩ জন। বাকীরা নিজ নিজ বাড়িতে আইসোলেশনে আছেন।

 14,618 total views,  1 views today