আসুন করোনা আক্রান্তদের পাশে দাঁড়াই

 ঢাকা থেকে মোঃ জিল্লুর রহমানঃ আজ সারা বিশ্ব এক অদৃশ্য মহামারীর সঙ্গে যুদ্ধ করছে। আমরাও এর থেকে বিচ্ছিন্ন না। আমরা দেখতে পাই পৃথিবীর অনেক দেশের স্বাস্থ্য কর্মীরা প্রবল উৎসাহ ও ঝুঁকি নিয়ে যুদ্ধের সৈন্যদের ন্যায় লড়াই করে যাচ্ছেন। শুধু স্বাস্থ্যকর্মীরা নয়, করোনা যুদ্ধের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট আরও অনেকে। সৈনিক, পুলিশ, সমাজকর্মী, সেচ্ছাসেবী ও আরও অনেকে। তাদেরও স্বাস্থ্য সুরক্ষার উপাদানের যথেষ্ট অভাব থাকার পরও তারা থেমে যাননি, তারা দমে যাননি, তারা আরও দেশপ্রেমের উদ্দীপনা নিয়ে স্বাস্থ্য সেবা দিয়ে যাচ্ছেন। অনেকে বীরের মতো মৃত্যুকে আলিঙ্গন করেছেন, কিন্তু তারপরও তাদের মতো অন্যরা দমে যাননি। তাদের কাজ থেমে যায়নি। তাদের দেশপ্রেমের উদ্দীপনা দেখে যারা পূর্বে অবসরে চলে গেছেন, তারাও স্বাস্থ্যসেবার মহান ব্রত নিয়ে আবার কাজে ফিরে এসেছেন। তারা বলছেন, তাদের চাকরি জীবনে তারা এ ধরণের কোন যুদ্ধের সুযোগ পাননি, এখন সময় এসেছে এবং এ সুযোগ হাতছাড়া করতে চাই না। যুদ্ধের মাঠে থাকার এখনই উপযুক্ত সময়। দেশ আমাদের অনেক কিছু দিয়েছে এবং বিনিময়ে দেশপ্রেমের উদ্দীপনা ও প্রতিদান দেওয়ার এখনই উপযুক্ত সময়। কাপুরুষ নয়, বীরের মতো যুদ্ধ করে মরতে চাই।

কিন্তু আমাদের দেশের কিছু ভীরু (সবাই নয়, যারা এ কঠিন সময় কাজ করছেন তারা আমার ভাষায় জাতীয় বীর ও সাহসী যোদ্ধা) স্বাস্থ্য কর্মী করোনার ভয়ে কাপুরুষের মতো গর্তে ঢুকে আছে। তাদের অনেকে শুধু হাসপাতালে নয়, ব্যক্তিগত চেম্বারেও রোগী দেখা বন্ধ রেখেছেন। কারণে অকারণে রোগীদের হয়রানি করছেন। তারা সময় অসময়ে মানুষকে জবাই করে এবং সুযোগের সদ্ব্যবহার করে মানুষের পকেট কাটে কিন্তু এখন যুদ্ধের মাঠে অনুপস্থিত। গায়ে গুলি লাগতে পারে এ ভয়ে যে সৈন্য যুদ্ধের মাঠে অনুপস্থিত থাকে, তার মতো কাপুরষ আর কেউ হতে পারে। খেলার মাঠে যে পা টেনে হাটে সে খেলোয়াড় নয়। প্রবল ঝড়ে যে মাঝি শক্তভাবে দাঁড় না ধরতে পারে সে কোন মাঝি নয়। যৌবন যার যুদ্ধে যাবার শ্রেষ্ঠ সময় তার এবং এটাই তার উপযুক্ত সময়।

যারা এখনও কাপুরুষের মতো গর্তে ঢুকে আছেন, স্বাস্থ্যসেবা বা করোনা যুদ্ধের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট যে যে পেশারই হোন না কেন, এখনই বের হয়ে কাজে ঝাঁপিয়ে পড়ুন। সরকারের নির্দেশ সবার জন্য শিরোধার্য। যৌবন যার, যুদ্ধে যাবার শ্রেষ্ঠ সময় তার, কবি হেলাল হাফিজের দেশপ্রেমে সাড়া দেই। দেশ আমাদের অনেক কিছু দিয়েছে, তার প্রতিদান দেয়ার এখনই উপযুক্ত সময়। সবাই হেফাজতে থাকুন, নিরাপদে থাকুন, সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখুন।

এ দেশটা আপনার আমার সবার। সবার স্বতঃস্ফূর্ত সহযোগিতা, শক্তি ও সাহসীই পারে এ অদৃশ্য শক্তিকে পরাজয় করতে। আসুন আমরা সকলে দেশকে ভালোবাসি, অন্যকে উৎসাহিত করি এবং করোনো আক্রান্তদের পাশে দাঁড়াই। আল্লাহ আমাদের সহায় হোন।

মো. জিল্লুর রহমান
সতিশ সরকার রোড,
গেণ্ডারিয়া, ঢাকা

 4,171 total views,  1 views today