অস্ট্রিয়ায় করোনার সংক্রমণ বৃদ্ধির সাথে সাথে হাসপাতালেও রোগীর সংখ্যা বাড়ছে !

আজ করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ৩,৬১৪ জন এবং মৃত্যুবরণ করেছেন ১১ জন

 অন লাইন ডেস্ক থেকে,কবির আহমেদঃ আজ অস্ট্রিয়ায় করোনার সংক্রমণের নাটকীয় বৃদ্ধিতে দেশের সর্বত্রই থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে। সংক্রমণ বৃদ্ধির সাথে সাথেই অস্ট্রিয়ার বিভিন্ন হাসপাতালেও রোগীর সংখ্যা বাড়ছে। অস্ট্রিয়ায় মোট আইসিইউ এর পরিমান ২,০০০ হাজার। সে হিসাবে আজ পর্যন্ত অস্ট্রিয়ার নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রের প্রায় ৯% এর পূর্ণ হয়েছে। শুক্রবার অস্ট্রিয়ার স্বাস্থ্যমন্ত্রী রুডল্ফ আনস্কোবার আশঙ্কা প্রকাশ করে বলেন,সংক্রমণের এই ধারা অব্যাহত থাকলে নভেম্বর মাসের প্রথম সপ্তাহে আমাদের আইসিইউ এর ১৫% পূর্ণ হয়ে যেতে পারে।

বর্তমানে বিভিন্ন দেশে করোনার সংক্রমণ বৃদ্ধির পর সে দেশের আইসিইউতে রোগীর সংকুলানের উপর ভিত্তি করে লকডাউনের সিদ্ধান্ত নিতে দেখা যাচ্ছে। যেমন গতকাল পর্যন্ত ইতালির আইসিইউতে রোগীর ভর্তির পরিমাণ ছিল প্রায় ১,০০০ মানুষ। প্রশাসন থেকে বলা হয়েছে ইতালিতে আইসিইউতে রোগীর ভর্তির সংখ্যা যদি ২,৩০০ তে পৌঁছে যায়,তাহলে ইতালির সরকার পূর্বের মতোই দেশ ব্যাপী লকডাউন দিতে বাধ্য হবেন।

আজ ভিয়েনায় বিভিন্ন ওষুধের দোকানে মানুষকে লম্বা লাইন ধরে দীর্ঘ সময় অপেক্ষা করে ওষুধ নিতে দেখা গেছে। অস্ট্রিয়ান সংবাদ সংস্থা এপিএ একজন ফার্মেসী কর্মকর্তার উদ্ধৃতি জানান যে,অধিকাংশ মানুষকে জ্বর, সর্দি,কাশি ও ব্যাথার ওষুধ নিতে দেখা গেছে।

আজ অস্ট্রিয়ার রাজধানী ভিয়েনায় করোনায় সংক্রমণ সনাক্ত হয়েছেন ৯৭০ জন। আজ অন্যান্য রাজ্যের সংক্রমণের মধ্যে Niederösterreich রাজ্যে সংক্রমণ সনাক্ত হয়েছেন ৭১৫ জন, Oberösterreich রাজ্যে সংক্রমণ সনাক্ত হয়েছেন ৬৬২ জন,Tirol রাজ্যে সংক্রমণ সনাক্ত হয়েছে ৪০০ জন,Steiermark রাজ্যে ৩৩৯ জন,Salzburg রাজ্যে ২৩৫ জন,Vorarlberg রাজ্যে ১০৮ জন, Burgenland রাজ্যে ১০১ জন এবং Kärnten রাজ্যে সংক্রমণ সনাক্ত হয়েছেন ৮৪ জন।

অস্ট্রিয়ায় এই পর্যন্ত করোনায় মোট আক্রান্তের সংখ্যা ৭৮,০২৯ জন এবং মৃত্যুবরণ করেছেন ৯৬৫ জন। করোনার থেকে আরোগ্য লাভ করেছেন ৫৬,৭৯১ জন। বর্তমানে করোনার সক্রিয় রোগীর সংখ্যা ২০,২৭৩ জন। এর মধ্যে ক্রিটিক্যাল অবস্থায় আইসিইউতে আছেন ১৭৫ জন এবং হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন ১,১৭৭ জন। অবশিষ্ট আক্রান্তদের নিজ বাসায় আইসোলেশনে থাকতে বলা হয়েছে এবং বলা হয়েছে যদি শারীরিক অবস্থার কোন অবনতি হয় তাহলে যথাযথ কর্তৃপক্ষকে ফোন করতে যাতে দ্রুত হাসপাতালে স্থানান্তরিত করা যায়।

 10,215 total views,  1 views today