অস্ট্রিয়ায় করোনার পরিস্থিতি ক্রমশ অবনতির দিকে !

আজ নতুন আক্রান্ত ২,৮৩৫ জন এবং মৃত্যুবরণ ১৩ জনের ! সরকারকে দ্বিতীয় লকডাউনের প্রস্তুতি নেওয়ার আহবান বিরোধীদল SPÖ প্রধান পামেলার !

 অন লাইন ডেস্ক থেকে,কবির আহমেদঃ ভিয়েনায় মঙ্গলবার অস্ট্রিয়ার প্রধান বিরোধীদল সোস্যালিস্ট পার্টির (SPÖ) চেয়ারপার্সন ড.পামেলা রেন্ডি-ভাগনার এক সাংবাদিক সম্মেলনে বলেন,দেশের করোনার সংক্রমণের বিস্তার আতঙ্কজনক। সরকারকে এখন থেকেই লকডাউনের প্রস্তুতি নেওয়ার জন্য পরামর্শ দিয়েছেন তিনি। তিনি করোনার সংক্রমণের বর্তমান এই “গুরুতর পরিস্থিতির” জন্য সরকারকে দোষারোপ করেছেন।                                         

তিনি গ্রীষ্মকালে সংক্রমণ রোগ বিশেষজ্ঞদের শরতের সংক্রমণ বিস্তারের সতর্কতা থাকা সত্ত্বেও যথাযথ প্রস্তুতি নিতে ব্যর্থ হওয়ায় বর্তমান ফিরোজা-সবুজ জোট সরকারের তীব্র সমালোচনা করেন। তিনি আরও বলেন বিশেষজ্ঞদের পরিসংখ্যান অনুসারে আগামী কয়েক সপ্তাহ ধরে সংক্রমণের আরও অবনতির সতর্কতার হুঁশিয়ারি দেওয়া হয়েছে। কিন্ত সরকারের ঠিলে-ঠালা বিধিনিষেধ তেমন কোন কাজে আসছে না। এই অবস্থা এইভাবেই চলতে থাকলে সরকারকে কোনও পরিকল্পনা ছাড়াই দ্বিতীয় লকডাউনে যেতে হবে। রেন্ডি-ভাগনার বলেন,চ্যান্সেলর সুনির্দিষ্ট পরিসংখ্যান চেয়েছিলেন অর্থনৈতিক ও সামাজিক পরিণতি যতটা সম্ভব কম রাখা যায় সে সম্পর্কে একটি পরিকল্পনা তৈরি করার জন্য জোট সরকারের সামাজিক অংশীদার, ব্যবসায়ী এবং স্থানীয় কর্তৃপক্ষের সাথে বসা উচিত। তিনি চ্যান্সেলর সেবাস্তিয়ান কুর্জ (ÖVP) কে কখন তালাবন্ধির লক্ষ্যে ছিলেন সে সম্পর্কে সুনির্দিষ্ট পরিসংখ্যান দিতে বলেছিলেন।                           

সরকার প্রধান সেবাস্তিয়ান কুর্জ জাতীয় দিবসের বক্তব্যে অবশ্য সম্ভাব্য দ্বিতীয় লকডাউনকে অস্বীকার করেননি এবং “আলটিমা পরিমাপ” সম্পর্কে কথা বলেছেন যা হাসপাতালের পরিস্থিতির উপর নির্ভর করে। অস্ট্রিয়ায় এই পর্যন্ত মোট করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ৮৬,১০২ জন এবং মৃত্যুবরণ করেছেন ১,০০৫ জন। করোনার থেকে আরোগ্য লাভ করেছেন ৬০,৩০৮ জন। বর্তমানে করোনার সক্রিয় রোগীর সংখ্যা ২৪,৭৮৯ জন। এর মধ্যে ক্রিটিক্যাল অবস্থায় আইসিইউতে আছেন ২০৩ জন এবং হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন ১,৪০০ মানুষ। বাকীরা নিজ বাড়িতে আইসোলেশনে আছেন।

 10,185 total views,  1 views today