অস্ট্রিয়ায় আগামী সপ্তাহ থেকে লকডাউন ! রাত ৮ টা থেকে ভোর ৬ টা পর্যন্ত কারফিউ !

আজ অস্ট্রিয়ায় করোনায় আক্রান্ত ৫,৬২৭ জন এবং মৃত্যুবরণ করেছেন ২৬ জন                

 অন লাইন ডেস্ক থেকে,কবির আহমেদঃ অস্ট্রিয়ায় আগামীকাল ঘোষিত হতে যাচ্ছে নতুন লকডাউন। সরকারের বিশ্বস্ত সূত্রের উদ্ধৃতি দিয়ে সংবাদ মাধ্যমে আগামী সোমবার বা বুধবার থেকেই এই লকডাউন কার্যকর হবে বলে ইঙ্গিত দেওয়া হয়েছে। বিশ্বস্ত সূত্র জানান,রাত ৮ টা থেকে ভোর ৬ টা পর্যন্ত সমগ্র অস্ট্রিয়ায় কারফিউ (Sperrstunde) এর ব্যাপারে সরকারের নীতি নির্ধারকরা সকলেই একমত হয়েছেন।                                               

কারফিউ চলাকালীন সময়ে নিম্নলিখিত কারনে ঘরের বাহিরে বের হওয়ার অনুমতি দেওয়া হয়েছে যেমন, ১. জীবন, অঙ্গ এবং সম্পত্তি জন্য তাৎক্ষণিক বিপদ আশঙ্কা দেখা দিলে, ২. সহায়তার প্রয়োজনে মানুষের সেবা,যত্ন এবং সহায়তার পাশাপাশি পারিবারিক অধিকারের অনুশীলন ও কর্তব্যের জন্য, ৩. দৈনন্দিন জীবনের প্রাথমিক প্রয়োজনের জন্য ঘর থেকে বের হওয়া, ৪. পেশাদার কাজের উদ্দেশ্যে, যেমন নিরাপত্তা কর্মী স্বাস্থ্য বিষয়ক বিভাগের লোকজন। ৫. শারীরিক ও মানসিক স্বাচ্ছন্দ্যের জন্য বাইরে একাকী বের হওয়া যাবে। বিশ্বস্ত সূত্রে জানা গেছে এই লকডাউনে রাত ৮ টা থেকে ভোর ৬ টা পর্যন্ত গণপরিবহণ বন্ধ থাকারও সিদ্ধান্ত নেয়া হতে পারে।                                                                                                                             

সুপারমার্কেট বা নিত্যপ্রয়োজনীয় মাছ,মাংস শাক – সবজির বাজারে সামাজিক দূরত্বের ব্যাপারে নিম্নলিখিত নিয়মাবলী মেনে চলার নির্দেশনা দেয়া হতে পারে, ১. একই পরিবারে বাস করেন না এমন লোকদের প্রতি কমপক্ষে এক মিটার দূরত্ব বজায় রাখতে হবে। ২. গ্রাহকদের অবশ্যই মুখ এবং নাকের সুরক্ষার মাস্ক পরিধান করতে হবে। ৩. সুপারমার্কেট ও বাজারে কর্মরত কর্মচারীদেরও অবশ্যই নিশ্চিত করতে হবে যে তিনি এবং তার গ্রাহকের সংস্পর্শে আসার সময় মুখ এবং নাকের সুরক্ষা নিশ্চিত করতে হবে। ৪. ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠানে সব সময়ই দুরত্ব বজায় রাখার বিষয়টি নিশ্চিত করতে হবে। কোন প্রতিষ্ঠানে যদি ১০ মিটারের ছোট হয়,তাহলে সে প্রতিষ্ঠানে একবার একজন করে প্রবেশ করতে পারবে। ৫. কাঠামোগতভাবে সংযুক্ত ব্যবসায় প্রাঙ্গনে (উদাঃ- শপিং সেন্টার, মার্কেট হল), ৪ এর শর্তাবলীর সাথে প্রযোজ্য যে ব্যবসায়ের চত্বরের গ্রাহক অঞ্চল এবং ক্যাশে এক মিটার দূরত্বের ব্যবস্থা বজায় রাখতে হবে। দপ্তর বা অফিসে সর্বনিম্ন এক মিটার দূরত্ব নিশ্চিত এবং কাজের ক্ষেত্রেও এই দূরত্ব নিশ্চিত করে কাজ সম্পন্ন করতে হবে। “পেশাদার ক্রিয়াকলাপের অবস্থানটিতে, লোকদের মধ্যে কমপক্ষে এক মিটার দূরত্ব বজায় রাখতে হবে, যদি না উপযুক্ত প্রতিরক্ষামূলক ব্যবস্থা গ্রহণের মাধ্যমে সংক্রমণের ঝুঁকি হ্রাস করা না যায়। সকল প্রকার রেস্টুরেন্ট ও খাবারের দোকান আগামী ৪ সপ্তাহের জন্য বন্ধ থাকবে। অনলাইন সার্ভিস খোলা থাকবে এবং নিম্নে বর্ণিত প্রতিষ্ঠানের সমূহের ক্যান্টিনগুলিও খোলা থাকবে যেমন,হাসপাতাল, স্বাস্থ্য রিসোর্ট, বৃদ্ধাশ্রম ও নার্সিংহোম, স্কুল এবং কিন্ডারগার্টেন। তবে, ক্যাটারিং প্রতিষ্ঠানগুলি পুরোপুরি বন্ধ করতে হবে না। আবাসিক সব হোটেল বন্ধ করতে হবে। এটি এও স্পষ্ট যে অ্যাডভেন্ট এবং ক্রিসমাসের বাজারগুলি কেবলমাত্র লকডাউনের পরে পরিস্থিতির উপর বিবেচনা করে খোলার অনুমতি দেয়া হতে পারে। লকডাউনে বিনোদনমূলক ইভেন্টগুলি নিষিদ্ধ করা হয়েছে,যেমন শারীরিক এবং মানসিক অনুশীলন এবং সংশোধনের জন্য পরিকল্পনামূলক সভা এবং ক্রিয়াকলাপ প্রযোজ্য এর মধ্যে যে কোনও ক্ষেত্রে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান, ক্রীড়া অনুষ্ঠান, বিবাহ অনুষ্ঠান, ফিল্মের স্ক্রিনিং, পর্যটক উদ্দেশ্যে কোচ বা ভ্রমণের নৌকাগুলি, প্রদর্শনী, কংগ্রেস, বিশেষজ্ঞ এবং পাবলিক মেলার অন্তর্ভুক্ত রয়েছে এবং বিশেষ বাজার ইত্যাদি। তবে যাদুঘর এবং চিড়িয়াখানা খোলা থাকবে তবে সব সময় সামাজিক দূরত্ব বজায় নিশ্চিত করতে হবে।                                                                                 

আজ অস্ট্রিয়ায় করোনায় আক্রান্ত রাজ্য সমূহের মধ্যে OÖ রাজ্যে সর্বাধিক ১,৩০২ জন সনাক্ত হয়েছেন। রাজধানী ভিয়েনায় আজ ৯০৬ জন করোনায় আক্রান্ত সনাক্ত হয়েছেন। এই পর্যন্ত মোট আক্রান্তের সংখ্যা ৯৯,৫৭৬ জন এবং মৃত্যুবরণ করেছেন ১,০৮২ জন। করোনার থেকে আরোগ্য লাভ করেছেন ৬৪,৯৮৭ জন। এর মধ্যে ক্রিটিক্যাল অবস্থায় আইসিইউতে আছেন ২৬৩ জন এবং হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন ১,৮০৩ জন। অবশিষ্টরা নিজ বাসায় আইসোলেশনে আছেন।

 11,092 total views,  1 views today