তুরস্ক ও গ্রীসে ৭ মাত্রার শক্তিশালী ভূমিকম্পে প্রাথমিক খবরে নিহত ১৪ এবং আহত কয়েক শতাধিক !

আন্তর্জাতিক ডেস্ক থেকে,কবির আহমেদঃ শুক্রবার তুরস্কের স্থানীয় সময় বিকালে ইজমির প্রদেশের নিকটবর্তী এজিয়ান সাগরে একটি রিক্টার স্কেলের ৭ মাত্রার ভূমিকম্প আঘাত হানে। এর ফলে তুরস্কের ইজমিরে ভবন ধসে ১২ জন এবং গ্রীসের দ্বীপ সামোসে ২ জন সহ মোট ১৪ জন নিহত এবং কয়েক শতাধিক মানুষ আহত হয়েছে বলে জানিয়েছেন সংবাদ সংস্থা CNN। শক্তিশালী এই ভূমিকম্পের পর পরই সুনামির সতর্কতা জারি করা হয়। কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, তুরস্কের পশ্চিমে উপকূলীয় অঞ্চলে ১২ জন নিহত হয়েছেন, আর গ্রীক দ্বীপ সামোসে দুটি প্রাচীরের দেয়াল ভেঙে যাওয়ার পরে দুই কিশোর মারা গেছেন। তুরস্কের ইজমির শহরে কমপক্ষে ২০ টি ভবন ধসে পড়েছে বলে ইজমিরের মেয়র টুনক সায়ার সিএনএন তুর্কীকে জানিয়েছেন। উদ্ধারকর্মীরা বিল্ডিংয়ের নিচে চূর্ণিত যানবাহন এবং ভবনের ধ্বংসস্তূপের নীচে বেঁচে থাকার মানুষের সন্ধানে অনুসন্ধান করার জন্য খুঁড়াখুঁড়ি করছেন।                                       

 তুরস্কে কমপক্ষে ৫২২ জন আহত হয়েছেন বলে জানিয়েছেন তুরস্কের পরিবেশ ও নগরায়ণমন্ত্রী মুরাত কুরাম। দেশটির দুর্যোগ সংস্থা জানিয়েছে, উদ্ধারকারী দলগুলি উদ্ধারকারী এবং হেলিকপ্টার ব্যবহার করে বেঁচে যাওয়া ব্যক্তির সন্ধানের পর কয়েক ডজনকে উদ্ধার করে হাসপাতালে স্থানান্তরিত করেছেন। কুরাম জানান,প্রথম ভূমিকম্পের পর আরও কয়েক ডজন আফটার শক রেকর্ড করা হয়েছে।                                                                                               

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ভূতাত্ত্বিক জরিপ (USGS) জানিয়েছেন ভূমিকম্পের মাত্রা রিক্টার স্কেলে ৭ মাত্রা রেকর্ড হয়েছে এবং ভূমিকম্পের উৎপত্তিস্থল গ্রীসের সামোস দ্বীপের কার্লোভেশন শহর থেকে ১৪ কিলোমিটার দূরে সমুদ্রের ১০ কিলোমিটার অভ্যন্তরের সনাক্ত করা হয়েছে। এর ফলে সমুদ্রে একটি মাঝারি ধরনের সুনামিরও সৃষ্টি হয়েছিল তবে সুনামিতে কি ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে তার প্রাথমিক খবর এখনও পাওয়া যায় নি। তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রেসেপ তাইয়েপ এরদোগান এবং গ্রীসের প্রধানমন্ত্রী কিরিয়াকোস মিতসোটাকিস ভূমিকম্পের ক্ষয়ক্ষতিতে গভীর দুঃখ প্রকাশ করেছেন।

 10,257 total views,  1 views today