ইসরাইলে দ্বিতীয় লকডাউন শেষ হওয়ার এক মাস পর করোনার তৃতীয় প্রাদুর্ভাব শুরু !

 আন্তর্জাতিক ডেস্ক থেকে,কবির আহমেদঃ ইসরাইল সরকার করোনার দ্বিতীয় প্রাদুর্ভাবে সংক্রমণ বৃদ্ধির ফলে গত সেপ্টেম্বর মাসে দেশে দ্বিতীয় লকডাউন ঘোষণা করেছিল  অক্টোবরের মাঝামাঝির পর তা পুনরায় শিথিল করা হয়। মঙ্গলবার ২৪ নভেম্বর ইসরাইলের স্বাস্থ্য মন্ত্রনালয়ের ঘোষণা অনুযায়ী, ২৪ ঘন্টার মধ্যে পুনরায় আবার নতুন করে ৯৪৩ জন করোনায় সংক্রমণ সনাক্ত হয়েছেন।                                             

 গত ২২ অক্টোবর সর্বশেষ ১,০৩২ জন করোনায় সংক্রমিত সনাক্ত হয়েছিল। এখন পুনরায় ৫২,০০০ হাজারের পরীক্ষার মধ্যে ১.৮% করোনায় সংক্রমিত সনাক্ত হয়েছেন যা আগের দিনগুলির পর্যায়ে রয়েছে। ৯০ লক্ষাধিক মানুষের এই দেশে কঠোর সরকারী ব্যবস্থা গ্রহণের কারণে গত বসন্তে করোনার প্রথম মহামারীর সময় দেশটিতে সংক্রমণের বিস্তার কিছুটা হালকা ছিল। তবে বিতর্কিত স্বাচ্ছন্দ্যের পরে গ্রীষ্মে পুনরায় সব খুলে দিলে করোনার সংক্রমণের বিস্তার পুনরায় ব্যাপক হারে বেড়ে যায়। ফলে ইসরাইল সরকার পুনরায় বাধ্য হয়ে সেপ্টেম্বরের মাঝামাঝি সময়ে দেশে দ্বিতীয় লকডাউন ঘোষণা করে।

অক্টোবরের মাঝামাঝি থেকে সরকার ধীরে ধীরে লকডাউন শিথিলকরণ শুরু করে, যেমন স্কুলগুলি আবার চালু করা। শিক্ষামন্ত্রী জোয়াভ গ্যালান্টের জানান, দেশটির মন্ত্রিসভা সোমবার সন্ধ্যায় সিদ্ধান্ত নিয়েছে যে ইসরাইলে লকডাউনের পর ডিসেম্বর থেকে সমস্ত শিক্ষা- প্রতিষ্ঠান খুলে দেয়া হবে এবং শিক্ষক ও শিক্ষার্থীদের করোনার পরীক্ষার সংখ্যাও বাড়াতে নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। ইসরাইলে এই পর্যন্ত করোনায় মোট আক্রান্তের সংখ্যা ৩,৩০,৪৯৫ জন এবং মৃত্যুবরণ করেছেন ২,৮১৮ জন। করোনার থেকে আরোগ্য লাভ করেছেন ৩,১৮,৭৭৩ জন।    

এদিকে আজ অস্ট্রিয়ায় করোনায় নতুন করে সংক্রমণ সনাক্ত হয়েছেন ৪,৩৭৭ জন এবং মৃত্যুবরণ করেছেন ১১৮ জন। রাজধানী ভিয়েনাতে আজ করোনায় সংক্রমিত সনাক্ত হয়েছেন ৫০৫ জন। অন্যান্য রাজ্যের মধ্যে OÖ রাজ্যে ১ ২৬৫ জন,Tirol রাজ্যে ৬৩৩ জন, Salzburg রাজ্যে ৫৬৬ জন,NÖ রাজ্যে ৫৪৩ জন, Stmk রাজ্যে ৪৪৭ জন, Ktn.রাজ্যে ২৬১ জন, Burgenland রাজ্যে ১৭২ জন এবং Vorarlberg রাজ্যে ৮৫ জন নতুন করে সংক্রমিত সনাক্ত হয়েছেন।                     

অস্ট্রিয়ায় এই পর্যন্ত মোট আক্রান্তের সংখ্যা 2,৫৪,৯১০ জন এবং মৃত্যুবরণ করেছেন ২,৫৭৭ জন। করোনা থেকে আরোগ্য লাভ করেছেন ২,৮২,৬২০ জন। বর্তমানে করোনার সক্রিয় রোগীর সংখ্যা ৬৯,৫১৩ জন। এর মধ্যে ক্রিটিক্যাল অবস্থার মধ্যে আইসিইউতে আছেন ৭০৪ জন এবং হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন ৪,৬৮৯ জন। বাকীরা নিজ নিজ বাসায় আইসোলেশনে আছেন।

 10,050 total views,  1 views today