অস্ট্রিয়াতে ডিসেম্বর মাসেই করোনার ভ্যাকসিন বা টিকা দেয়া শুরু করা যেতে পারে – ইইউ প্রেসিডেন্ট

 অন লাইন ডেস্ক থেকে,কবির আহমেদঃশুক্রবার ২৭ নভেম্বর বিকালে অস্ট্রিয়ার সরকার প্রধান চ্যান্সেলর সেবাস্তিয়ান কুর্জের সাথে এক ভিডিও কনফারেন্সে ইউরোপীয় ইউনিয়ন (EU) প্রেসিডেন্ট উরসুলা ভন ডের লেইন এই আশ্বাস দেন।                             

অস্ট্রিয়ার চ্যান্সেলর কুর্জের সাথে একটি ভিডিও কনফারেন্স ইউরোপীয় ইউনিয়নের প্রেসিডেন্ট এই আশা পোষণ করেছেন যে,অস্ট্রিয়া চাইলে ডিসেম্বরে মাসেই করোনার প্রথম টিকা বা ভ্যাকসিন দেয়া শুরু করতে পারে।

ভিডিও কনফারেন্সে ইইউ কমিশনের সভাপতি উরসুলা ফন ডের লেইন ডিসেম্বর মাসে ইইউ রাস্ট্রসমূহে করোনার প্রথম টিকা দেওয়ার জন্য প্রস্তুতি নেওয়ার জন্য রাষ্ট্রগুলির সরকার প্রধানদের সাথে এই বৈঠকে অংশ গ্রহণ করছেন।  

অস্ট্রিয়ার চ্যান্সেলর সেবাস্তিয়ান কুর্জ (ÖVP) এর সাথে এই ভিডিও বৈঠকে তিনি এই আশা প্রকাশ করেছেন যে, ডিসেম্বরে প্রথম টিকাদান শুরু করা হতে পারে। ইইউ যে কোনও ক্ষেত্রে সত্যিকারের প্রয়োজনের চেয়ে আরও বেশি ভ্যাকসিন ডোজ সরবরাহ করতে পারবে বলে সেবাস্তিয়ান কুর্জকে জানান তিনি।      ইউরোপীয় ইউনিয়ন কমিশনের সভাপতি আরও বলেছেন, প্রায় ৪৪৬ মিলিয়ন লোকের জনসংখ্যার সাথে ইইউ কোভিড -১৯ এর বিরুদ্ধে প্রায় ২ বিলিয়ন ভ্যাকসিন ডোজ দেবে। কার্যকর প্রস্তুতির জন্য কিছু প্রস্তুতিতে দু’বার ইনজেকশন দিতে হয়, এর অর্থ হ’ল ৭০০ মিলিয়ন লোককে ইইউ স্টক দিয়ে টিকা দেওয়া যেতে পারে বলে ভন ডের লেইন জানান। উদ্বৃত্ত ভ্যাকসিনের ডোজ প্রতিবেশী সদস্য দেশসমূহে সরবরাহ করা যেতে পারে।                                 

ইউরোপীয় বিশেষজ্ঞদের মতে ইইউ কোভিড -১৯ এর বিরুদ্ধে এখন পর্যন্ত ৬ টি প্রতিশ্রুতিবদ্ধ ভ্যাকসিন প্রতিষ্ঠানের সাথে চুক্তি সম্পাদন করেছে। ত্বরান্বিত অনুমোদনের প্রক্রিয়া সত্ত্বেও,ভ্যাকসিন কঠোরভাবে পরীক্ষা করা হবে এবং শেষ পর্যন্ত – জনসংখ্যার অনুপাতের ভিত্তিতে – একই সাথে এবং একই পরিস্থিতিতে সদস্য ইইউ দেশসমূহে সরবরাহ করা হবে। ভন ডের লেইন বলেন, “অস্ট্রিয়া বর্তমান সংক্রমিত সদস্য দেশগুলির মধ্যে অন্যতম একটি দেশ। তাই অস্ট্রিয়ায় প্রায় দুই শতাংশ ইইউ টিকা সরবরাহ করা হবে। ইইউ কমিশনের প্রধান করোনার সঙ্কটের প্রতি তাঁর দায়বদ্ধতার জন্য সংক্ষেপে চ্যান্সেলর কুর্জকে ধন্যবাদ জানান।             

তিনি করোনার ভ্যাকসিন ইইউ এর প্রক্রিয়াটির দ্রুত এবং সঠিক পদ্ধতির মাধ্যমে অগ্রসরের জন্য সন্তোষ প্রকাশ করেন। এই ভ্যাকসিন প্রয়োগের ব্যাপারে স্বাস্থ্য পেশা এবং ঝুঁকিপূর্ণ গ্রুপের মানুষের অগ্রাধিকার রয়েছে বলে ইইউ প্রেসিডেন্ট ভন ডের লেইন মত প্রকাশ করেন। অস্ট্রিয়ার সরকার প্রধান চ্যান্সেলর সেবাস্তিয়ান কুর্জ অবশ্য তাকে জানান ভ্যাকসিন বা টিকাদানের প্রস্ততিতে কিছুটা সময় লাগবে যেমন ঝুঁকিপূর্ণ গ্রুপের মানুষ ও স্বাস্থ্য বিষয়ক লোকজনের নাম লিপিবদ্ধ করন ইত্যাদি। তাই কুর্জ আশা করছেন অস্ট্রিয়ায় জানুয়ারী মাসের প্রথম সপ্তাহ থেকে অস্ট্রিয়ায় করোনার ভ্যাকসিন দেয়া শুরু করা হবে। পরিশেষে অস্ট্রিয়ার সরকার প্রধান সেবাস্তিয়ান ইইউ প্রেসিডেন্ট উরসুলা ভন ডের লেইনকে এই ভিডিও কনফারেন্সের জন্য ধন্যবাদ জানান।           

আজ অস্ট্রিয়ার স্বাস্থ্যমন্ত্রী রুডল্ফ আনস্কোবার বলেন,এই সপ্তাহে আমাদের হাসপাতালে কিছুটা স্থিতিশীল অবস্থা ফিরে এসেছে। তবে সংক্রমণ বিস্তারের আশঙ্কা এখনও বিরাজমান আছে। তিনি জানান,”এখন আসবে সত্যিকারের গুরুত্বপূর্ণ পর্ব”: তাই তিনি সকলকে জরুরীভাবে সামাজিক যোগাযোগ হ্রাস অব্যাহত রাখার জন্য আবেদন করেছেন। নতুন করোনার সংক্রমণের সংখ্যা এখনও “নাটকীয়ভাবে উচ্চ” এবং লকডাউনের সময় অবশ্যই তা হ্রাস নিশ্চিত হতে হবে।  

আজ অস্ট্রিয়ায় নতুন করে করোনায় সংক্রমণ সনাক্ত হয়েছেন ৪,৯৫৪ জন এবং মৃত্যুবরণ করেছেন ১১৩ জন। রাজধানী ভিয়েনায় আজ নতুন করে করোনায় সংক্রমিত হয়েছেন ৬১৬ জন। অন্যান্য রাজ্যের মধ্যে Oberösterreich রাজ্যে ১,০৭৬ জন, Steiermark রাজ্যে ৭৩৮ জন,Niederösterreich রাজ্যে ৭০৫ জন, Kärnten রাজ্যে ৫৫৩ জন,Tirol রাজ্যে ৪৬১ জন, Salzburg রাজ্যে ৩৯৩ জন,Vorarlberg রাজ্যে ২৭৩ জন এবং Burgenland রাজ্যে ১৩৯ জন নতুন সংক্রমণ সনাক্ত হয়েছেন।

অস্ট্রিয়ায় করোনায় এই পর্যন্ত মোট আক্রান্তের সংখ্যা ২,৭০,৯৯২ জন এবং মৃত্যুবরণ করেছেন ২,৮৮৬ জন। এই পর্যন্ত করোনার থেকে আরোগ্য লাভ করেছেন ২,০৩,২৫১ জন। বর্তমানে করোনার সক্রিয় রোগীর সংখ্যা ৬৪,৮৫৫ জন। এর মধ্যে ক্রিটিক্যাল অবস্থায় আইসিইউতে আছেন ৭০৩ জন এবং হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন ৪,৪০৫ জন। বাকীরা নিজ নিজ বাড়িতে আইসোলেশনে আছেন।

 10,385 total views,  1 views today