লকডাউন নির্দিষ্ট সময়ে তুলে নিলেও অস্ট্রিয়ায় করোনার কঠোর বিধিনিষেধ অব্যাহত থাকবে- চ্যান্সেলর সেবাস্তিয়ান কুর্জ

 অন লাইন ডেস্ক থেকে,কবির আহমেদঃ অস্ট্রিয়ায় বর্তমানে করোনার দ্বিতীয় লকডাউন চলছে ১৭ নভেম্বর থেকে ৬ ডিসেম্বর পর্যন্ত। তবে লকডাউনের ফলে সংক্রমণের বিস্তার অনেকটাই কমে এসেছে। নভেম্বরের তৃতীয় সপ্তাহে অস্ট্রিয়ায় করোনার প্রতিদিনের সংক্রমণ ৯ হাজারের উপরে উঠে গিয়েছিল।বর্তমানে অর্ধেক নেমে আসলেও এখনও বিপদজনক পর্যায়ের মধ্যেই আছে।

সরকার প্রধান সেবাস্তিয়ান কুর্জ আজ রবিবার ২৯ নভেম্বর দক্ষিণ অস্ট্রিয়ার জনপ্রিয় ও বহুল প্রচারিত দৈনিক “Kleine Zeitung” এর সাথে এক সাক্ষাৎকারে বলেন, লকডাউন নির্দিষ্ট সময়ে শেষ হলেও কিছু “নির্দিষ্ট বিধিনিষেধ” শীঘ্রই শিথিলকরণ করা হবে না। আমাদের হাতে আরও এক সপ্তাহ বাকী আছে। আগামী সপ্তাহের সংক্রমণ সনাক্ত পর্যবেক্ষণের পর আমরা আমাদের পরবর্তী সিদ্ধান্ত জানাবো। তবে সরকারী সূত্রের উদ্ধৃতি দিয়ে সংবাদ মাধ্যম জানিয়েছেন যে,সরকার লকডাউনের পর আগামী ৭ ডিসেম্বর থেকে স্কুল ও ব্যবসা-বাণিজ্য ও দোকানপাট খুলে দেওয়ার পরিকল্পনা করছে। তবে মাস্ক,সামাজিক দূরত্ব সহ অন্যান্য বিধিনিষেধ অব্যাহত থাকবে।                                 

সেবাস্তিয়ান কুর্জ বলেন,আমাদের সকলেরই উচিত অস্ট্রিয়ায় তৃতীয় লকডাউন প্রতিরোধ করতে সর্বাত্মক চেষ্টা করা। তিনি আগামী ডিসেম্বর মাস থেকে অস্ট্রিয়ায় করোনার ফ্রি গণ পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করতে সকলের প্রতি উদাত্ত আহবান জানিয়েছেন। তিনি বলেন গণ পরীক্ষার ফলে আমরা সহজেই আক্রান্ত ব্যক্তিদের পৃথকীকরণের মাধ্যমে সঠিক চিকিৎসা সেবা প্রদান এবং অন্যদের দ্রুত সনাক্ত করে করোনার সংক্রমণের বিস্তার অতি দ্রুত নিয়ন্ত্রণে আনতে সক্ষম হব। তিনি আশা প্রকাশ করে বলেন যে, দেশব্যাপী এই করোনার অ্যান্টিজেন বা দ্রুত সনাক্ত প্রক্রিয়াটি করোনার তৃতীয় লকডাউন প্রতিরোধ করতে আমাদের জন্য এক “দুর্দান্ত সুযোগ” হতে পারে।                                   

তিনি আরও জানান,গণ পরীক্ষার জন্য সরকার ব্যাপক প্রস্তুতি নিয়েছেন। রাজধানী ভিয়েনায় ৩ টি বড় গণ পরীক্ষা কেন্দ্র স্থাপন করার কাজ চলছে। সংবাদ মাধ্যমে বলা হয়েছে ভিয়েনার Stadthalle (Burggasse U6 এর নিকট), Messe Wien(২ নাম্বার ডিস্ট্রিক্ট) এবং Prater জাতীয় স্টেডিয়ামে এই গণ পরীক্ষা কেন্দ্র স্থাপন করা হবে। ভিয়েনায় ২ ডিসেম্বর থেকে ১৩ ডিসেম্বর পর্যন্ত এই ফ্রি গণ করোনা টেস্ট সম্পন্ন করার পরিকল্পনা করা হয়েছে। সরকার আশা করছেন যে ভিয়েনার এই গণ করোনা পরীক্ষায় প্রায় ১২ লক্ষাধিক মানুষ অংশগ্রহন করবেন।                                               

অস্ট্রিয়ায় করোনার দ্বিতীয় তরঙ্গে সংক্রমণ বিস্তার রোধে সরকার জরুরী পদক্ষেপ নিতে এতো দেরী কেন করলো এইরকম এক প্রশ্নের জবাবে সরকার প্রধান চ্যান্সেলর সেবাস্তিয়ান কুর্জ বলেন, “আপনারা জানেন যে, আমি লকডাউন আরও আগে দিতে চেয়েছিলাম কিন্ত আমাদের শরীকদল ও কয়েকজন রাজ্য গভর্নরের বিরোধীতায় তা বিলম্বিত হয়েছে। স্কুল বন্ধের ব্যাপারেও আমি প্রচন্ড প্রতিরোধের মধ্যে ছিলাম।                         

আজ অস্ট্রিয়ায় নতুন করে করোনায় সংক্রমিত সনাক্ত হয়েছেন ৪,০৪৭ জন এবং মৃত্যুবরণ করেছেন ৮৭ জন। রাজধানী ভিয়েনায় আজ নতুন সংক্রমিত সনাক্ত হয়েছেন ৬২১ জন। অন্যান্য রাজ্যের মধ্যে NÖ রাজ্যে ৭৬২ জন,Steiermark রাজ্যে ৬৯২ জন, OÖ রাজ্যে ৬৪৭ জন,Kärnten রাজ্যে ৪৪৬ জন,Salzburg রাজ্যে ৩৪৬ জন,Tirol রাজ্যে ২৯৩ জন,Burgenland রাজ্যে ১২৪ জন এবং Vorarlberg রাজ্যে ১১৬ জন নতুন করে করোনায় সংক্রমিত হয়েছেন।                                            

অস্ট্রিয়ায় এই পর্যন্ত করোনায় মোট আক্রান্তের সংখ্যা ২,৭৯,৭০৮ জন এবং মোট মৃত্যুবরণ করেছেন ৩,১০৫ জন। করোনার থেকে এই পর্যন্ত মোট আরোগ্য লাভ করেছেন ২,১৬,৯৯৮ জন। বর্তমানে করোনার সক্রিয় রোগীর সংখ্যা ৫৯,৬০৫ জন। এর মধ্যে ক্রিটিক্যাল অবস্থায় আইসিইউতে আছেন ৬৯১ জন এবং হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন ৪,২৫১ জন। বাকীরা নিজ নিজ বাড়িতে আইসোলেশনে আছেন।

 11,651 total views,  1 views today