হাঙ্গেরির সরকারের নিকট মান্যবর রাষ্ট্রদূত মুহাম্মদ আবদুল মুহিতের পরিচয় পত্র পেশ


আন্তর্জাতিক ডেস্ক থেকে,কবির আহমেদঃ
অস্ট্রিয়ায় নিযুক্ত বাংলাদেশের মান্যবর  রাষ্ট্রদূত ও স্থায়ী প্রতিনিধি মুহাম্মদ আবদুল মুহিত হাঙ্গেরির রাজধানী বুদাপেস্টে  হাঙ্গেরিয়ান রাষ্ট্রপতি জ্যানোস অ্যাডারের নিকট তার পরিচয় পত্র পেশ করেন।                

উল্লেখ্য যে, বাংলাদেশের কোন দূতাবাস নাই। ভিয়েনা বাংলাদেশ দূতাবাস ও স্থায়ী মিশন একই সাথে হাঙ্গেরির দূতাবাসের দায়িত্ব পালন করছে। হাঙ্গেরিতে নিযুক্ত বাংলাদেশের অনাবাসী রাষ্ট্রদূত মান্যবর মুহাম্মদ আবদুল মুহিত হাঙ্গেরিয়ান রাষ্ট্রপতি জ্যানোস অ্যাডারের বরাবর তার পরিচয় পত্র উপস্থাপনের পরে অজানা সৈনিকের সমাধিতে (হিরোস স্কয়ার, বুদাপেস্ট) ফুলের পুষ্পস্তবক অর্পণ করেছেন।                                      

মান্যবর রাষ্ট্রদূত ২০২০ সালের ২ ডিসেম্বর তার পরিচয় পত্র উপস্থাপনের আগে স্যান্ডর প্রাসাদে প্রেসিডেন্ট গার্ড পরিদর্শন করেন। মান্যবর রাস্ট্রদূতের এই সফর ও পরিচিতি অনুষ্ঠানে তাঁর সাথে ছিলেন ভিয়েনার  বাংলাদেশ দূতাবাসের মিশন উপ প্রধান জনাব রাহাত বিন জামান।                          

অস্ট্রিয়ায় বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত হিসেবে নিয়োগের পূর্বে রাষ্ট্রদূত মুহাম্মদ আবদুল মুহিত ডেনমার্কে বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত হিসেবে কর্মরত।ছিলেন। তিনি অস্ট্রিয়ায় বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত এবং জাতিসংঘ দপ্তরে বাংলাদেশের স্থায়ী প্রতিনিধি হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। তিনি অস্ট্রিয়া অবস্থিত বিভিন্ন আন্তর্জাতিক সংস্থায়ও বাংলাদেশের স্থায়ী প্রতিনিধি হিসাবে বাংলাদেশের প্রতিনিধিত্ব করছেন।                         

মুহাম্মদ আবদুল মুহিত ১৯৯৩ সালে বাংলাদেশ সিভিল সার্ভিসে (বিসিএস) পররাষ্ট্রবিষয়ক ক্যাডারে যোগ দেন। তিনি ১৯৯৩ থেকে ১৯৯৫ সাল পর্যন্ত বাংলাদেশ পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সহকারী সচিব (প্রোটোকল) হিসাবে দায়িত্ব পালন করেন। ২৭ বছরের দীর্ঘ কূটনীতিক যাত্রায় তিনি কুয়েত, নিউ ইয়র্ক এবং ওয়াশিংটনে বাংলাদেশ মিশনে কাজ করেছেন। পাশাপাশি তিনি পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের বিভিন্ন উইংয়ে কর্মরত ছিলেন।                                           

তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে সমাজবিজ্ঞানে স্নাতক ও স্নাতকোত্তর ডিগ্রি অর্জন করেছেন। ব্যাক্তিগত জীবনে তিনি বিবাহিত এবং দুই মেয়ে সন্তানের পিতা।