প্রচন্ড তুষারপাতের কবলে অস্ট্রিয়ার দক্ষিণের Kärnten রাজ্য !

একদিনেই দুই মিটারেরও বেশী তুষারপাত রেকর্ড করা হয়েছে,রাজধানী ভিয়েনার সাথে রেল যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন

 অন লাইন ডেস্ক থেকে,কবির আহমেদঃ শুক্রবার ৪ ডিসেম্বর বিকাল থেকে উত্তর-পূর্ব ইতালির Udine রাজ্য সংলগ্ন অস্ট্রিয়ার Kärnten রাজ্য প্রচন্ড শীতকালীন বৈরী আবহাওয়ার মুখোমুখি হয়েছে।

আবহাওয়াবিদরা জানিয়েছেন, একটি ইতালিয় নিম্নচাপ যা ভূমধ্যসাগর থেকে সৃষ্টি হয়ে আল্পস্ পর্বতের দক্ষিণ দিকে আর্দ্র এবং হালকা বাতাসের সাথে প্রবাহিত হচ্ছে। ফলে এই অঞ্চলে শুক্রবার থেকে সোমবার পর্যন্ত প্রচুর বৃষ্টিপাতসহ ঝড়ের পূর্বাভাস দেওয়া হয়েছে। বৃষ্টিপাতের পরিমাণ গড়ে প্রতি বর্গ মিটারে ২৫০ থেকে ৩০০ লিটারও হতে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। Kärnten রাজ্যের বিভিন্ন জেলা এবং East Tirol এর অনেক অঞ্চলে এই বৃষ্টিপাতের কারনে বন্যা,ভূমিধস এবং পাহাড়ের মাটি ধসেরও আশঙ্কা দেখা দিয়েছে। এই বৈরী আবহাওয়া আগামী সোমবার পর্যন্ত থাকবে বলে আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বলা হয়েছে।     

অস্ট্রিয়ান আবহাওয়াবিদরা জানিয়েছেন ইতালিয় এই নিম্নচাপের প্রভাবে এই আল্পস পর্বত বেষ্টিত রাজ্যে ঘন্টায় ১০০ কিলোমিটার বেগে তুষারঝড়ের সতর্কতা দেওয়া হয়েছে। এরফলে পাহাড় থেকে বরফ ধস্ ও মাটি ধসের আশঙ্কা দেখা দিয়েছে। আর বৃষ্টিপাতের ফলে নিম্ন ভূমিতে বন্যা এবং ভূমি ধসের সম্ভাবনা দেখা দিয়েছে। অস্ট্রিয়ান ফেডারেল রেলওয়ে শুক্রবার বিকাল ৫ টার পর থেকে এই রাজ্যে ট্রেন চলাচল স্থগিত রেখেছেন। রাজধানী ভিয়েনা থেকে ছেড়ে যাওয়া ট্রেন সমূহ দক্ষিণের Steiermark রাজ্যের Mürzzuschlag জেলা পর্যন্ত যেয়ে পুনরায় ফেরত আসছে।                                   

Kärnten রাজ্য প্রশাসন ইতোমধ্যে আল্পস পর্বতের লেসচটাল এবং উপরের মল্টাল জেলাকে আবহাওয়ার সর্বোচ্চ সতর্কতা জারি করেছেন। সেখানে সমস্ত রাস্তা বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। আবহাওয়ার পূর্বাভাসে পূর্ব Tirol রাজ্যেও প্রচন্ড তুষারপাতের পূর্বাভাস দিয়েছেন। তবে Vorarlberg এবং উত্তর Tirol এর পাশাপাশি পিনজগাউ, পঙ্গাও এবং লুঙ্গাউতে সপ্তাহান্তে প্রচন্ড তুষারপাত হতে পারে এবং ২০ থেকে ৩০ সেন্টিমিটারের মধ্যে তাজা তুষারপাত হতে পারে।                    

অস্ট্রিয়ান ফেডারেল রেলওয়ে ÖBB অস্থায়ীভাবে এই উপদ্রুত অঞ্চলের কিছু অংশে তাদের ট্রেন চলাচল বন্ধ করে দিয়েছে। Kärnten রাজ্যে আগামী ১২ এবং ১৩ তারিখ করোনার ফ্রি গণ পরীক্ষার কথা রয়েছে। রাজ্য গভর্নর পিটার কাইজার উপদ্রুত অঞ্চলে যে সকল ব্যক্তিদের জন্য করোনার পরীক্ষার জন্য আহ্বান করা হয়েছে তাদের সতর্কতা অবলম্বন করতে এবং যদি সন্দেহ হয় তবে ঘরে বসে পরীক্ষা স্থগিত করতে বলেছেন।

এই রাজ্যের দুর্যোগ নিয়ন্ত্রণ কর্মকর্তা ড্যানিয়েল ফেলনার জানিয়েছেন এই রাজ্যের সকল রেসকিউ বা উদ্ধারকারী ইউনিট সমূহকে সর্বোচ্চ এলার্ট অবস্থায় রাখা হয়েছে। তবে রাস্তাঘাট ও রেল যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন ছাড়া আর কোনও দুর্ঘটনার খবর এখনই পাওয়া যায় নি। তিনি আরও জানান,দুর্যোগ মোকাবেলায় অস্ট্রিয়ান সেনাবাহিনীর ১০০ চৌকশ সেনা সদস্যকে এলার্ট অবস্থায় রাখা হয়েছে যারা পর্বত উদ্ধারকাজে বিশেষ পারদর্শী। তার সাথে সাথে সেনাবাহিনীর উদ্ধার কাজের কয়েকটি বিশেষ হেলিকপ্টার প্রস্তুত রাখা হয়েছে।

 10,239 total views,  1 views today