ইউরো কাপের বি গ্রুপের খেলায় ডেনমার্কের ক্রিশ্চিয়ান এরিকসেন হৃদরোগে আক্রান্ত

২ ঘন্টা স্থগিতের পর খেলাটি পুনরায় শুরু হয় এবং ফিনল্যান্ড ১-০ গোলে ডেনমার্ককে পরাজিত করে

 স্পোর্টস ডেস্ক থেকে,কবির আহমেদঃ আজ ডেনমার্কের রাজধানী কোপেনহেগেনে ইউরোপিয়ান চ্যাম্পিয়ন্সশীপ কাপের বি গ্রুপের প্রথম খেলায় স্বাগতিক ডেনমার্কের মধ্যমাঠের স্টার খেলোয়াড় ১০ নাম্বার জার্সি পরিহিত ২৯ বছর বয়স্ক ক্রিশ্চিয়ান এরিকসেন হৃদরোগে আক্রান্ত খেলার প্রথমার্ধের ৪৩ মিনিটের মাথায় মাটিতে লুটিয়ে পড়েন। সাথে সাথেই অবস্থা অনুধাবন করতে পেরে ম্যাচ রেফারি এন্থনি টেলর জরুরী মেডিকেল ইমার্জেন্সির ইঙ্গিত দেন।

খেলার ৪২ মিনিটের মাথায় বল সীমারেখার বাইরে চলে গিয়েছিল। ডেনমার্কের থ্রো-ইন ছিল। স্কোরলাইন ছিল ০-০। বল রিসিভ করতে এগিয়ে গিয়েছিলেন এরিকসেন। তবে সেই সময়েই তিনি মাটিতে লুটিয়ে পড়েন। বল হাঁটুতে লাগলেও সঙ্গেসঙ্গেই পড়ে যান তিনি। তখনই সতীর্থ নিজের দলের খেলোয়াড় মার্টিন ব্রেথওয়েট এবং টমাস ডিলানি তাঁকে সাহায্য করতে ছুটে যান। ডিলানি মেডিক্যাল সাহায্যের জন্য কার্যত হাত নেড়ে ইঙ্গিত করতে থাকেন।অবস্থা অনুধাবন করতে পেরে ম্যাচ রেফারি এন্থনি টেলর জরুরী মেডিকেল ইমার্জেন্সির ইঙ্গিত দেন।

ইংলিশ লীগের টটেনহ্যামের প্রাক্তন এই তারকার যখন আপদকালীন চিকিৎসা চলছিল সাইডলাইনের ধারে, সেইসময় তাঁর জাতীয় দলের সতীর্থরা বেষ্ঠনী করে প্রার্থনা করতে থাকেন। স্ট্রেচারে করে এরিকসেনকে নিয়ে যাওয়ার সময় স্টেডিয়ামের ১৬ হাজার দর্শকদের সমস্বরে চিয়ার আপ করতেও দেখা যায়।

কিছুক্ষণ পরে বিবৃতিতে জানানো হয়, “মেডিকেল ইমার্জেন্সির কারণে কোপেনহেগেনে ইউরোর ম্যাচ স্থগিত করা হল।” উয়েফার বিবৃতিতে পরে আরো জানানো হয় এরিকসেনের মেডিকেল ইমার্জেন্সির পরে দুদলের ফুটবলার এবং ম্যাচ আধিকারিকরা ক্রাইসিস মিটিং করেন মাঠেই।

তৎক্ষণাৎ ডেনমার্ক সরকারের তরফ থেকে বিবৃতিতে বলা হয়েছে, রিগস্পোতিলেট-এ চিকিৎসা চলছে তারকা মিডফিল্ডারের। আপাতত তিনি সজাগ অবস্থায় রয়েছেন। মাঠ থেকে ৫০০ মিটার দূরে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছে এরিকসেনকে। তাঁর বাবার সঙ্গে কথা বলে এরিকসনের এজেন্ট মার্টিন স্কুটস জানান, ‘‘কথা বলতে পারছেন এরিকসেন’’।

ডেনমার্কের ফুটবল ফেডারেশনের তরফ থেকে টুইট করে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে, ‘আপাতত ভাল আছেন এরিকসেন। হাসপাতালে তাঁর চিকিৎসা চলছে। সেখানে ডাক্তাররা তাঁর শারীরিক অবস্থা পরীক্ষা করছেন।’’ জরুরী পরিস্থিতির কারণে দুই দলের ম্যানেজারের সঙ্গে আলোচনায় বসেছিলেন ম্যাচ পরিচালনার দায়িত্বে থাকা ম্যাচ কমিশনার। ম্যাচ বেশ কিছুটা সময় স্থগিত থাকলেও তখনই জানানো হয় বাতিল হচ্ছে না এই ম্যাচ। পরবর্তীতে UEFA এবং ডেনমার্ক ও ফিনল্যান্ড কর্তৃপক্ষের ঐক্যের পর প্রায় ২ ঘন্টা পর পুনরায় খেলা শুরু করা হয়।

খেলা শুরু হলে ৫৯ মিনিটের মাথায় ফিনল্যান্ডের ২০ নাম্বার জার্সি পরিহিত খেলোয়াড় Joel Pohjanpalo ডেনমার্কের বিরুদ্ধে এক গোল করে ফিনল্যান্ডের জয় নিশ্চিত করেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.