অস্ট্রিয়া ইউক্রেনকে অ্যাস্ট্রাজেনেকার ৫,০০,০০০ লাখ করোনার প্রতিষেধক ভ্যাকসিন দিবে


কবির আহমেদ,
ইউরোপ ডেস্কঃ অস্ট্রিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী আগামীকাল সোমবার ইউক্রেন সফরের সময় অ্যাস্ট্রাজেনেকার ২,৫০,০০০ ডোজ সাথে নিয়ে যাবেন।

অস্ট্রিয়ান সংবাদ সংস্থা এপিএ জানিয়েছেন,অস্ট্রিয়া ইউক্রেনকে অ্যাস্ট্রাজেনেকার করোনার প্রতিষেধক টিকা বা ভ্যাকসিনের পাঁচ লাখ ডোজ দান করবে।অস্ট্রিয়ার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের ভাষ্যমতে, আজ এই ভ্যাকসিন প্যাকেটিংয়ের প্রস্তুতি চলছে।

অস্ট্রিয়ার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের উদ্ধৃতি দিয়ে সংবাদ সংস্থা এপিএ জানিয়েন, এই পাঁচ লাখ ভ্যাকসিনের প্রথম চালান ২,৫০,০০০(আড়াই লাখ) আগামীকাল সোমবার পররাষ্ট্রমন্ত্রী আলেকজান্ডার শ্যালেনবার্গ (ÖVP) তার ইউক্রেনের রাজধানী কিয়েভ সফরের সময় সাথে করে নিয়ে যাবেন। অস্ট্রিয়ার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জনৈক কর্মকর্তা সংবাদ সংস্থাকে জানিয়েছেন বাকী আড়াই লাখ ডোজ শরতের কোন এক সময় পাঠানো হবে।

সংবাদ মাধ্যমের সাথে এক সাক্ষাৎকারে অস্ট্রিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী আলেকজান্ডার শ্যালেনবার্গ বলেন, মহামারী করোনা একটি  বৈশ্বিক সংগ্রাম এবং এই বিপদের মুহুর্তে অস্ট্রিয়া তার দরিদ্র প্রতিবেশীদের একা রেখে চলতে পারে না। তিনি জানান অস্ট্রিয়া ইতিমধ্যেই একাধিক বলকান রাস্ট্রে করোনার প্রতিষেধক ভ্যাকসিনের প্রায় ২০ লাখ ডোজ দান করেছেন।

অস্ট্রিয়ার স্বাস্থ্যমন্ত্রী ভল্ফগাং মুকস্টাইন (গ্রিনস) এপিএ কে জানান,করোনা মহামারীর বিরুদ্ধে কেবল একা লড়াই করা সম্ভব নয়। করোনার সংক্রমণ বিস্তার রোধে বিশ্বব্যাপী সকলের একসাথে লড়াই করতে হবে। তিনি আরও বলেন,অস্ট্রিয়ার মতো দেশগুলি, যারা বর্তমানে প্রয়োজনের চেয়ে বেশি ভ্যাকসিন পাওয়ার ভাগ্যবান অবস্থানে রয়েছে, “সারা বিশ্বে পর্যাপ্ত ভ্যাকসিন আছে কিনা তা নিশ্চিত করার জন্য তাদের ভূমিকা পালন করতে হবে।

এক পরিসংখ্যানে বলা হয়েছে ইউক্রেনে এই পর্যন্ত মাত্র প্রায় ৭ শতাংশ সম্পূর্ণরূপে টিকা দেওয়া হয়েছে।পরিসংখ্যানের পাতা “আওয়ার ওয়ার্ল্ড ইন ডেটা” এর তথ্য অনুসারে, ইউক্রেনে নতুন সংক্রমণের আনুষ্ঠানিক সংখ্যা বর্তমানে জার্মানির তুলনায় উল্লেখযোগ্যভাবে ধীরে ধীরে বৃদ্ধি পাচ্ছে, কিন্তু ইউক্রেনে টিকা দেওয়ার হার ইউরোপের মধ্যে সবচেয়ে কম। জনসংখ্যার মাত্র সাত শতাংশের নিচে সম্পূর্ণ টিকা দেওয়া হয়েছে।আর ১১,৭ শতাংশ মানুষ করোনার প্রথম টিকা পেয়েছে। যা অস্ট্রিয়ায় যথাক্রমে ৫৭.০ শতাংশ এবং ৬০,৭ শতাংশ।

সংবাদ সংস্থা এপিএ জানিয়েছেন,গত কয়েক সপ্তাহে অস্ট্রিয়া ইতিমধ্যেই লেবানন, তিউনিসিয়া, বসনিয়া-হার্জেগোভিনা এবং জর্জিয়াতে টিকার উদ্বৃত্ত মাত্রা পৌঁছে দিয়েছে।  পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মতে, আরও সহায়তা বিতরণের প্রস্তুতি চলছে।

আজ অস্ট্রিয়ায় নতুন করে করোনায় সংক্রমিত শনাক্ত হয়েছেন ১,১২১ জন। রবিবার ছুটির দিনের এই সংক্রমণের সংখ্যা গত মে মাসের পর সর্বোচ্চ।

আজ করোনায় একজন মৃত্যুবরণ করেছেন। রাজধানী ভিয়েনায় আজ নতুন করে করোনায় সংক্রমিত শনাক্ত হয়েছেন ৪০০ জন। অন্যান্য রাজ্যের মধ্যে NÖ রাজ্যে ১৯৯ জন, OÖ রাজ্যে ১৪৫ জন, Steirmark রাজ্যে ১০৮ জন, Tirol রাজ্যে ৮৪ জন, Vorarlberg রাজ্যে ৫৯ জন, Salzburg রাজ্যে ৫১ জন, Kärnten রাজ্যে ৪৮ জন এবং Burgenland রাজ্যে ২৭ জন নতুন করে করোনায় সংক্রমিত শনাক্ত হয়েছেন।

অস্ট্রিয়ার স্বাস্থ্যমন্ত্রণালয়ের তথ্য অনুযায়ী আজ দেশে করোনার প্রতিষেধক টিকা দেয়া হয়েছে ১৪,৬১৮ ডোজ এবং এই পর্যন্ত দেয়া হয়েছে ১,০৩,১৭,৮৮২ ডোজ।

অস্ট্রিয়ায় এই পর্যন্ত করোনার প্রতিষেধক টিকার সম্পূর্ণ ডোজ গ্রহণ করেছেন ৫১ লাখ ১৬ হাজার ৯০৮ জন,যা দেশের মোট জনসংখ্যার শতকরা ৫৭,৩৮%।

অস্ট্রিয়ায় এই পর্যন্ত করোনায় মোট আক্রান্তের সংখ্যা ৬,৭৬,৫২৬ জন এবং মৃত্যুবরণ করেছেন ১০,৭৬২ জন।করোনার থেকে এই পর্যন্ত আরোগ্য লাভ করেছেন ৬,৫৩,৫৬৪ জন। বর্তমানে করোনার সক্রিয় রোগীর সংখ্যা ১২,২০০ জন। এর মধ্যে আইসিইউতে আছেন ৬৯ জন এবং হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন ৩৩৪ জন। বাকীরা নিজ নিজ বাড়িতে আইসৌলেশনে আছেন।

 14,575 total views,  1 views today