বার্লিনে জার্মানির চ্যান্সেলর অ্যাঞ্জেলা মের্কেলের সাথে সেবাস্তিয়ান কুর্জের শেষ বৈঠক

জার্মানির চ্যান্সেলর অ্যাঞ্জেলা মের্কেল ১৬ বছর সরকার প্রধানের দায়িত্ব পালন শেষে সেপ্টেম্বরে অবসরে যাচ্ছেন

 কবির আহমেদ, ইউরোপ ডেস্কঃ অস্ট্রিয়ার জাতীয় সংবাদ মাধ্যম জানিয়েছেন অস্ট্রিয়ার সরকার প্রধান ফেডারেল চ্যান্সেলর সেবাস্তিয়ান কুর্জ (ÖVP) আজ মঙ্গলবার ৩১ আগস্ট বার্লিনে জার্মানির চ্যান্সেলর অ্যাঞ্জেলা মের্কেলের সাথে এক বিদায়ী সাক্ষাৎকার ও বৈঠকে মিলিত হয়েছেন। অস্ট্রিয়ান সংবাদ মাধ্যম জানিয়েছেন জার্মানির চ্যান্সেলর ও সিডিইউ (CDU) এর এই অভিজ্ঞ রাজনীতিবিদ সেপ্টেম্বরের শেষে জার্মানির ফেডারেল নির্বাচনের পর তার পদত্যাগের কথা ইতিমধ্যেই জানিয়েছেন।

আজ দুই সরকার প্রধানের মধ্যে আলোচনার কেন্দ্রবিন্দু ছিল আফগানিস্তানের বর্তমান পরিস্থিতি নিয়ে। অস্ট্রিয়ার সরকার প্রধান চ্যান্সেলর সেবাস্তিয়ান কুর্জ জার্মানির চ্যান্সেলর অ্যাঞ্জেলা মের্কেলের নিকট আবারও শরণার্থী ইস্যুতে অস্ট্রিয়ার অবস্থান পুনর্ব্যক্ত করেছেন। অস্ট্রিয়া ইতোমধ্যেই বেশ কয়েকবার স্পষ্ট করেছে যে,তারা আফগানিস্তান থেকে আসা নতুন শরণার্থীদের আর গ্রহণ করতে চায় না। বৈঠকে অস্ট্রিয়ার সরকার প্রধান কুর্জ চ্যান্সেলর মের্কেলকে তার দীর্ঘ কর্মজীবন অস্ট্রিয়ার সাথে বিভিন্ন আঞ্চলিক ও আন্তর্জাতিক পর্যায়ে এক সাথে কাজ করার জন্য ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন।

আজ বৈঠক শেষে জার্মানির রাজধানী বার্লিনে এক যৌথ সাংবাদিক সম্মেলনে অস্ট্রিয়ার সরকার প্রধান চ্যান্সেলর সেবাস্তিয়ান কুর্জ জোর দিয়ে বলেন, তার দেশ ইতিমধ্যেই অসংখ্য লোককে শরণার্থী হিসাবে গ্রহণ করেছে। তিনি আরও জানান,বর্তমানে আফগানিস্তান শরণার্থীদের মধ্যে মাথাপিছু বিশ্বের চতুর্থ বৃহত্তম আফগান সম্প্রদায় এখন অস্ট্রিয়াতে বসবাস করছে। তিনি ইউরোপীয় ইউনিয়নের নেতৃবৃন্দকে উদ্দেশ্য করে বলেন,”ইউরোপীয় হিসাবে আমাদের বাহ্যিক সীমানা বা সীমান্ত সঠিকভাবে সুরক্ষিত করতে হবে”।

তিনি আরও জানান, অস্ট্রিয়া ইতিমধ্যেই আফগানিস্তানে জরুরী সাহায্য হিসাবে ১৮ মিলিয়ন ইউরোর ঘোষণা করেছে। তিনি জানান “একই সময়ে, ইউরোপিয়ান ইউনিয়নের সদস্য দেশ হিসাবে আমাদেরকে আমাদের বাহ্যিক সীমানা সঠিকভাবে সুরক্ষিত করতে হবে এবং অবৈধ অভিবাসনের বিরুদ্ধে আমাদের লড়াই করতে হবে”।

সাংবাদিক সম্মেলনে জার্মানির চ্যান্সেলর অ্যাঞ্জেলা মের্কেলে বলেন,”আমাদের দেখতে হবে কিভাবে আমরা তালেবানদের সাথে কথা বলতে পারি”। তিনি জানান, জার্মান ফেডারেল সরকার কাবুলে তালেবানদের সাথে নিয়মিত যোগাযোগ স্থাপনের উপায় খুঁজে পেতে ইউরোপীয় অংশীদারদের সাথে আলোচনা করছে।  আপনাকে দেখতে হবে “আমরা কিভাবে তালেবানদের সাথে কথা বলতে পারি,” চ্যান্সেলর বলেন।

মের্কেল আরও বলেন,জার্মানির ফেডারেল সরকার তাই ফ্রান্স, গ্রেট ব্রিটেন, ইতালি এবং নেদারল্যান্ডসের মতো দেশগুলির সাথে পরামর্শ করছে যে কূটনৈতিক স্বীকৃতির সমতুল্য না হয়ে কীভাবে কাবুলে ইউরোপীয় উপস্থিতি প্রতিষ্ঠা করা যায়। এয়ারলিফ্ট শেষ হওয়ার পর জার্মান ফেডারেল আর্মড ফোর্সের প্রাক্তন স্থানীয় কর্মীদের দেশ থেকে বেরিয়ে যাওয়ার মতো লোকজনকে ঝুঁকিপূর্ণ করার বিষয়ে আলোচনা হতে হবে। 

মের্কেলের সঙ্গে বৈঠকের আগে, ইউরোপের বর্তমান অর্থনৈতিক পরিস্থিতি নিয়ে আলোচনার জন্য কুর্জ বিভিন্ন জার্মান কোম্পানির প্রতিনিধিদের সঙ্গে দেখা করেন। বৈঠক সেবাস্তিয়ান বলেন, “বিশেষ করে সংকটের সময়ে, ইউরোপে কর্মসংস্থান সৃষ্টি এবং সুরক্ষিত করার জন্য আমাদের একসাথে কাজ করা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ”।

পরে বিকালে সেবাস্তিয়ান কুর্জের সাথে জার্মানির প্রতিরক্ষামন্ত্রী আনেগ্রেট ক্র্যাম্প-কারেনবাউয়ার (সিডিইউ) এর সংক্ষিপ্ত সাক্ষাৎকারের কথা রয়েছে।

চ্যান্সেলর সেবাস্তিয়ান কুর্জের একজন মুখপাত্র বলেন, ইইউ -এর সদস্য দেশগুলোর মধ্যে সহযোগিতার অংশ হিসেবে, তারা স্থলপথে উচ্ছেদে বিদেশী সৈন্য প্রত্যাহারের পর একসঙ্গে কাজ চালিয়ে যাওয়ার ব্যাপারে আলোচনা করবেন। এদিকে জার্মানির সংবাদ মাধ্যম জানিয়েছেন সর্বশেষ মার্কিন সেনা মঙ্গলবার সকালে হিন্দুকুশে দেশ ত্যাগ করেছে।

এই সফরে অস্ট্রিয়ার সরকার প্রধান চ্যান্সেলর সেবাস্তিয়ান কুর্জকে জার্মানির ক্ষমতাসীন দল সিডিইউ(CDU) জার্মানির অর্থনৈতিক দিবসের অংশ হিসেবে কুর্জকে সিডিইউ অর্থনৈতিক পরিষদ “লুডভিগ এরহার্ড স্মরণীয় স্বর্ণ” প্রদান করেছে।

 14,598 total views,  1 views today