ভিয়েনার Westbahnhof রেলস্টেশনের নিকটে হোটেল ইবিসের পাশের পুন:র্নির্মাণাধীন ভবনের ছাদে আগুন

অস্ট্রিয়ার করোনার ট্র্যাফিক লাইট কমিশন Salzburg রাজ্যকে “লাল জোন” ঘোষণা 

 কবির আহমেদ, ইউরোপ ডেস্কঃ অস্ট্রিয়ান সংবাদ সংস্থা এপিএ জানিয়েছেন আজ বেলা ২ টা ৩০ মিনিটের সময় ভিয়েনার ৬ নাম্বার ডিস্ট্রিক্টের Kurzgasse এর একটি ভবনের ছাদে আগুন লাগার ঘটনা ঘটেছে। আগুনের লেলিহিন শিখা ও ধোঁয়া কয়েক কিলোমিটার দূর থেকেও দেখা গেছে বলে জানিয়েছেন এপিএ।

সংবাদ সংস্থার খবরে বলা হয়েছে ভিয়েনা ফায়ার সার্ভিসের ৭২ টি অগ্নিনির্বাপক গাড়ি মুহুর্তের মধ্যেই আগুন নেভানোর কাজ শুরু করায় আগুন বেশীদূর ছড়াতে পারে নি। আগুন লাগার সময় ভবনের ছাদে রিপিয়ারিংয়ের কাজ চলছিল। প্রাথমিক খবরে বলা হয়েছে এই অগ্নিকাণ্ডে কোন মানুষের কোন ক্ষতিসাধন হয় নি। তবে এপিএর সাথে ঘটনাস্থলে দায়িত্বরত ভিয়েনা ফায়ার সার্ভিসের একজন কর্মকর্তা জানান, আমাদের অগ্নিনির্বাপক কর্মীরা যখন মই দিয়ে উপরে উঠে আগুন নেভানোর কাজ করছিলেন তখন তারা দুইটি গ্যাস সিলিন্ডার জ্বলন্ত অবস্থায় দেখতে পায়।

ভিয়েনার ফায়ার সার্ভিস খুব অল্প সময়ের মধ্যেই আগুন তাদের নিয়ন্ত্রণে নিয়ে আসেন।এই অগ্নিকাণ্ডের সময় ঘটনাস্থলের পাশ দিয়েই রাজধানী ভিয়েনার অত্যন্ত ব্যস্ততম Mariahilfer Gürtel এর রাস্তাটি প্রায় ঘন্টা দুয়েকের জন্য বন্ধ করে দেয়া হয়। ফলে ভিয়েনার পশ্চিম ও দক্ষিণ অংশে বেশ জানজটের সৃষ্টি হয়।

তাছাড়াও অল্প কিছু সময়ের জন্য ঘটনাস্থলের পাশ দিয়ে চলে যাওয়া ট্রামওয়ে ৬ ও ১৮ নাম্বারের চলাচল বন্ধ করে দেয়া হয়েছিল। এপিএ জানিয়েছে, অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা তদন্তের জন্য ইতিমধ্যেই ভিয়েনা প্রশাসনের সাথে ফায়ার সার্ভিসের কর্মকর্তারা কাজ করছেন।

এদিকে আজ অস্ট্রিয়ার করোনার ট্র্যাফিক লাইট কমিশন তাদের নিয়মিত সাপ্তাহিক বৈঠকের পর অস্ট্রিয়ার পশ্চিমের রাজ্য Salzburg কে করোনার সবচেয়ে বেশী ঝুঁকিপূর্ণ “লাল জোন” ঘোষণা করেছে।

Salzburg ই অস্ট্রিয়ার প্রথম রাজ্য যাকে করোনার এই চতুর্থ প্রাদুর্ভাবে লাল অঞ্চল বা জোন ঘোষণা করা হল।সাধারণ প্রতি ১,০০,০০০ লাখ জনপদে করোনার সংক্রমণ ১০০ জন ও তার উপরে হলে সে অঞ্চলকে করোনা ভাইরাসের সংক্রমণের অতি বেশী ঝুঁকিপূর্ণ লাল জোন ঘোষণা করতে জানিয়েছে ইউরোপী ইউনিয়নের মেডিকেল এজেন্সি যা ইইউ কর্তৃক অনুমোদিত।

তাছাড়াও কমিশন অস্ট্রিয়ার শুধুমাত্র Burgenland রাজ্য ছাড়া বাকী ৭ টি রাজ্যকেই  করোনার ট্র্যাফিক লাইট সিস্টেমে কমলা জোন ঘোষণা করেছে। Burgenland রাজ্যে এখনও প্রতি এক লাখ জনপদে করোনায় আক্রান্ত ৫০ জনের কম বলে সে এখনও করোনার মাঝারি ঝুঁকিপূর্ণ হলুদ জোনেই থাকছে। ভিয়েনা সহ বাকী ৭ টি রাজ্যে প্রতি এক লাখ জনপদে করোনার সংক্রমণ ৫০ জনের উপরে থাকায় তারা করোনার ঝুঁকিপূর্ণ কমলা জোনে থাকছে।

অস্ট্রিয়ার করোনা কমিশনের তথ্য অনুযায়ী রাজধানী ভিয়েনায় বর্তমানে প্রতি এক লাখ জনপদে করোনায় আক্রান্ত ৯১,৫ জন। ফলে সহজেই অনুমান করা যাচ্ছে আগামী সপ্তাহে ভিয়েনাকে করোনার অতি ঝুঁকিপূর্ণ লাল জোন ঘোষণা এখন শুধুমাত্র সময়ের ব্যাপার।

আজ অস্ট্রিয়ায় নতুন করে করোনায় সংক্রমিত শনাক্ত হয়েছেন ২,১৯৮ জন এবং করোনায় আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুবরণ করেছেন ১৪ জন। গত মে মাসের পর করোনায় মৃত্যুবরণের এই সংখ্যা পুনরায় সর্বোচ্চ সংখ্যক।

আজ রাজধানী ভিয়েনায় নতুন করে সংক্রমিত শনাক্ত হয়েছেন ৬২১ জন। অন্যান্য রাজ্যের মধ্যে OÖ রাজ্যে ৪৩০ জন,NÖ রাজ্যে ৩৯২ জন,Steiermark রাজ্যে ২১৩ জন,Salzburg রাজ্যে ১৮৪ জন,Kärnten রাজ্যে ১১৩ জন,Tirol রাজ্যে ৯৬ জন,Vorarlberg রাজ্যে ৯৩ জন এবং Burgenland রাজ্যে ৫৬ জন নতুন করে করোনায় সংক্রমিত শনাক্ত হয়েছেন।

অস্ট্রিয়ার স্বাস্থ্যমন্ত্রণালয়ের তথ্য অনুযায়ী আজ সমগ্র অস্ট্রিয়ায় করোনার প্রতিষেধক টিকা দেয়া হয়েছে মাত্র ১৩,৮৮১ ডোজ। এই পর্যন্ত করোনার প্রতিষেধক টিকাদানের মোট পরিমাণ ১,০৬,৬৯ ২৫১ ডোজ। অস্ট্রিয়ায় এই পর্যন্ত করোনার প্রতিষেধক টিকার সম্পূর্ণ ডোজ গ্রহণ করেছেন ৫৩ লাখ ২২ হাজার ৩১০ জন,যা দেশের মোট জনসংখ্যার শতকরা ৫৯,৬ শতাংশ।

অস্ট্রিয়ায় এই পর্যন্ত করোনায় মোট আক্রান্তের সংখ্যা ৭,১৮,০৯১ জন এবং মৃত্যুবরণ করেছেন ১০,৮৭০ জন।করোনার থেকে এই পর্যন্ত আরোগ্য লাভ করেছেন মোট ৬,৮৪,৫৪৮ জন। বর্তমানে করোনার সক্রিয় রোগীর সংখ্যা ২২,৬৭৩ জন। এর মধ্যে ক্রিটিক্যাল অবস্থার মধ্যে আইসিইউতে আছেন ২০২ জন এবং হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন ৮২২ জন। বাকীরা নিজ নিজ বাড়িতে আইসোলেশনে আছেন।

 14,600 total views,  1 views today