“করোনাভাইরাস” সুফল দেখতে পাচ্ছে অষ্ট্রিয়া

নিউজ ডেস্কঃ “সঠিক সময়ে সঠিক পদক্ষেপ” নেওয়ায় সুফল দেখতে পাচ্ছে অষ্ট্রিয়ার জনগন । ফেব্রুয়ারীর শেষ সপ্তাহে অষ্ট্রিয়ায়  প্রথম করোনায় আক্রান্ত সনাক্ত হয়। তারপর মাত্র দুই সপ্তাহের মধ্যে তড়িঘড়ি সারা দেশ লক ডাউন করা হয়। যার ফলশ্রুতিতে আজ চার সপ্তাহ পর এই লক ডাউনের সুফল পেতে শুরু করেছে জনগন। ইউরোপের মধ্যে এই প্রথম অষ্ট্রিয়া লক ডাউন থেকে ধিরে ধিরে স্বাভাবিক জীবন যাত্রায় ফিরার স্বপ্ন দেখছে ।  এজন্য অষ্ট্রিয়ার জনগন প্রধানমন্ত্রী কে ধন্যবাদ জানান ।            

আজ ভিয়েনায় পর্যটন মন্ত্রী বলেছেন যে, মে  মাসের মাঝামাঝি থেকে অষ্ট্রিয়া পর্যটকদের  জন্য পুনরায় খুলে দেওয়া হবে।

ইতিমধ্যে প্রধানমন্ত্রী সেবাস্তিয়ান  কুরছ বলেছেন আগামী মাস থেকে ক্রমান্বয়ে স্বাভাবিক জীবনে ফিরে আসার জন্য ধীরে ধীরে সবকিছু পুনরায় খুলে দেওয়া হবে।

আজ ৮ এপ্রিল বিকেল ৩ টার  সর্বশেষ তথ্য   অনুযায়ী অষ্ট্রিয়ায় করোনাভাইরাসে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরছেন  ,৫১২ জন । এদিকে  আক্রান্তের সংখ্যা সামান্য বেড়ে এখন ১২,৮৪০ জনে দাঁড়াল ।  হাসপাতালে    চিকিৎসাদিন আছেন ,০৯৬ জন । সব চেয়ে খুশির খবর হল গত ২৪ ঘণ্টায় আক্রান্তের চেয়ে সুস্থ হয়েছেন অনেক বেশী, তাই জনগন আশার আলো দেখতে পাচ্ছেন । তবে দুঃখ জনক হলেও সত্য, আজ অষ্ট্রিয়ায় মৃত্যুর সংখ্যা অনেক বেড়ে গিয়ে সর্বমোট  এখন ৭৩ জনে দাঁড়াল ।  

অন্যদিকে অষ্ট্রিয়ায় সর্বমোট  ,২০,৭৫৫   জনকে করোনার পরীক্ষা করা হয়েছে । এরমধ্যে ১২,৮৪০ জনকে শনাক্ত  করা  হয়েছে । আইসিইউ তে আছেন ২৬৭ জন । 

এদিকে ভিয়েনার গণপরিবহণ সংস্থা জানিয়েছে যে, আগামী ১৪ এপ্রিল থেকে  বাস,ট্রাম,মেট্রো সহ অন্যান্য সকল প্রকার গণপরিবহণে সবার জন্য মাস্ক পড়া বাধ্যতামূলক করা হয়েছে। যদি কেহ না পড়েন,তাহলে কন্ট্রোল সাপেক্ষে জরিমানার সম্মুখীন হতে পারেন।

 

 4,687 total views,  1 views today