“করোনাভাইরাস” ধীরে ধীরে আলোর পথে অষ্ট্রিয়ার জনগন

নিউজ ডেস্কঃ “যথা সময়ে সঠিক পদক্ষেপ”  নেওয়ায় সুফল দেখতে পাচ্ছে অষ্ট্রিয়ার জনগন । ফেব্রুয়ারীর শেষ সপ্তাহে অষ্ট্রিয়ায়  প্রথম করোনায় আক্রান্ত সনাক্ত হয়। তারপর মাত্র দুই সপ্তাহের মধ্যে তড়িঘড়ি সারা দেশ লক ডাউন করা হয়। যার ফলশ্রুতিতে আজ  প্রায় চার সপ্তাহ পর এই লক ডাউনের  সুফল ধীরে ধীরে আলোর পথে হাঁটছে জনগন।  ইউরোপের মধ্যে এই প্রথম অষ্ট্রিয়া লক ডাউন থেকে  স্বাভাবিক জীবন যাত্রায় ফিরার স্বপ্ন দেখছে ।  এজন্য অষ্ট্রিয়ার জনগন প্রধানমন্ত্রী কে ধন্যবাদ জানান ।

এদিকে আজ ইস্টার উপলক্ষে অষ্ট্রিয়ার প্রধানমন্ত্রী সেবাস্তিয়ান কুরছের দেশবাসীর প্রতি আবেদন করে বলেন, “করোনা   ভাইরাসটি থেকে এখনও আমরা জয়ী হতে পারি নি ! দয়া করে কারও সাথে দেখা করবেন না” অর্থাৎ সামাজিক দূরত্ব বজায়  রেখে চলুন। প্রধানমন্ত্রী সেবাস্তিয়ান কুরছ  ইস্টারের ছুটির কিছুক্ষণ আগে আবার সামাজিক দূরত্বের ডাক দিয়েছেন। তিনি জানান ইস্টারে কোনও পারিবারিক উৎসব উদযাপিত হবে না,  “আমরা পাহাড়ের ওপার থেকে অনেক দূরে, কারণ ভাইরাস এখনও আমাদের মাঝখানে রয়েছে,” কুরছ বলেন “দয়া করে বাড়িতে থাকুন, কারও সাথে দেখা করবেন না, নিজের দূরত্ব বজায় রাখুন।”                                                                                                     

ইতিপূর্বে প্রধানমন্ত্রী সেবাস্তিয়ান  কুরছ বলেছেন, আগামী ১৪ এপ্রিল থেকে ছোট ছোট দোকানগুলি খুলে দেয়া হবে এবং আগামী মাস থেকে ক্রমান্বয়ে স্বাভাবিক জীবনে ফিরে আসার জন্য ধীরে ধীরে সবকিছু পুনরায় খুলে দেওয়া হবে।

আজ ৯ এপ্রিল বিকেল ৩ টার  সর্বশেষ  তথ্য অনুযায়ী অষ্ট্রিয়ায় করোনাভাইরাসে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরছেন ৫,২৪০ জন যা পূর্বের দিনের চেয়ে ৫৮৩ জন বেশী। এদিকে   আক্রান্তের সংখ্যা সামান্য বেড়ে এখন   ৩,১২০ জনে দাঁড়াল ।  হাসপাতালে চিকিৎসাদিন আছেন ,০৮৬ জন । সব চেয়ে খুশির খবর হল গত ২৪ ঘণ্টায় আক্রান্তের চেয়ে সুস্থ হয়েছেন অনেক বেশী, তাই জনগন আশার আলো দেখতে পাচ্ছেন । তবে দুঃখ জনক হলেও সত্য, আজ অষ্ট্রিয়ায় মৃত্যুর সংখ্যা অনেক বেড়ে গিয়ে সর্বমোট  এখন ২৯৬ জনে দাঁড়াল । অন্যদিকে আইসিইউ তে আছেন ২৬৬ জন । 

এদিকে সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী অষ্ট্রিয়ার প্রবাসী বাংলাদেশীরা সবাই সুস্থ আছেন এবং সামনে আলোর পথ দেখতে পাচ্ছেন ।

 

 5,537 total views,  1 views today