করোনাভাইরাস আলোর পথেই হাঁটছে অষ্ট্রিয়া

নিউজ ডেস্কঃ অষ্ট্রিয়ায় গত ২৪ ঘণ্টায় আরও  ৫৮০ জন সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরছেন । এনিয়ে সর্বমোট ,৬০৪ জন সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরলেন । সময়মত পদক্ষেপ নেওয়ার ফলেই এই সুফল দেখতে পাচ্ছে অষ্ট্রিয়ার জনগন । ফেব্রুয়ারীর শেষ সপ্তাহে অষ্ট্রিয়ায়  প্রথম করোনায় আক্রান্ত সনাক্ত হয়। তারপর মাত্র দুই সপ্তাহের মধ্যে তড়িঘড়ি সারা দেশ লক ডাউন করা হয়। যার ফলশ্রুতিতে আজ প্রায় চার সপ্তাহ পর এই লক ডাউনের  সুফল ধীরে ধীরে আলোর পথেই হাঁটছে জনগন।

আগামী ১৪ এপ্রিল থেকে ছোট ছোট ব্যবসা প্রতিষ্ঠানগুলি খুলে দেয়া হবে । ইউরোপের  মধ্যে এই প্রথম অষ্ট্রিয়া যা, লকডাউন থেকে স্বাভাবিক জীবন যাত্রায় ফিরার স্বপ্ন দেখছে । এজন্য অষ্ট্রিয়ার জনগন প্রধানমন্ত্রী কে ধন্যবাদ জানান ।

এদিকে আজ আবারো ইস্টার উপলক্ষে অষ্ট্রিয়ার প্রধানমন্ত্রী সেবাস্তিয়ান কুরছের দেশবাসীর প্রতি আবেদন করে বলেন, “করোনা ভাইরাসটি থেকে এখনও আমরা জয়ী হতে পারি নি ! দয়া করে কারও সাথে দেখা করবেন না” অর্থাৎ সামাজিক দূরত্ব বজায়  রেখে চলুন। প্রধানমন্ত্রী সেবাস্তিয়ান কুরছ  ইস্টারের ছুটির কিছুক্ষণ আগে আবার সামাজিক দূরত্বের ডাক দিয়েছেন। তিনি জানান ইস্টারে কোনও পারিবারিক উৎসব উদযাপিত হবে না,  “আমরা পাহাড়ের উপর  থেকে অনেক দূরে, কারণ ভাইরাস এখনও আমাদের মাঝখানে রয়েছে,” কুরছ বলেন “দয়া করে বাড়িতে থাকুন, কারও সাথে দেখা করবেন না, নিজের দূরত্ব বজায় রাখুন।” বাসায় থেকে যদি দূরত্ব বজায় না রাখেন তবে বড় ধরনের বিপদ ডেকে আনবেন । তাই ঘরেই থাকুন এবং দূরত্ব বজায় রেখে চলুন ।                                                                                             

আজ ১১ এপ্রিল সন্ধ্যা ৬ টার সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী অষ্ট্রিয়ায় করোনাভাইরাসে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরছেন ৬,৬০৪ জন যা পূর্বের  দিনের  চেয়ে ৫৮০ জন বেশী। এদিকে  আক্রান্তের সংখ্যা সামান্য বেড়ে এখন ১৩,৭৩০ জনে  দাঁড়াল । হাসপাতালে চিকিৎসাদিন আছেন  ,০০০ জন । সব চেয়ে খুশির খবর হল গত ২৪ ঘণ্টায় আক্রান্তের চেয়ে সুস্থ হয়েছেন ৫৮০ জন যা পূর্বের তুলনায় অনেক অনেক বেশী, তাই জনগন আশার আলো দেখতে পাচ্ছে । তবে দুঃখ জনক হলেও সত্য, আজ অষ্ট্রিয়ায় মৃত্যুর সংখ্যা অনেক বেড়ে গিয়ে সর্বমোট এখন ৩৭ জনে দাঁড়াল । অন্যদিকে আইসিইউ তে আছেন ২৪৬ জন । সর্বমোট করোনা পরীক্ষা হয়েছে ১,৪০,৯৭৫ জন এবং পজেটিভ ১৩,৭৩০ জন । 

আগামী সোমবার থেকে অষ্ট্রিয়ায় বাস, ট্রাম, মেট্রো, ট্রেন এমন কি প্রাইভেট গাড়ি চালাতেও মাস্ক পরা বাধ্যতামূলক । এর ব্যতিক্রম হলেই জরিমানা গনতে হবে ।  

এদিকে সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী অষ্ট্রিয়ার প্রবাসী বাংলাদেশীরা সবাই সুস্থ আছেন এবং সামনে আলোর পথই দেখতে পাচ্ছেন ।  

আপনারা ঘরে থাকুন, সুস্থ থাকুন এবং সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখুন । সময় কাটতে না চাইলে আত্মীয়-স্বজন এবং বন্ধু-বান্ধবদের সাথে ফোনে খোঁজ খবর নিন,দেখবেন সময় কেটে যাচ্ছে ।

 

 6,591 total views,  1 views today