করোনার মধ্যেই ইসলাম গ্রহণ করলেন অষ্ট্রিয়ার রেসলিং তারকা Wilhelm Ott

ডেস্ক রিপোর্টঃ করোনা ভাইরাসের কারণে পুরো বিশ্ব এখন প্রায় লকডাউন। এতে একরকম বিরক্ত হয়েই বিশ্বের মানুষজন আছেন ঘরবন্দি হয়ে। তবে করোনা ভাইরাসের এই প্রকোপে লকডাউন হয়ে ইসলাম নিয়ে গবেষণা করেছেন অস্ট্রিয়ার রেসলিং তারকা Wilhelm Ott । শুধু গবেষণা করেই থেমে থাকেননি অট। ইতিমধ্যে মুসলমানও হয়ে গেছেন তিনি। গত ১৬ই এপ্রিল ইন্সটাগ্রামে এক ভিডিও বার্তায় অট মুসলমান হওয়ার ঘোষণা দেন।

করোনাভাইরাস তথা কোভিড-১৯ এতটাই দাপট যে, সারা বিশ্বকেই চোখের পলকে লকডাউন করে দিয়েছে সেটা। কোয়ারেন্টাইনে বসে এক অতিক্ষুদ্র ভাইরাসের এমন বিশাল শক্তি দেখে নিজের বিশ্বাসেই এক বিশাল পরিবর্তন অনুভব করেন অস্ট্রিয়ান মিক্সড মার্শাল আর্ট (এমএমএ) রেসলার উইলহেম অট।

সেই পরিবর্তনের সঙ্গে তার চিন্তার জগৎও খুলে যায়। তিনি করোনাভাইরাসের শক্তির উৎস খুঁজতে থাকেন। অবশেষে পেয়ে যান করোনার শক্তির উৎস কি। তিনি বিশ্বাস খুঁজে পেলেন সৃষ্টিকর্তায়। অবশেষে করোনার কারণে কোয়ারেন্টাইনে থাকতে থাকতেই ইসলাম গ্রহণ করেন ফেলেন জাতিতে জার্মান এই অস্ট্রিয়ান। নতুন নাম রাখেন খালিদ অট

তবে, কোয়ারেন্টাইনে থাকতে নয়, ইসলামের সু-শীতল ছায়ার খোঁজ তিনি পেয়েছিলেন আরো আগেই। কোয়ারেন্টাইনে থেকে স্টাডি করে শুধু নিজের মধ্যে বিশ্বাস পাকা-পোক্ত করেছেন। ইনস্টাগ্রামে পোস্ট করা এক বার্তায় উইলহেম জানান, ইসলাম তার মানসিকতায় গেঁথে ছিল গত কয়েকটি বছর ধরেই। কিন্তু সময়ই বের করতে পারছিলেন না এ নিয়ে স্টাডি করার, জানা-শোনা করার। অবশেষে কোয়ারেন্টাইনে থেকে নিরবচ্ছিন্ন অবসর খুঁজে পেয়েছেন। সেখানেই তিনি খুঁজে পেলেন ইসলামের সৌন্দর্য।

উইলহেম অট বলেন, আমি নিজেকে রাজনৈতিক মনোভাবাপন্ন হিসেবে গড়ে তুলতে চাই। তবে, যখন আমি খুব কঠিন সময় অতিবাহিত করি, তখন ইসলাম আমাকে শক্তি যোগায়।উইলহেম অটের পেশাদার ক্যারিয়ার শুরু হয় ২০০৮ সালে। এখন পর্যন্ত ৩৩ ম্যাছে ১৬টিতে জয় পেয়েছেন তিনি। মার্শাল আর্ট র‍্যাঙ্কিংয়ে ৬১৫ জনের মধ্যে ৭৮ তম খালিদ উইলহেম অট

 5,078 total views,  1 views today