অষ্ট্রিয়ায় করোনায় সুস্থ হয়ে আজ বাড়ি ফিরলেন আরও ২০৪ জন

নিউজ ডেস্কঃ অষ্ট্রিয়ায় করোনাভাইরাসে সুস্থ  হয়ে আজ বাড়ি ফিরলেন আরও ২০৪ জন । এনিয়ে এ পর্যন্ত সুস্থ বাড়ি ফিরলেন সর্বমোট ১৪,৮৮২ জন ।

গত ১৮ মে থেকে সকল প্রাথমিক বিদ্যালয়,মাধ্যমিক ও প্রতিবন্ধীদের বিশেষ স্কুল খুলে দেওয়া হয়েছে।  তবে মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের যারা অন লাইনে এতোদিন ক্লাস করে আসছে,তাদের খুলবে ৩ জুন।          

দীর্ঘ দুইমাস বন্ধের পর গত ১৮ মে থেকে সারা  অস্ট্রিয়ায় ৬১,৩০০ জন প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী, ১৬,৫০০ জন মাধ্যমিক এবং ২,০০০ জন বিশেষ স্কুলের শিক্ষার্থী পুনরায় তাদের ক্লাসে ফিরে আসছে।

কিন্ডারগার্টেন,প্রাইভেট স্কুল সহ অন্যান্য সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানও খুলে দেওয়া হয়েছে তবে শিক্ষার্থীদের  সংখ্যা জানা যায় নি।                                                                                                   অস্ট্রিয়ান শিক্ষা মন্ত্রনালয়ের নির্দেশক্রমে প্রতিটি ক্লাসের শিক্ষার্থীদের দুইটি গ্রুপে ভাগ করে একদিন A এবং দ্বিতীয় দিন B গ্রুপের ক্লাস নেওয়া হচ্ছে  অধিকাংশ প্রাইমারী স্কুলে। প্রথম দিকে একদিন স্কুল এবং একদিন ছুটি এই পদ্ধতিতে চলবে কিছু দিন। করোনার সংক্রমণ কমাতে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে এই রকম সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী হাইন্স ফাসমান।

অধিকাংশ স্কুলেই হাফ অর্থাৎ চার ঘন্টা ক্লাস নেওয়া হচ্ছে। তবে কর্মজীবি মা-বাবার জন্য বাচ্চাদের স্কুলে রাখার ব্যবস্থা করা হয়েছে।       

স্কুলে আসা ও যাওয়ার সময় শিক্ষার্থীদের অবশ্যই মাস্ক ব্যবহার করতে হয় তবে ক্লাসের ভিতর মাস্ক ব্যবহার করতে হয় না। ভিয়েনার প্রশাসন ভিয়েনার  বিভিন্ন স্কুলে এক লক্ষ ত্রিশ হাজার মাস্ক সরবরাহ করেছে। তবে আশার কথা স্কুল খোলার তিন দিন পার হলেও এখনও কোন আক্রান্তের খবর পাওয়া যায় নি ।                    

গত ১৫ মে থেকে অস্ট্রিয়ায় সমস্ত রেস্টুরেন্ট ও  খাবারের দোকান খুলে দেওয়া হয়েছে। তবে আশার কথা খোলার তিন দিন হলেও সংক্রমণ তেমন একটা বাড়েনি অর্থাৎ করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব অস্ট্রিয়ায় অনেকটাই এখন নিয়ন্ত্রণে।                                                                                                     

অন্যদিকে আজ ২০ মে বিকেল ৬ টার সর্বশেষ তথ্য  অনুযায়ী সাড়া অষ্ট্রিয়ায় আজ করোনায়  মাত্র ৩২ জন  নুতন করে আক্রান্ত  হয়েছে।এনিয়ে সর্বমোট  আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়াল ১৬,২৯৫ জন।সুস্থ হয়ে  বাড়ি ফিরেছেন ১৪,৮৮২ জন।সর্বমোট মৃত্যু বরন  করেছেন ৩৩ জন।হাসপাতালে ভর্তি আছেন ১৭৪  জন। আইসিইউ তে আছেন ৩৭ জন।পরীক্ষা  করা  হয়েছে সর্বমোট ,৭৯,৫৯২ জন।     

 

 6,424 total views,  1 views today