১৫ জুন থেকে অস্ট্রিয়ায় করোনায় আরোপিত নিষেধাজ্ঞায় ব্যাপক শিথিলতা!

 অন লাইন ডেস্ক থেকে কবির আহমেদঃ আগামী ১৫ জুন  থেকে অস্ট্রিয়ায় করোনায় আরোপিত নিষেধাজ্ঞায় ব্যাপক শিথিলতা আনা হচ্ছে, মাস্ক  পড়ার বাধ্যবাধকতা অনেক জায়গায় থাকছে না। অস্ট্রিয়ান ফেডারেল সরকার শুক্রবার ২৯ মে ভিয়েনায় সরকার প্রধান চ্যান্সেলর সেবাস্তিয়ান কুরজের নেতৃত্বে এক প্রেস ব্রিফিংয়ে করোনায় আরোপিত নিষেধাজ্ঞা আরও সহজ করার ঘোষণা দিয়েছেন।       

প্রেস ব্রিফিংয়ে আরও উপস্থিত ছিলেন উপ প্রধানমন্ত্রী অর্থাত্ ভাইস চ্যান্সেলর ওয়ার্নার কোগলার এবং স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ও স্বাস্থ্যমন্ত্রী। প্রেস ব্রিফিংয়ে সরকার প্রধান সেবাস্তিয়ান বলেন, আমাদের দেশে করোনার সংক্রমণ বর্তমানে অনেক কমে এসেছে। তাই আমরা এখন ধীরে ধীরে স্বাভাবিক অবস্থায় ফিরে আসার পরিকল্পনা করছি।                                                   

এরই ধারাবাহিকতায় আগামী ১৫ ই জুন থেকে খোলা জায়গায় এবং রেস্টুরেন্টে জনসাধারণের মুখ ও নাকের সুরক্ষা বন্ধনি পরার বাধ্যবাধকতা আর থাকছে না। রেস্টুরেন্ট গুলি রাত ১১টার পরিবর্তে এখন রাত ১ টা পর্যন্ত খোলা থাকবে এবং এক টেবিলে চার জনের বেশী না বসার কঠোরতাও থাকছে না। তবে গণপরিবহনে,ফার্মেসী, স্বাস্থ্য খাতে এবং পরিষেবা গুলিতে ন্যূনতম এক মিটার দূরত্ব বজায় রাখা যায় না, সেই জন্য এইসব জায়গায় মাস্ক পড়তে হবে।

তিনি উদাহরণ স্বরূপ অন্যান্য পরিষেবা যেমন ক্যাটারিং ইন্ডাস্ট্রি, চুল কাটার সেলুন বা হেয়ারড্রেসার এর কর্মচারীদের যেহেতু নিরাপদ দূরত্ব বজায় রাখা সম্ভব নয় তাই তাদের মাস্ক পড়ার উপর গুরুত্ব আরোপ করেন। তিনি আরও বলেন ১৫ জুনের পর থেকে স্কুলে মুখ-নাক সুরক্ষা পরিধান করা আর বাধ্যতামূলক নয় এবং অস্ট্রিয়ায় প্রবেশের পর এখন থেকে আর ১৪ দিনের কোয়ারেন্টাইনে থাকতে হবে না।                                                                

শুক্রবারের এই শিথিলতার ঘোষণায় আরও বলা হয়েছে যে, হোটেল, পেনশন, ক্যাম্পসাইট এবং আশ্রয়কেন্দ্র, কেবল গাড়ি, লিফট এবং ভ্রমণের প্রমদতরী পুনরায় খুলে দেওয়া হবে। তবে এখনও ঠান্ডা আবহাওয়া বিরাজমান থাকায় বাহিরের গোছলের সুইমিং পুলগুলি বন্ধ থাকবে।  

অন্যদিকে আজ ২৯ মে থেকে দীর্ঘ আড়াই মাস পর অষ্ট্রিয়ার মসজিদ্গুলিতে জুম্মার নামাজ আদায়ের অনুমতি দিয়েছে সরকার  সেই সাথে কিছু শর্ত দিয়েছেন ।শর্তগুলি নিম্নরুপঃ  

 ১) শুক্রবার ২৯ মে থেকে মসজিদে পুনরায় জুম্মার নামাজ আদায় শুরু করা যাবে।        

(২) নামাজ আদায়ে মসজিদের ভিতরে ও বাহিরে মুসল্লীদের সংখ্যার সীমাবদ্ধতা নেই।                       

(৩) ১ মিটার সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে   হবে(নামাজের জায়গা গুলি চিন্হিত করতে হবে)             

(৪) নামাজের জন্য নিজের জায়নামাজ (কার্পেট বা কাপড় নিয়ে আসতে হবে)।                       

(৫) নামাজের সময় মসজিদে মুখ এবং নাকের সুরক্ষা বন্ধনী বা মাস্ক থাকতে হবে।                         

(৬) মসজিদে প্রবেশের দরজায় জীবাণুনাশক থাকতে হবে ।                                                 

(৭) অসুস্থ এবং ঝুঁকিপূর্ণ গ্রুপের অর্থাত্ অতীতে জটিল রোগাক্রান্ত বয়স্ক মানুষের মসজিদে না আসতে পরামর্শ দেওয়া হয়েছে।

উপরোক্ত শর্ত মেনে আজ অষ্ট্রিয়ার বাংলাদেশী বৃহৎ মসজিদ বাংলাদেশ ইসলামিক সেন্টার বাইতুল মোকাররম মসজিদে জুমার নামাজ অনুষ্ঠিত হয় । মসজিদে ইমামতি করেন, বাইতুল মোকাররম মসজিদের ইমাম ও খতিব ডঃ ফারুক আল মাদানি ।

এদিকে আজ শুক্রবার ২৯ মে সন্ধ্যা পর্যন্ত অস্ট্রিয়ান স্বরাষ্ট্র –  মন্ত্রনালয়ের তথ্যমতে,এই পর্যন্ত করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ১৬,৬৫৫ জন এবং মৃত্যু বরণ করেছেন ৬৬৮ জন। আজ নতুন করে সংক্রমিত হয়েছেন ২৭ জন। করোনা থেকে সুস্থ হয়েছেন ১৫,৩৪৭ জন। বর্তমানে মাত্র ১০০ জনের সামান্য বেশি করোনায় আক্রান্ত রোগী হাসপাতালে চিকিত্সাধীন আছেন। বাকী রোগীরা বাসায় চিকিত্সাধীন অবস্থায় আছেন।  

 6,070 total views,  1 views today