অস্ট্রিয়ার ফ্রিডম পার্টি ( FPÖ) প্রধানকে হত্যার হুমকি!

 অন লাইন ডেস্ক থেকে,কবির আহমেদঃ অস্ট্রিয়ার বহুল আলোচিত ও সমালোচিত অস্ট্রিয়ান ফ্রিডম পার্টি প্রধান নরবার্ট হোফার মুসলমানদের পবিত্র ধর্ম গ্রন্থ আল-কোরআনকে করোনভাইরাস থেকে বড় বিপদ হিসাবে বর্ণনা করার পরে তার বিরুদ্ধে ভিয়েনা প্রশাসনের প্রসিকিউটর আদালতে একাধিক মামলা দায়ের করা হয়েছে এবং তাকে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তিরস্কার ও হত্যার হুমকি দেওয়া হয়েছে।

গত ১৬ জুন মঙ্গলবার এফপিও নেতা নরবার্ট হোফার এক দলীয় সমাবেশে তাঁর করোনার চেয়ে আল-কোরআন আরও বিপদজনক বলার পর থেকে সোশ্যাল মিডিয়ায় তার বিরুদ্ধে অসংখ্য অপমানজনক মন্তব্য, তিরস্কার ও মৃত্যুর হুমকি পর্যন্ত দেওয়া হয়েছে। এক বক্তব্যে হোফার তার নিজের বক্তব্য অটুট থেকে বলেন,আমি “পুরোপুরি ভিত্তিহীন কথা বলিনি।” অস্ট্রিয়ান সংবাদ সংস্থা এপিএ কে দেয়া এক সাক্ষাত্কারে, হোফার বলেন আমাকে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে “সবচেয়ে খারাপ পর্যায়ে” তিরস্কার করা হচ্ছে। বিশেষত ফেসবুক, টুইটার বা ইনস্টাগ্রামে বা সরাসরি বার্তার মাধ্যমে মৃত্যুর হুমকি এবং মৌখিক নির্যাতনের কথা জানিয়েছেন।                  

এফপিও কর্তৃক সংবাদ সংস্থা এপিএ-তে জমা দেওয়া অসংখ্য নিবন্ধে দেখা যায় এফপিও নেতাকে “দুশ্চরিত্রের পুত্র” বলা হয়, যিনি “জাহান্নামে পোড়াবেন”। বেশ কয়েকজন ব্যবহারকারী এই আশাও প্রকাশ করেছিলেন যে হোফার “মারা যাবেন”। অন্যরা আরও স্পষ্ট করে লিখেছেন-“যদি একদিন তাকে রাস্তায় মৃত অবস্থায় পাওয়া যায় তবে অবাক হওয়ারকিছু থাকবে না। এপিএ কে হোফার জানান তিনি এই হুমকির ব্যপারে আইনী পদক্ষেপ নিবেন এবং বলেন “কেউ আমাকে হত্যার হুমকি দিলে আমি তা সহ্য করব না।” তিনি আরও বলেন একটি বিভ্রান্ত সম্প্রদায় আমাদের দেশে অরাজকতা সৃষ্টির পায়তার করছে।                              

এদিকে গতকাল বুধবার নরবার্ট হোফারের বক্তব্যের তীব্র প্রতিবাদ ও নিন্দা জানিয়েছেন অস্ট্রিয়ান মুসলিম কমিউনিটির (IGGÖ) প্রেসিডেন্ট উমিত ভুরাল এবং তিনি এই ব্যাপারে ভিয়েনায় প্রশাসনের পাবলিক প্রসিকিউটরে ধর্মীয়অনুভূতিতে আঘাত হানার অভিযোগে মামলা করবেন বলে জানিয়েছেন।

অস্ট্রিয়ার বিভিন্ন মুসলিম সংগঠনও তাদের পবিত্র ধর্ম গ্রন্থ সম্পর্কে এই রকম স্পর্শকাতর বক্তব্যের জন্য তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন। অন্যদিকে অস্ট্রিয়ান জাতীয় কাউন্সিলের প্রাক্তন সদস্যা ও নতুন রাজনৈতিক দল Liste SÖZএর প্রধান মার্থা বিম্যান হোফারের বিরুদ্ধে ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত হানার অপরাধে ভিয়েনার পাবলিক প্রসিকিউটর আদালতে মামলা দায়ের করেছেন বলে সংবাদ সংস্থা এপিএ কে নিশ্চিত করেছেন।

 

 6,247 total views,  1 views today