অস্ট্রিয়ায় করোনা সংক্রমণ বৃদ্ধি পাওয়ায় স্বাস্থ্যমন্ত্রীর সতর্কতা! সুপারমার্কেটে পুনরায় মাস্ক পড়ার অনুরোধ

 অন লাইন ডেস্ক থেকে,কবির আহমেদঃ অস্ট্রিয়ায় করোনা ভাইরাসের আক্রান্তের সংখ্যা ক্রমশ বৃদ্ধি পাওয়ায় উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী রুডলফ আনস্কোবার। তিনি আজ অস্ট্রিয়ান অন লাইন নিউজ Oe24 এর সাথে এক সাক্ষাত্কারে এই উদ্বেগের কথা জানান। তিনি বলেন করোনা ভাইরাস এখনও আমাদের মাঝে বিরাজমান। তিনি সকলকে পুনরায় সুপারমার্কেটে মাস্ক পড়ার অনুরোধ করেছেন।    

তিনি সতর্ক করে বলেন,অনেকেই হয়তোবা ভাবছেন করোনা ভাইরাস আমাদের থেকে শেষ হয়ে গেছে কিন্তু না, ভাইরাসের সক্রিয় উপস্থিতি আমাদের মাঝে এখনও বিরাজমান। এটাকে ছোট করে দেখার কোন অবকাশ নেই। তিনি আরও উল্লেখ করেন যে ব্রাজিল, যুক্তরাজ্য, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, মেক্সিকো বা পেরুতে উদাহরণস্বরূপ, প্রায়প দশ মিলিয়ন সংক্রামিত লোক আছে এবং ৫০০,০০০ মানুষের মারা যাওয়া – সহ আন্তর্জাতিকভাবে পরিস্থিতি উদ্বেগজনক। প্রতিদিন দেড় হাজার নতুন কেস সহ, সংক্রমণের হার আগের চেয়ে দ্রুত বাড়ছে।                       

অস্ট্রিয়া পরিস্থিতি সম্পর্কে এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন,সংক্রমণ বৃদ্ধি পেলেও আমাদের এখানে পরিস্থিতি এখনও স্থিতিশীল। আমরা কৌশলগতভাবেও অনেক ভাল। আমাদের সার্বক্ষণিক প্রস্তুতি, দ্রুত সনাক্ত পরীক্ষা এবং পর্যালোচনার খুব ভালো ব্যবস্থা আছে। এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন সুপারমার্কেটে মাস্ক পড়ার বাধ্যবাধকতা না থাকলেও আমি পুনরায় অনুরোধ করছি সবাইকে মাস্ক পড়ার জন্য। পাবলিক ট্রান্সপোর্টে, পরিষেবাগুলির ক্ষেত্রে যেখানে পর্যাপ্ত দূরত্ব রাখা সম্ভব নয়, ফার্মাসিতে, ডাক্তারদের জন্য, নার্সিং এবং অন্যান্য ক্ষেত্রে, নাক ও মুখের সুরক্ষা এখনও বাধ্যতামূলক। এবং অন্যান্য ক্ষেত্রে মুখোশগুলির উপর নিষেধাজ্ঞা নেই, তবে ব্যক্তিগত দায়বদ্ধতা রয়েছে। তিনি ইঙ্গিত দিয়ে বলেন যে, আমরা পরিস্থিতির উপর সার্বক্ষণিক নজর রাখছি,অবস্থার অবনতি হলে আলোচনা সাপেক্ষে পুনরায় পরবর্তী দিক নির্দেশনা জানানো হবে।                            

অস্ট্রিয়ায় গত ২৪ ঘন্টায় নতুন করে করোনায় সংক্রমিত হয়েছেন ৭৪ জন এবং ২ জন মৃত্যু বরণ করেছেন । এই পর্যন্ত করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ১৭,৬৫৪ জন এবং মৃত্যু বরণ করেছেন ৭০২ জন। করোনা থেকে সুস্থ হয়েছেন ১৬,৪০১ জন। বর্তমানে সক্রিয় রোগীর সংখ্যা ৫৫১ জন। এর মধ্যে আইসিইউ-তে আছেন ৯ জন,হাসপাতালে ৭৮ জন এবং বাকীরা নিজ নিজ বাসায় থেকে চিকিত্সা নিচ্ছেন।

 6,227 total views,  1 views today