স্লোভাকিয়ার মোস্ট ওয়ান্টেড ক্রিমিনাল ভিয়েনায় গ্রেফতার। তার দাবি সে একজন অস্ট্রিয়ান নাগরিক!

 অন লাইন ডেস্ক থেকে,কবির আহমেদঃ অস্ট্রিয়ার প্রতিবেশী স্লোভাকিয়ার “মোস্ট ওয়ান্টেড ক্রিমিনাল” উইলিয়াম এম বর্তমানে ভিয়েনায় ক্রিমিনাল পুলিশের হেফাজতে রয়েছেন। বৃহস্পতিবার তাকে ভিয়েনার কাছে Baden থেকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

ভিয়েনা রিজিওনাল কোর্ট ফর ক্রিমিনাল ম্যাটারস শনিবার ৬৩ বছর বয়সী উইলিয়াম এম কে শুল্কপ্রদান বিষয়ক এক মামলায় গ্রেফতার করে। পরে ফিংগার প্রিন্ট নেওয়ার পর থলের বিড়াল বেরিয়ে আসে।

অস্ট্রিয়ান কর্তৃপক্ষ জানতে পারেন,তার জন্য স্লোভাক কর্তৃপক্ষ ২০১৮ সাল থেকে ইউরোপীয় গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেছেন। আদালতের মুখপাত্র ক্রিস্টিনা সালজবর্ন এপিএকে একথা জানিয়েছেন।

ভিয়েনার ক্রিমিনাল পুলিশের একটি বিশেষ টিম রাজধানী ভিয়েনার পাশ্ববর্তী NÖ প্রদেশের Baden এ তার এক নিকটাত্মীয়ের বাসা থেকে তাকে গ্রেফতার করে।

তাকে স্লোভাকিয়ার সুপ্রিম কোর্ট ২০১৮ সালে ২৩ বৎসরের কারাদন্ডে দন্ডিত করেছিল। কারণ সে ২০০৯ সালে পশ্চিম স্লোভাক শহর টপলকানির একটি কারখানাকে এক কেজি পরিমাণ বিস্ফোরক দ্রব্য টিএনটি দিয়ে উড়িয়ে দিয়েছিল। এই নাশকতামূলক কর্মকাণ্ডে ১ জন নিহত এবং কয়েকজন গুরুতর আহত হয়েছিলেন।

স্লোভাকিয়ার মিডিয়ার খবরে বলা হয়েছে, উইলিয়াম এম সম্ভবত কয়েক দশক ধরে অপরাধমূলক কর্মকাণ্ডে জড়িত হয়ে মাফিয়া ডন হিসাবে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করেছেন। ২০০৪ সালে স্লোভাকিয়ার রাজধানী ব্রাতিস্লাবাতে তৎকালীন মাফিয়া ডন পিটার কংগ্রেডিকে হত্যা সহ আরও ৫ জনকে হত্যার অভিযোগ রহিয়াছে।

তাছাড়াও ১৯৯৬ সালের প্রথমদিকে উইলিয়াম এম, লক্ষ লক্ষ মূল্যবান লুটসহ দর্শনীয় ব্যাংক ডাকাতির সাথে জড়িত ছিলেন বলে জানা যায়।

বর্তমানে উইলিয়াম এম অস্ট্রিয়ান নাগরিক হওয়ায় তাকে স্লোভাকিয়ায় হস্তান্তর করা হবে কি না এ ব্যাপারে সন্দেহ দেখা দিয়েছে। সূত্র জানায় যদি অস্ট্রিয়া সরকার তাকে স্লোভাকিয়ার কাছে হস্তান্তর না করে তবে তার বিগত অপরাধের বিচারে আজীবন কারাগারেই কাটাতে হবে।

 5,706 total views,  1 views today