অস্ট্রিয়ান সরকার করোনার দ্বিতীয় সম্ভাব্য আক্রমণের প্রস্ততি নিচ্ছেন!

 অন লাইন ডেস্ক থেকে,কবির আহমেদঃ অষ্ট্রিয়ার প্রতি রাজ্যের জেলায় জেলায় জোন ভিত্তিক এলাকা চিন্হিত করে ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে জানান স্বাস্থ্যমন্ত্রী রুডল্ফস আনসকোবার । শুক্রবার সন্ধায় অস্ট্রিয়ার সরকার প্রধান সেবাস্তিয়ান কুর্জ,স্বাস্থ্যমন্ত্রী এবং অস্ট্রিয়ার ৯টি রাজ্যের গভর্নরদের মধ্যে এক ভিডিও কনফারেন্স অনুষ্ঠিত হয়েছে। ভিডিও কনফারেন্সে করোনার দ্বিতীয় তরঙ্গের বিরুদ্ধে যথাযথ প্রস্ততি নেয়ার বিষয়ে সকলে অভিন্ন মত প্রকাশ করেছেন।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী সকলকে সরকারের গৃহীত ট্র্যাফিক লাইট সিস্টেমের বিষয়টি অবহিত করেন। অর্থাৎ করোনার আক্রান্তের প্রকোট অনুযায়ী লাল,কমলা,হলুদ ও সবুজ অঞ্চল চিন্হিত করা এবং বিপদজনক এলাকা লক ডাউন করা। প্রস্তাবটি তাৎক্ষণিকভাবে সমর্থন করে Kärnten এর গভর্নর পিটার কাইজার বলেন,তিনি গত মে মাসেই এই জোন ভিত্তিক এলাকা চিন্হিত করার প্রস্তাব দিয়েছিলেন। পরে Oberösterreich ও Tirol এর গভর্নরাও এই প্রস্তাবের পক্ষে তাদের সমর্থন জানান।                          

আজ সরকার প্রধান সেবাস্তিয়ান কুর্জ এক টুইট বার্তায় অস্ট্রিয়ার জনগণের উদ্দ্যেশ্যে অনুরোধ করে বলেন এখন যেহেতু গ্রীষ্মের ছুটি পুরো অস্ট্রিয়া জুড়ে শুরু হয়েছে তাই আপনারা ছুটির সময়ে যে যেখানেই থাকেন না কেন সকলেই করোনার সংক্রমণের সতর্কতামূলক ব্যবস্থা সমূহের প্রতি যত্নবান হবেন। তিনি বলেন করোনা ভাইরাস এখনও আমাদের মাঝে সক্রিয়ভাবে বিরাজমান আছে। আমরা দেশের অর্থনৈতিক মন্দা পুনরুদ্ধার এবং অনেকের অনুরোধে করোনায় আরোপিত বিধিনিষেধ শিথিল করলেও এর মানে এই না যে আপনারা সম্পূর্ণ অসতর্কতার সাথে চলাফেরা করবেন। প্রত্যেককেই তার নিজের নিরাপত্তা নিশ্চিত করে চলতে হবে।                       

 

গত প্রায় এক সপ্তাহ যাবৎ অস্ট্রিয়ায় কেহ করোনায় মৃত্যু বরণ করেন নি। আজ নতুন করে সংক্রমিত হয়েছেন ৭৪ জন। অস্ট্রিয়ায় এই পর্যন্ত করোনায় মোট আক্রান্তের সংখ্যা ১৮,৭৮৩ জন এবং মৃত্যু বরণ করেছেন ৭০৬ জন। করোনা থেকে সুস্থ হয়েছেন ১৬,৮৬৪ জন। বর্তমানে সক্রিয় করোনায় আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা ১,২১৩ জন। এর মধ্যে আইসিইউতে আছেন ৯ জন এবং হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন ৭৮ জন। বাকী আক্রান্ত রোগীরা নিজ নিজ বাসায় থেকে চিকিৎসা সেবা নিচ্ছেন।

 7,264 total views,  1 views today