এই বৎসরের শেষের দিকে বাজারে আসছে করোনার টিকা বা ভ্যাকসিন!

 অন লাইন ডেস্ক থেকে,কবির আহমেদঃ  ফার্মাসিউটিক্যাল সংস্থা আস্ট্রা জেনেকা এই বৎসরের শেষ নাগাদ বাজারে করোনা ভাইরাসের ভ্যাকসিন ছাড়ার কথা ঘোষণা দিয়েছেন। প্রতিটি করোনভাইরাস ভ্যাকসিনের দাম ২.৫০ ইউরো পাওয়া যাবে বলে জানানো হয়েছে।        

ফ্রান্স ভিত্তিক ফার্মাসিউটিক্যাল সংস্থা আস্ট্রাজেনেকা বছরের শেষ নাগাদ একটি করোনভাইরাস ভ্যাকসিন চালু করার পরিকল্পনা করছে। মঙ্গলবার ফরাসি  রেডিও স্টেশন আরটিএলকে এই সংস্থার প্রধান প্যাসকাল সরিওট জানিয়েছেন, বিশ্বব্যাপী এটি অতি সুলভমূল্যেই বাজারজাত করা হবে। আমরা চেষ্টা করবো প্রতিটি  ভ্যাকসিন বা টিকার মূল্য মাত্র € ২.৫০ ইউরোর মধ্যে রাখতে। প্যাসকাল সরিওট আরও বলেন, “আমাদের প্রধান লক্ষ্য ভ্যাকসিনটি বিশ্বব্যাপী সবার কাছে সহজলভ্য করে তোলা।” “সবকিছু ঠিকঠাক থাকলে একটু আগেও বাজারে আসতে পারে”। কেবল সোমবারেই “দ্য ল্যানসেট” ম্যাগাজিনের একটি গবেষণায় অ্যাস্ট্রাজেনিকা এবং যুক্তরাজ্যের অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয় যৌথ গবেষণার ফল বিশ্বব্যাপী করোনা মহামারীর থেকে পরিত্রাণের আশার আলো জাগিয়ে তুলেছে।                                 

প্রথম দুইটি পরীক্ষার সিরিজে সফলতা পাওয়া গেছে। ভ্যাকসিন প্রয়োগে শরীরে ভালভাবে সহ্য করার ক্ষমতা প্রমাণিত হয়েছে এবং ফুসফুস রোগ কোভিড -১৯ এর বিরুদ্ধে শরীরে অ্যান্টিবডি গঠন নিশ্চিত হয়েছে। তৃতীয় পরীক্ষার ফলাফল আগামী সেপ্টেম্বর মাসে পাওয়া যাবে। তবে সংক্রমণ বিশেষজ্ঞরা সফলতার ব্যাপারে নিশ্চিত আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন।

এদিকে, একটি চীনা টিকা প্রস্তুতকারক প্রতিষ্ঠান মঙ্গলবার ব্রাজিলে তার ওষুধ পরীক্ষার তৃতীয় পর্ব শুরু করেছে। সাও পাওলোর একটি হাসপাতালের একজন চিকিত্সকের মতে, প্রথম স্বেচ্ছাসেবীদের উপর ভ্যাকসিন প্রয়োগ করা হয়েছিল, “ল্যানসেট” এর রিপোর্ট অনুসারে প্রথম দুটি ধাপে এর কার্যকারিতা প্রমানিত হয়েছে।                                               

আজ অস্ট্রিয়ায় নতুন করে করোনায় সংক্রমিত হয়েছেন ১০২ জন এবং ১ জন মৃত্যুবরণ করেছেন। এই পর্যন্ত মোট আক্রান্তের সংখ্যা ১৯,৯২৯ জন এবং মৃত্যুবরণ করেছেন ৭১১ জন। করোনার থেকে আরোগ্য লাভ করেছেন ১৭,৮৪৯ জন। বর্তমানে সক্রিয় রোগীর সংখ্যা ১,৩৮৬ জন। এর মধ্যে আইসিইউতে আছেন ১৮ জন এবং হাসপাতালে আছেন ১১৪ জন। বাকীরা নিজ বাসায় আইসোলেশনে আছেন।

 6,639 total views,  1 views today