ক্রোয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী করোনায় আরও সতর্কতা অবলম্বনের আহ্বান জানিয়েছেন

 অন লাইন ডেস্ক থেকে, কবির আহমেদঃ ক্রোয়েশিয়া থেকে ফিরছে হাজার হাজার অস্ট্রিয়ান। ক্রোয়েশিয়ান প্রধানমন্ত্রী আন্দ্রেয়িয়াস প্লেনকোভিস তার দেশে করোনার সংক্রমণ অব্যাহত বৃদ্ধির ফলে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন। তিনি স্বাস্থ্যমন্ত্রনালয় ও জনগণকে করোনার এই দ্বিতীয়বারের প্রাদুর্ভাবে পূর্বের মতোই সতর্কতামূলক ব্যবস্থা গ্রহনের আবেদন করেছেন। বর্তমানে ক্রোয়েশিয়ায় প্রতিদিনের সংক্রমণ ২০০ এর উপরে রয়েছে।                                                

প্লেনকোভিস আরও বলেন, অস্ট্রিয়া এবং স্লোভেনিয়ার সাথে ভ্রমণের সতর্কতার বিষয়ে আলোচনা হয়েছে। এই দেশগুলি তাদের পরিসংখ্যানের তথ্যের ভিত্তিতে সমস্যাটি মূল্যায়ন করবে। তারা ক্রোয়েশিয়ায় অবকাশ যাপনের পর ফেরত লোকের করোনার টেস্ট ও সংখ্যা গণনা করবে বলে জানিয়েছেন। অস্ট্রিয়ার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের উদ্ধৃতি দিয়ে বার্তা সংস্থা এপিএ জানায় অস্ট্রিয়া ক্রোয়েশিয়া ভ্রমণের উপর বিধিনিষেধ প্রত্যাহার করার পর এই পর্যন্ত প্রায় ৪০,০০০ অস্ট্রিয়ান নাগরিক বা অস্ট্রিয়ায় বসবাসকারী অভিবাসী ক্রোয়েশিয়ায় অবকাশ যাপনের জন্য গিয়েছেন।                                                           

সোমবার ১৭ আগস্ট থেকে অস্ট্রিয়া ক্রোয়েশিয়া ভ্রমণের উপর নিষেধাজ্ঞা জারি করেছেন। আর যারা ক্রোয়েশিয়ায় অবস্থান করছেন তাদেরকে জরুরী ভিত্তিতে অস্ট্রিয়ায় ফেরত আসার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। এর ফলে অস্ট্রিয়ার দক্ষিণে Kärnten রাজ্যের স্লোভেনিয়ার সীমান্তে প্রচন্ড যানজটের সৃষ্টি হয়েছে। সীমান্তে দায়িত্বরত একজন সামরিক কর্মকর্তা অন লাইন পোর্টাল Oeb24 এর সাথে এক সাক্ষাৎকারে বলেন শুধুমাত্র শনিবার ক্রোয়েশিয়া থেকে ফেরত ৩৫০ জনকে কোয়ারেন্টাইনে পাঠানো হয়েছে। বার্তা সংস্থার খবরে আরও বলা হয়েছে ভিয়েনার প্রাতার স্টেডিয়ামে স্থাপিত অস্থায়ী করোনার ফ্রি টেস্ট সেন্টার রাত ১:৩০ মিনিট পর্যন্ত খোলা রাখার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। সেখানে রবিবার পর্যন্ত ক্রোয়েশিয়া থেকে ফেরত প্রায় ৭০০ শত মানুষের করোনার টেস্ট সম্পন্ন হয়েছে। অস্ট্রিয়া সরকার ক্রোয়েশিয়া থেকে ফেরত সকলকে করোনার টেস্ট বাধ্যতামূলক ও ফ্রি ঘোষণা করেছেন।                                                         

এদিকে সোমবার ১৭ আগস্ট অস্ট্রিয়ার স্বাস্থ্য মন্ত্রনালয়ের নিয়মিত করোনার প্রেস ব্রিফিংয়ে বলা হয়েছে আজ নতুন করে সংক্রমিত হয়েছেন ১৬৪ জন এবং একজন মৃত্যুবরণ করেছেন। এই পর্যন্ত মোট আক্রান্তের সংখ্যা ২৩,৫৩৪ জন এবং মৃত্যুবরণ করেছেন ৭২৯ জন। করোনার থেকে আরোগ্য লাভ করেছেন ২০,৭৬৫ জন। বর্তমানে করোনার সক্রিয় রোগীর সংখ্যা ২,০৪০ জন। এর মধ্যে আইসিউতে আছেন ২৩ জন এবং হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন ৮১ জন। বাকীরা যার যার বাড়িতে আইসোলেশনে আছেন।

 6,771 total views,  1 views today