জার্মানিতে করোনার দ্বিতীয় প্রাদুর্ভাবের আশঙ্কার কথা জানালেন চ্যান্সেলর আঙ্গেলা ম্যার্কেল !

 আন্তর্জাতিক ডেস্ক থেকে, কবির আহমেদঃ করোনা ভাইরাসের মহামারী জার্মানিতে শরৎকালে আরো খারাপ রূপ নিতে পারে বলে সতর্ক করে দিয়েছেন জার্মানির চ্যান্সেলর আঙ্গেলা ম্যার্কেল৷ তিনি বলেন যতদিন না করোনার ভ্যাকসিন আবিষ্কৃত না হয়,ততদিন আমাদের পূর্বের মতো স্বাভাবিক অবস্থায় ফিরে যাওয়া যাবে না বলে উল্লেখ করেছেন।

শুক্রবার ম্যার্কেল বলেছেন আগামী মাসগুলোতে করোনা পরিস্থিতি আরো খারাপ হতে পারে৷ তিনি বিষয়টিকে গুরুত্বের সঙ্গে বিবেচনার জন্য দেশটির জনগণের প্রতি আহবান জানিয়েছেন৷ বার্লিনে এক সংবাদ সম্মেলনে ম্যার্কেল বলেন, ‘‘এটা খুবই গুরুতর৷ যতটা আগে ছিল ততটাই৷ এবং এটিকে গুরুত্বের সঙ্গে নিন ৷’’

করোনা নিয়ন্ত্রণে আসার পর গত জুলাই থেকে কিছু বিধিনিষেধ শিথিল করে জার্মান সরকার৷ কিন্তু সম্প্রতি ভাইরাসের প্রকোপ আবারও ছড়িয়ে পড়তে শুরু করেছে দেশটিতে৷ জার্মানির রোগ নিয়ন্ত্রণ প্রতিষ্ঠান রবার্ট কখ ইনস্টিটিউটের পরিসংখ্যান অনুযায়ী, গত এক সপ্তাহে নতুন করে আট হাজারের উপরে মানুষ আক্রান্ত হয়েছেন৷ বর্তমানে প্রতিদিন প্রায় হাজারের কাছাকাছি মানুষ নতুন করে সংক্রমিত হচ্ছে।

ম্যার্কেল জানান, শিশুরা যাতে এই মহামারীতে ক্ষতিগ্রস্থ না হয়,তার জন্য স্কুল ও ডে কেয়ার সেন্টারগুলোতে নতুন ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে ইঙ্গিত দেন তিনি৷ করোনার ভ্যাকসিন আবিস্কারের চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে বিভিন্ন দেশ ৷ প্রতিষেধক পেতে যেসব প্রতিষ্ঠান কাজ করছে তাদের সঙ্গে চুক্তির চেষ্টা চলছে বলে জানান ম্যার্কেল ৷ তবে যতদিন না টিকা পাওয়া যায় ততদিন আগের জীবন যাত্রায় ফেরা যাবে না বলেও সতর্ক করেন তিনি ৷

ম্যার্কেল সতর্কবার্তা দিলেও গত কয়েক সপ্তাহ ধরে বিদ্যমান সরকারি বিধিনিষেধগুলোর বিরুদ্ধে বিভিন্ন শহরে বিক্ষোভ করেছেন মানুষ ৷ স্বাস্থ্য ঝুঁকি বিবেচনায় এই ধরনের বিক্ষোভের উপরে গত সপ্তাহে নিষেধাজ্ঞা দিয়েছিল বার্লিন পুলিশ ৷ কিন্তু জার্মানির একটি প্রশাসনিক আদালত শুক্রবার এই সিদ্ধান্তের বিপক্ষে রায় দিয়েছে ৷

জার্মানির বার্লিনে শনিবার ১৮ হাজার মানুষ করোনাবিরোধী এক বিশাল বিক্ষোভ মিছিলে যোগ দেন। কিন্তু সামাজিক দূরত্ব উপেক্ষা করায় ও স্বাস্থ্যবিধি না মানায় পুলিশ ইনজাংশন জারি করে ওই বিক্ষোভ মিছিলটি পণ্ড করে দেয়। পুলিশের দাবী মানুষ করোনা বিরোধী মিছিল করছে, অথচ কেউ করোনার বিধিনিষেধ মানছেন না। অগত্যা তাদের ওই বিক্ষোভ মিছিলটি পণ্ড করে দিতে হয়েছে।

মিছিলে বাধা দেয়ায় বিক্ষোভকারীরা পুলিশের সমালোচনা করে শ্লোগান দেয় এবং জাতীয় সঙ্গীত গায়। কট্টর ডানপন্থীরা ওই বিক্ষোভ মিছিলের আয়োজন করে। পুলিশের সাফ কথা মাস্ক না পরলে এবং সামাজিক দূরত্ব না মানলে কোনো ভাবেই জনসমাবেশ করতে দেয়া হবে না।

জার্মানিতে এই পর্যন্ত মোট করোনার আক্রান্তের সংখ্যা ২,৪২,৮২৪ জন এবং মৃত্যুবরণ করেছেন ৯,৩৬৩ জন। করোনা থেকে সুস্থতা লাভ করেছেন ২,১৭,০৬১ জন মানুষ। বর্তমানে শনিবার পর্যন্ত সক্রিয় রোগীর সংখ্যা ১৬,৪০০ জন।

 

 7,369 total views,  1 views today