দ্বিতীয় লক ডাউনের পথে অস্ট্রিয়া ! আজ জাতীয় সংসদে আসছে করোনার নতুন প্যাকেজ

পারিবারিক সাহায্য (Familienbeihilfe) বাড়ানোর প্রস্তাব করা হয়েছে

 অন লাইন ডেস্ক থেকে,কবির আহমেদঃ অস্ট্রিয়ার জাতীয় পার্লামেন্টের আজকের সম্পূর্ণ অধিবেশন করোনা সম্পর্কিত হবে বলে সংসদ সূত্রের বরাত দিয়ে সংবাদ মাধ্যমে বলা হয়েছে। সূত্র আরও জানায়,আজ অস্ট্রিয়ায় দ্বিতীয়বারের মত লকডাউন বিষয়ে আলোচনা হবে বলে জানা গেছে।

গ্রীষ্মের বিরতির পরে জাতীয় সংসদের প্রথম নিয়মিত আজকের পূর্ণ দিবসটি প্রায় একচেটিয়াভাবে করোনার ব্যবস্থা বিষয়ক বলে জানা গেছে। পারিবারিক সাহায্য তহবিল বৃদ্ধি এবং বিশেষ যত্নের সময়কাল বাড়ানো হবে। তদ্ব্যতীত, সাধারণ অনুশীলনকারীদের দ্বারা করোনার ট্র্যাফিক লাইট এবং পরীক্ষাগুলি একটি আইনী ভিত্তি দেওয়া হবে।

সূত্র আরও জানায়,আজকের করোনার প্যাকেজের আরেকটি বিষয় হ’ল মহামারীজনিত কারণে সম্ভাব্য পরবর্তী লকডাউন। তবে অনেক বিশেষজ্ঞের মতে অস্ট্রিয়ায় দ্বিতীয়বারের মত লক ডাউন দশ দিনের মধ্যে সীমাবদ্ধ হওয়া উচিত। প্রকৃতপক্ষে,লক ডাউনে পূর্বের মতোই ব্যক্তিগত থাকার জায়গাগুলি বাদে শহরে প্রবেশপথ বন্ধ করে দেওয়া তবে নিত্যপ্রয়োজনীয় মালামাল ব্যবসায়ের উদ্দেশ্যে শহরে প্রবেশের অনুমতি, তাত্ক্ষণিক বিপদ এড়াতে, সহায়তার প্রয়োজন ব্যক্তিদের দেখাশোনা করার জন্য এবং “শারীরিক ও মানসিক স্বাচ্ছন্দ্যের জন্য” বাড়ি ছেড়ে যাওয়ার অনুমতি দেওয়া হবে।

প্রাদেশিক গভর্নর এবং জেলা প্রশাসনিক আধিকারিদের আরও বিশেষ ক্ষমতা প্রদান করা হবে যাতে আঞ্চলিকভাবে তারা ফেডারাল সরকারের চেয়ে দ্রুত ও কঠোর নিয়ম চালু করতে পারেন। পারিবারিক কষ্ট তহবিল বৃদ্ধি করা হয়েছে, বিশেষ যত্নের সময়কাল ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত বাড়ানো হয়েছে। নিয়োগকর্তার সম্মতিতে, এটি যত্নের ছুটি ছাড়াও, যত্নের কারণে (শিশু, যত্নশীল, প্রতিবন্ধী ব্যক্তি), যেমন, কিন্ডারগার্টেন বন্ধ থাকলে, প্রয়োজনে মোট তিন সপ্তাহ কাজ থেকে দূরে থাকা সম্ভব করে তোলে। ভবিষ্যতে, রাজ্য কেবল এক তৃতীয়াংশই নয়, মজুরির ব্যয়ের অর্ধেকও ধরে নেবে।

পরিবার ভাতার অতিরিক্ত আয়ের সীমা ১০,০০০ থেকে বাড়িয়ে ১৫,০০০ ইউরো করা হবে। এছাড়াও, করোনভাইরাস পরিবার কষ্ট তহবিল ৬০ মিলিয়ন থেকে বেড়ে ১০০ মিলিয়নে উন্নীত করা হবে।

 9,077 total views,  1 views today