অস্ট্রিয়ান সংসদ সদস্যকে গ্রেফতার করতে AUA এয়ারক্র্যাফটে করোনা পুলিশ !

 অন লাইন ডেস্ক থেকে,কবির আহমেদঃ আজ জাতীয় সংসদের বিশেষ অধিবেশনে যোগ দিতে Innsbruck থেকে ভিয়েনায় আসছিলেন অস্ট্রিয়ার Tirol রাজ্যের বিরোধী দল FPÖ এর একজন মাননীয় সংসদ সদস্য Peter Wurm.তিনি বিমানে পানি পান করার জন্য মাস্ক খুলেন কিন্ত পানি পান করার পর মাস্ক না পড়ায় স্টুয়ার্ড তার সাথে বাকবিতন্ডায় জড়িয়ে পড়েন। এক পর্যায়ে স্টুয়ার্ড ভিয়েনা বিমান বন্দর পুলিশকে ইনফর্ম করলে,পুলিশ করোনা আক্রান্ত ভেবে পুরোপুরি সুরক্ষা ব্যবস্থা নিয়েই বিমানে প্রবেশ করে। পরে পুলিশ তখন জানতে পারেন তিনি একজন জাতীয় সংসদ সদস্য এবং তারপর ভুল বোঝাবুঝির অবসান হয়।

অস্ট্রিয়ার দৈনিক পত্রিকা Kronen Zeitung এর সাথে এক সাক্ষাৎকারে সংসদ সদস্য Peter Wurm বলেন, “আমাকে বিমানে গ্রেফতার করা হয়েছিল। তবে পুলিশ অফিসাররা তাদের দ্রুত দায়িত্ব পালন করেছেন এবং তারা তাদের কর্তব্য যথাযথভাবে পালন করছেন। যাই হোক না কেন, এই নিয়ে আর কোন বাড়াবাড়ির দরকার নেই।

অবশ্য তিনি বিমানের ক্যাবিন ক্রুরদের আচরণে ক্ষোভ প্রকাশ করেন। তিনি জানান,তারা আমার সাথে এমন আচরণ করেছেন যেন আমি একজন সন্ত্রাসী, মুখোশ সন্ত্রাসী! আমি কেবল ফ্লাইটে পানির বোতল পান করার জন্য মুখ এবং নাকের সুরক্ষা টেনে নামিয়েছিলাম। তারপরই তাদের একজন এসে আমাকে ধমকাতে থাকেন,একজন যাত্রী হিসাবে তারা আমার সাথে অপরাধীর মতো আচরণ করেছেন। অথচ এই কিছুদিন পূর্বেই তাদের জন্য করোনাকালীন সাহায্য প্যাকেজে ৬০০ মিলিয়ন সরকারী অনুদানে আমিও সমর্থন দিয়েছিলাম। তাছাড়াও বিমানটির অর্ধেক ফাঁকা ছিল, আমার আশে পাশের সব সিটই খালি ছিল।

এই প্রসঙ্গে অস্ট্রিয়ান এয়ারলাইন্সের মুখপাত্র Tanja Gruber বলেন, উদ্ভূত পরিস্থিতির জন্য আমরা দুঃখিত। তারপর তিনি জানান,বিমানে যাত্রীদের মাস্ক পড়া নিয়ে আমাদের ক্যাবিন ক্রুদের প্রায়ই এইরকম বিড়ম্ভনায় পড়তে হয়। তিনি বিমান যাত্রীদের উদ্দেশ্যে বলেন, বর্তমানে করোনা মহামারীর জন্য বিমানে মুখোশ পড়ার বাধ্যবাধকতাটি আমাদের বিমান চলার শর্তে যুক্ত করে দেওয়া হয়েছে। একটি বিমানের টিকিট ক্রয়ের সাথে সাথেই আপনি বিমানে মাস্ক পড়তে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ।

 

 8,847 total views,  1 views today