করোনায় অস্ট্রিয়ার অর্থনীতি দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের পর এই প্রথম পুনরায় চরম মন্দার মুখোমুখি !

অস্ট্রিয়ার বেসরকারী রেলসংস্থা Westbahn এর ১০০ জন কর্মী চাকরী হারাতে যাচ্ছেন!

 অন লাইন ডেস্ক থেকে,কবির আহমেদঃ করোনাভাইরাস মহামারীতে অস্ট্রিয়ার অর্থনীতি আগের বৎসরের একই প্রান্তিকের তুলনায় ২০২০ সালের দ্বিতীয় প্রান্তিকে ১৪.৩ শতাংশ হ্রাস পেয়েছে। দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের পর অস্ট্রিয়ার অর্থনীতি বর্তমানে পুনরায় সবচেয়ে বেশী মন্দার মুখোমুখি হয়ে পড়েছে।

করোনাভাইরাস মহামারীতে অস্ট্রিয়ার অর্থনীতি আগের বছরের একই প্রান্তিকের তুলনায় ২০২০ সালের দ্বিতীয় প্রান্তিকে ১৪.৩ শতাংশ হ্রাস পেয়েছে। ‘পরিসংখ্যান অস্ট্রিয়া’ সোমবার এর জন্য প্রাথমিক গণনা ঘোষণা করেছে। আগের ত্রৈমাসিকের তুলনায়, আসল পদে মোট দেশীয় পণ্য (জিডিপি) বিয়োগ, অর্থাৎ মৌসুমে এবং কার্যদিবসের সামঞ্জস্য ছিল ১২.১ শতাংশ। পরিসংখ্যান অস্ট্রিয়ার মহাপরিচালক টোবিয়াস থমাস বলেছেন, “দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের পর থেকে এটি সবচেয়ে তীব্র পতন।”

লকডাউনের পরের তিন মাসের মধ্যে, বিশেষত পরিষেবা খাতের বড় অংশগুলিতে COVID-19 ধারণ করার ব্যবস্থাগুলি পরিষ্কার চিহ্ন রেখে গেছে। আগের বছরের একই প্রান্তিকের তুলনায় ৬১.১ শতাংশ এবং আগের ত্রৈমাসিকের তুলনায় ৬২,২ শতাংশ সবচেয়ে বেশী প্রকৃত হ্রাস তাই আবাসন ও ক্যাটারিং সেক্টরের জন্য দায়ী ছিল। তারপরে বিনোদন ও সংস্কৃতি খাত রয়েছে, যা আগের বছরের একই প্রান্তিকের তুলনায় ৩৫.৩ শতাংশ এবং আগের প্রান্তিকের তুলনায় ২৭,০ শতাংশ কমেছে।

অস্ট্রিয়ান সংবাদ সংস্থা এপিএ জানায়, অস্ট্রিয়ার বেসরকারী রেল সংস্থা Westbahn জানিয়েছেন,যে অস্ট্রিয়ান সরকার অর্থাৎ পরিবহন মন্ত্রণালয় কোনও সহায়তা না দিলে তারা বাধ্য হয়ে তাদের ১০০ জন কর্মচারী ছাঁটাই করতে বাধ্য হবে। Westbahn আশা করছে পরিবহন মন্ত্রনালয় রেল ট্র্যাফিক বজায় রাখতে এবং কাজের ক্ষতি রোধ করতে চলমান সমস্যা সমাধানে তাদের সাথে আলোচনায় বসবে।

Westbahn রেলওয়ে সাধারণত ভিয়েনা-সালজবুর্গ রুটে তাদের ট্রেন পরিচালনা করে। এই সার্ভিসের জন্য তারা সাধারণত কোনও রাষ্ট্রীয় আর্থিক সহযোগিতা পায় না। এমনকি অস্ট্রিয়ান রাস্ট্রীয় রেলওয়ে ÖBB থেকেও। তবে আশা করা হচ্ছে শীঘ্রই অস্ট্রিয়ান সরকারের পক্ষ থেকে তাদের সাথে সমস্যা সমাধানের জন্য আলোচনা অনুষ্ঠানের প্রস্তাব দেওয়া হবে।

এদিকে আজ অস্ট্রিয়ায় নতুন করে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ৫৫৬ জন এবং ৩ জন মৃত্যুবরণ করেছেন। আজ রাজধানী ভিয়েনায় সংক্রমিত হয়েছেন ২৪২ জন এবং বর্তমানে সক্রিয় রোগীর সংখ্যা ৪,৫৩৮ জন।

এই পর্যন্ত অস্ট্রিয়ায় মোট করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ৪৩,৪৩২ জন এবং মৃত্যুবরণ করেছেন ৭৯০ জন। করোনার থেকে আরোগ্য লাভ করেছেন ৩৪,০৫২ জন। বর্তমানে করোনার সক্রিয় রোগীর সংখ্যা ৮,৫৯০ ,জন। এর মধ্যে ক্রিটিক্যাল অবস্থায় আছেন ৮৮ জন এবং হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় আছেন ৪৬৯ জন। বাকীরা নিজ নিজ বাড়িতে আইসোলেশনে আছেন।

 

 9,165 total views,  1 views today