করোনার সংক্রমণ বাড়লেও অস্ট্রিয়া দ্বিতীয় লকডাউনে যাবে না – ব্রাসেলসে সেবাস্তিয়ান কুর্জ

 আন্তর্জাতিক ডেস্ক থেকে,কবির আহমেদঃ অস্ট্রিয়ার সরকার প্রধান চ্যান্সেলর সেবাস্তিয়ান কুর্জ বেলজিয়ামের রাজধানী ব্রাসেলসে দুই দিনের শীর্ষ সম্মেলনের শেষ দিনে শুক্রবার সন্ধ্যায় তিনি তার বক্তব্যে একথা বলেন।

ইউরোপীয় ইউনিয়নের দেশগুলি আবারও করোনার সঙ্কটে আরও ঘনিষ্ঠভাবে একসাথে কাজ করার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন। ব্রাসেলসে দু’দিনব্যাপী ইইউ শীর্ষ সম্মেলন শেষে শুক্রবার কাউন্সিলের সভাপতি চার্লস মিশেল বলেন, “কোভিড -১৯ এর সাথে কাজ করার ক্ষেত্রে আমাদের সামগ্রিক সমন্বয় জোরদার করতে হবে।”

চ্যান্সেলর সেবাস্তিয়ান কুর্জও তার বক্তব্যে মহামারী করোনার বিরুদ্ধে আরও ভাল সহযোগিতা নিয়ে ইইউয়ের আলোচনার পরে আরও অভিন্নতার দাবি জানান। তিনি স্পষ্ট জানিয়ে দিয়েছিলেন যে ভ্রমণের জন্য অবশ্যই অভিন্ন বিধি থাকতে হবে। করোনাকালীন এই গ্রীষ্মে ইউরোপীয় ইউনিয়নের দেশগুলি যথাযথ বিধিনিষেধ মেনে ইতিমধ্যে দেখিয়েছে যে,মহামারীর মধ্যেও “ভ্রমণ সম্ভব”। তবে যথাযথ বিধিনিষেধ মেনে চলা এর জন্য পূর্বশর্ত।

কুর্জ আরও জোর দিয়ে বলেন যে অস্ট্রিয়ায় দ্বিতীয় লকডাউনটি যে কোনও মূল্যে আমরা প্রতিহত করবো যদিও সংক্রমণ আশঙ্কাজনকভাবে বৃদ্ধি পাচ্ছে। পরে “শুক্রবার চ্যান্সেলর তার টুইটারে টুইট করে লিখেন, যে “লকডাউনের মতো পরিস্থিতি নিয়ে অন্যান্য রাজ্যে ইতিমধ্যে বিশাল বিধিনিষেধ রয়েছে। আমরা অস্ট্রিয়ায় দ্বিতীয় লকডাউন প্রতিরোধ করতে চাই। “

আজ অস্ট্রিয়ায় নতুন করে ১,০৫৮ জনের শরীরে করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ সনাক্ত ও ৬ জনের মৃত্যুতে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী রুডল্ফ আনস্কোবার। তিনি এক সাক্ষাৎকার বলেন,ক্রমবর্ধমান সংক্রমণ বৃদ্ধিতে আমরা উদ্বিগ্ন। তিনি আরও জানান, স্বাস্থ্যমন্ত্রনালয়কে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে যাতে করোনার পরীক্ষা আরও দ্রুত সম্পন্ন করে আক্রান্তদের তড়িৎ পৃথক করা যায়।

অস্ট্রিয়ায় এই পর্যন্ত মোট করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ৪৭,৪৩২ জন এবং মৃত্যুবরণ করেছেন ৮০৯ জন। করোনার থেকে আরোগ্য লাভ করেছেন ৩৮,০৪৫ জন। বর্তমানে করোনার সক্রিয় রোগীর সংখ্যা ৮,৫৭৮ জন। এর মধ্যে আইসিইউতে আছেন ৯৭ জন এবং হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন ৪৯৪ জন। বাকীরা নিজ নিজ বাসায় আইসোলেশনে আছেন।

 

 9,223 total views,  1 views today