রাত পোহালেই ভিয়েনায় সিটি কাউন্সিলর ও রাজ্য নির্বাচন !

নিউজ ডেস্ক থেকে,কবির আহমেদঃ রাত পোহালেই অর্থাৎ আগামীকাল রবিবার ১১ অক্টোবর ভিয়েনায় পৌরসভা ও জেলা পরিষদ নির্বাচন। ভোট গ্রহণ শুরু হবে সকাল ৭ টায় এবং শেষ হবে বিরতিহীন ভাবে বিকাল ৫ টা পর্যন্ত। ভোট প্রদান শেষ হওয়ার সাথে সাথেই ভোট গণনার কাজ শুরু হবে। ২ থেকে ৩ ঘন্টার মধ্যে মধ্যে নির্বাচনের প্রাথমিক বেসরকারী ফলাফল ঘোষণা করা হবে। এই বৎসর ভিয়েনায় ভোটারের সংখ্যা ১৩ লক্ষ ৬২ হাজার ৭৯৫ জন। এর মধ্যে ৩ লক্ষ ৪০ হাজার মানুষ পোস্টের মাধ্যমে ভোট দেওয়ার জন্য আবেদন করেছেন।

আগামীকালের নির্বাচনের পূর্বে আমরা এখন ভিয়েনার গত নির্বাচন ও বর্তমান সময়ে বিভিন্ন দলের অবস্থান সম্পর্কে কিঞ্চিত আলোচনা করবো।

২০১৫ সালের সর্বশেষ ভিয়েনার রাজ্য নির্বাচনে SPÖ ৩৯% পেয়ে প্রথম এবং FPÖ ৩১% পেয়ে দ্বিতীয় স্থান অর্জন করেছিল। Grünen পার্টি ১২% এবং ÖVP 9% ভোট পেয়ে যথাক্রমে তৃতীয় ও চতুর্থ স্থান দখল করেছিল। তারপর SPÖ + Grünen ( 39+12=51%) মিলে ভিয়েনা কোয়ালিশন সরকার গঠন করেছিল।

নির্বাচনের পূর্বে এক জনমত জরিপে দেখা গেছে ভিয়েনার মেয়র মিখাইল লুডভিগের নেতৃত্বাধীন SPÖ ভিয়েনায় প্রায় ৪০% ভোট পাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে এবং প্রায় ১৮% থেকে ২০ % ভোট পেয়ে দ্বিতীয় থাকতে পারেন অর্থমন্ত্রী গেরনট ব্লুমেলের ÖVP। Grünen পার্টি ১২% থেকে ১৫% এবং FPÖ ১০% থেকে ১৫% এবং NEOS ৩% থেকে ৬% ভোট পাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। সাবেক FPÖ প্রধান হাইঞ্জ-ক্রিশ্চান স্ট্রাখ দলের প্রধান থেকে পদত্যাগ করে গত বৎসর রাজনীতি ছেড়ে দেওয়ার ঘোষণা দিয়েছিলেন। এই বৎসর তিনি নিজেই নতুন দল ঘোষণার দিয়ে ভিয়েনার রাজনীতিতে ফেরত আসার ঘোষণা দিয়েছেন। তার এই come back এর ফলে FPÖ তার কিছু ভোটার হারাতে পারে। কট্টরপন্থী Heinz Christian Strache এর এখনও অনেক সমর্থন রহিয়াছে। তাই STRACHE ২% থেকে ৫% ভোট পেয়েও যেতে পারেন। অন্যান্য আরও কিছু ছোট দল আছে কিন্ত তারা একটা বেশী  সুবিধা করতে পারবে বলে মনে হয় না।

অস্ট্রিয়ার ক্ষমতাসীন দল ÖVP আপ্রাণ চেষ্টা করছে ভিয়েনা প্রশাসনে ফিরে আসতে। যদি তারা বিধ্বস্ত FPÖ এর ভোটারদের নিজেদের দিকে আনতে পারে এবং ২০% এর উপরে ভোট পায় এবং SPÖ ৪০% এর অনেক নীচে নেমে আসে তাহলে ÖVP তাকে নিয়ে ভিয়েনা প্রশাসন গঠনের জন্য SPÖ এর চাপ প্রয়োগ করবে। তখন ভিয়েনার প্রশাসনের ডেপুটি মেয়র ও অর্থ বিষয়ক বিভাগ তাদের হাতে থাকবে। আর যদি জনমত জরিপের মতোই নির্বাচন হয় তাহলে SPÖ ও Grünen তাদের কোয়ালিশন পূর্বের মতোই চালিয়ে যাবেন।

এদিকে বাংলাদেশী বংশোদ্ভুত ভোলা লালমোহনের সন্তান মাহমুদুর রহমান (নয়ন) একমাত্র বাংলাদেশী ÖVP (অস্ট্রিয়ান পিপলস পার্টি) থেকে কাউন্সিলর প্রার্থী । মাহমুদুর রহমান (নয়ন) যদি নির্বাচিত হয় তবে তিনিই হবেন প্রথম বাংলাদেশী যিনি অষ্ট্রিয়ায় বুকে বাংলাদেশের সুনাম বয়ে আনবেন ।আমাদের  কমিউনিটির ২৩ নাম্বার ডিস্ট্রিক্টে বসবাসকারীদের থেকে ভোট  কামনা সহ সমগ্র কমিউনিটির দোয়া প্রার্থনা করেছেন । 

 9,240 total views,  1 views today