শ্রীঘ্রই অস্ট্রিয়ার করোনার কমলা জোনে আসছে “Lockdown Light”

 অন লাইন ডেস্ক থেকে,কবির আহমেদঃ অস্ট্রিয়ায় করোনার সংক্রমণ ক্রমাগত বৃদ্ধির ফলে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী রুডল্ফ আনস্কোবার। তিনি বলেন,আমাদের কাছে পূর্বেই পূর্বাভাস ছিল যে, অক্টোবর মাসে করোনার প্রতিদিনের সংক্রমণ হাজারের উপরে উঠতে পারে। এখন সংক্রমণ রোধে মার্চের মতো সম্পূর্ণ লকডাউন দেওয়া সম্ভব নয়।

তিনি আরও জানান, সরকার একটি ”লকডাউন লাইট” এর পরিকল্পনা করেছেন। সরকারের পরিকল্পিত “লকডাউন লাইট”এ যেসব বিধিনিষেধ আরোপ করার চিন্তা ভাবনা করা হচ্ছে তা নিম্নরুপ-

*প্রথমে রাত্রিকালীন কারফিউ জারি কমপক্ষে কমলা জোন ঘোষিত জেলা সমূহে। তবে কারফিউ সমগ্র অস্ট্রিয়ার জন্যও হতে পারে। এই কারফিউ এর সময় রাত ১০ টা বা ১১ টা থেকে সকাল ৬ টা পর্যন্ত। এই সময়ের মধ্যে সকল প্রকার রেস্টুরেন্ট, ফ্রাস্টফুড, ডিসকো,ক্যাসিনো বা রাত্রিকালীন ক্লাব সম্পূর্ণ বন্ধ রাখতে হবে। যাদের বের হওয়ার অনুমতি আছে তাদের ব্যতীত অন্যরা পুলিশ কন্ট্রোলে ধরা পড়লে জরিমানা গুনতে হবে। জরিমানা €1,450 থেকে €30,000(ত্রিশ হাজার) ইউরো পর্যন্ত।

*ব্যক্তিগত অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ পূর্বের ১০ জন মানুষের পরিবর্তে এখন থেকে সর্বোচ্চ ৫ জন করা হবে অর্থাৎ ব্যক্তিগত কোন অনুষ্ঠানে সাক্ষাৎ বা উপস্থিতি একসাথে সর্বোচ্চ ৫ জনের বেশী হতে পারবে না।

*কমলা জোন বা সমগ্র দেশে ২ সপ্তাহের শরৎকালীন ছুটির ঘোষণা দেওয়া যাতে এই দুই সপ্তাহের জন্য মানুষ নিজের বাসায় বেশী সময় কাটাতে পারে। শিক্ষা মন্ত্রণালয় ই-লার্নিং অর্থাৎ অনলাইন পাঠ দানের দিকে যেতে চায় না, তবে মারাত্মকভাবে ক্ষতিগ্রস্থ জেলাগুলিতে সরকারের কিছু অংশ উচ্চ বিদ্যালয়ে অন লাইনে ক্লাশ করানোর জন্য জোড়ালো পরামর্শ দিয়েছেন।

*করোনার এই দ্বিতীয়দফার প্রাদুর্ভাবের সময় বয়স্ক মানুষের নার্সিং হোমগুলিতে করোনার সংক্রমণের ব্যাপক প্রসার ঘটেছে। তাই দেশের সমস্ত নার্সিং হোমগুলিতে বহিরাগতদের জন্য আরও কঠোর বিধিনিষেধ আরোপ করার। তবে মোবাইল কেয়ার এবং ডে কেয়ার সুবিধাও নিশ্চিত করতে হবে।

*নাক ও মুখের সুরক্ষা বন্ধনী মুখোশ বা মাস্ক পড়ার বাধ্যবাধকতা আরও অধিক ক্ষেত্রে প্রসারিত করা। আবদ্ধ ঘরে যারা অনেক মানুষের আগমনের জায়গায় কাজ করেন তাদের বাধ্যতামূলক MNS মাস্ক পড়তে হবে আরও অধিকতর সুরক্ষা নিশ্চিত করার জন্য।

কারফিউ, জার্মানি ভাষায় Sperrstunde আমাদের দেশের মত নয়। আমরা সাধারণত মনে করি,কারফিউ মানেই মিলিটারী বা পুলিশ টহল দিবে এবং দেখলেই লাঠিপেটা বা গুলিবর্ষণ করবে। এখানে কারফিউ চলাকালীন সময়ে যদি আপনি পুলিশের চেকে পড়ে যান তবে তারা অত্যন্ত মার্জিত ব্যবহারে আপনাকে এই নিষিদ্ধ সময়ে বাহিরে আসার কারণ জিজ্ঞাসা করবেন। যাদের বের হওয়ার অনুমতি আছে তাদের ব্যতীত অন্যদের জরিমানা করে ছেড়ে দিবে। আর একবার জরিমানা হয়ে গেলে সেটা অবশ্য দিতে হবে তবে কিস্তি করেও দেয়া যায়। অস্ট্রিয়ায় বসবাসরত সকল অস্ট্রিয়ান নাগরিক এবং সকল বিদেশীদের ডাটা সরকারের ম্যাজিস্ট্রেট অফিসে সংরক্ষিত আছে।

 

 9,238 total views,  1 views today