অস্ট্রিয়ায় করোনায় ২য় লকডাউন জনগণের উপর নির্ভরশীল !

অস্ট্রিয়ার পরিস্থিতি গুরুতর ! ভিডিও বার্তায় চ্যান্সেলর সেবাস্তিয়ান কুর্জ

নিউজ ডেস্কঃ অস্ট্রিয়ার সরকার প্রধান চ্যান্সেলর সেবাস্তিয়ান কুর্জ আজ রবিবার ১৮ অক্টোবর সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে এক ডিডিও বার্তায় বলেন,অস্ট্রিয়ায় দ্বিতীয় লকডাউন আসবে কি আসবে না সেটা আমাদের সবার উপর নির্ভর করছে।

সপ্তাহান্তে অস্ট্রিয়ায় সাধারণত করোনার পরীক্ষা খুবই কম হয় এবং সংক্রমণের সনাক্তও কম হয়। কিন্ত আজ নতুন করোনার সংক্রমণের রেকর্ড সংখ্যার পরিপ্রেক্ষিতে – সঙ্কটের সূচনালগ্ন থেকে সর্বোচ্চ রবিবারের আক্রান্তের সংখ্যানটি আজ ১,৬৭২ তে উন্নীত হওয়ায় গভীর উদ্বেগ,আশঙ্কা এবং দ্বিতীয় “লকডাউনের” হুঁশিয়ারি দিয়েছেন – চ্যান্সেলর সেবাস্তিয়ান কুর্জ (ÖVP)। তিনি আবারও অস্ট্রিয়ানদের “সংক্রমণের সংখ্যা কম রাখতে একসাথে থাকার জন্য” আহ্বান জানিয়েছেন।

দ্বিতীয় লকডাউন প্রতিরোধে এটি “আমাদের সবার উপরে” – সামাজিক যোগাযোগ, পূর্ববর্তী উদযাপন, বড় বড় ব্যক্তিগত সমাবেশ এবং পার্টিগুলি হ্রাস করে আমরা অস্ট্রিয়ায় দ্বিতীয়বারের মতো লকডাউন রোধ করতে পারি।

সোমবার সকালে অস্ট্রিয়ান ফেডারেল সরকার ও রাজ্য গভর্নরদের সাথে করোনা সম্পর্কিত বিশেষ ভিডিও কনফারেন্সের পূর্বে তিনি এই অনুরোধ ও হুঁশিয়ারি দিলেন। করোনায় আক্রান্ত ব্যক্তিদের প্রতিদিনের রেকর্ড বৃদ্ধির পরিপ্রেক্ষিতে আরও ব্যবস্থা গ্রহণের বিষয়ে আলোচনা করার আগে, কুর্জ রোববার অস্ট্রিয়ানদের “চ্যালেঞ্জিং শরত্কালে ও শীতকালীন” হওয়ার জন্য একমত পোষণ করেছিলেন, এখন আমরা আবারও”অত্যন্ত কঠিন সময়” এর মুখোমুখি। করোনার বিধিনিষেধ, প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা আমাদের যথাযথভাবে অবশ্যই মেনে চলতে হবে। তিনি আবারও বলেন, আমাদের হাতে করোনার ভ্যাকসিন না আসা পর্যন্ত আমরা সবাই যার যার ব্যক্তিগত সুরক্ষা নিশ্চিত করে চলতে হবে।

অস্ট্রিয়ার রাজধানী ভিয়েনা থেকে প্রচারিত বাংলা অন লাইন পোর্টাল “ইউরো সমাচারের” সম্পাদক আজ এক বার্তায় অস্ট্রিয়ায় বিশেষ করে রাজধানী ভিয়েনায় বাংলাদেশী কমিউনিটির লোকজনের করোনায় আক্রান্ত বৃদ্ধিতে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন। তিনি আমাদের কমিউনিটির সকলকে সব সময় নাক ও মুখের সুরক্ষা বন্ধনি(মাস্ক),সামাজিক দূরত্ব এবং অতি প্রয়োজন না হলে কমপক্ষে আগামী দুই সপ্তাহ ঘর থেকে বের না হওয়ার অনুরোধ করেছেন। তিনি আরও অনুরোধ করেন এক বাসায় বসবাস ব্যতীত অন্যান্য বন্ধু,বান্ধব বা আত্মীয়স্বজনদের সাথে দেখা সাক্ষাতেও করোনার যথাযথ বিধিনিষেধ মেনে চলার অনুরোধ করেছেন।

আজ অস্ট্রিয়ায় নতুন করে করোনায় সনাক্ত হয়েছেন ১,৬৭২ জন এবং মৃত্যুবরণ করেছেন ৪ জন। এই পর্যন্ত মোট আক্রান্তের সংখ্যা ৬৪,৮০৬ জন এবং মৃত্যুবরণ করেছেন ৮৯৩ জন। করোনার থেকে আরোগ্য লাভ করেছেন ৪৯,৫৬১ জন। বর্তমানে করোনার সক্রিয় রোগীর সংখ্যা ১৪,৩৫৩ জন। এর মধ্যে ক্রিটিক্যাল অবস্থায় আছেন ১৩৫ জন এবং হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন ৭৪২ জন। বাকীরা নিজ নিজ বাসায় আইসোলেশনে আছেন।

 10,353 total views,  1 views today